Bangladesh news: অ্যাম্বুলেন্স থামিয়ে চালককে মারধর বাস চালকের, মাশুল দিল ছোট্ট শিশু

Bangladesh News: প্রত্যক্ষদর্শী ও বাইপাইল ট্রাফিক পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, অ্যাম্বুলেন্সের রাস্তা আটকে দাঁড়ায় একটি বাস। বাস থেকে নেমে অ্যাম্বুলেন্স চালকর সঙ্গে ঝগড়া শুরু করেন বাসচালক।

Bangladesh news: অ্যাম্বুলেন্স থামিয়ে চালককে মারধর বাস চালকের, মাশুল দিল ছোট্ট শিশু
ছবি: সংবাদ সংস্থা
TV9 Bangla Digital

| Edited By: অরিজিৎ দে

Feb 02, 2022 | 3:45 PM

ঢাকা: অ্যাম্বুলেন্স পাশ কাটিয়ে যাওয়ার জন্য বাসকে জায়গা না দেওয়ায়, অ্যাম্বুলেন্স চালকের সঙ্গে গাড়ি থামিয়ে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েছিলেন বাস চালক। উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়ের পর অ্যাম্বুলেন্স চালককে মারধর করে তার গাড়ির চাবি ছিনিয়ে নেওয়া হয়। সেইসময় অ্যাম্বুলেন্সের ভিতরে থাকা ক্যান্সার আক্রান্ত শিশুর মৃত্যু হয়েছে। প্রথম আলোতে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে এমনটাই জানা গিয়েছে। মঙ্গলবার, বাংলাদেশের (Bangladesh) সাভারে আশুলিয়া বাইপাইল মোড়ে এই মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে। নিহত শিশুর নাম আফসানা আখতার। নয় বছর বয়সী শিশুটি দীর্ঘদিন ধরেই ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিল।

ইতিমধ্যেই এই ঘটনায় জড়িত সন্দেহে দু’জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মৃত শিশুর বাবা আলম মিয়া মঙ্গলবার ঘটনার কথা জানিয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছিলেন। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ধৃতরা হলেন ৪০ বছর বয়সী হানিফ খান এবং ২৫ বছর বয়সী মহম্মদ ইমরান। প্রধান অভিযুক্ত বাস চালক নজরুল ইসলামসহ ঘটনায় জড়িত বাকিদের গ্রেফতারের চেষ্টা করছে পুলিশ।

গতকাল দুপুরে শিশুটির অবস্থার অবনতি হওয়ার কারণে তাঁকে ঢাকার মহাখালীর জাতীয় ক্যানসার গবেষণা কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। নিহত আফসানার বাবা আলম মিয়া বলেন, “হাসপাতালে ভর্তি করতে গেলে চিকিৎসকরা জানিয়েছিলেন রোগীর অবস্থা ভালো নয়, রোগী বাঁচবে না। আমি মেয়েকে বাড়িতে নিয়ে আসার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। বাড়ি ফেরার পথেই অ্যাম্বুলেন্স আটকে গাড়ির চাবি নিয়ে নেওয়া হয়। তখনই আমার মেয়ে মারা গিয়েছে।”

প্রত্যক্ষদর্শী ও বাইপাইল ট্রাফিক পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, অ্যাম্বুলেন্সের রাস্তা আটকে দাঁড়ায় একটি বাস। বাস থেকে নেমে অ্যাম্বুলেন্স চালকর সঙ্গে ঝগড়া শুরু করেন বাসচালক। বাস চালক নজরুল ইসলামের পরিচিত আরও কয়েকজন চালক ঘটনাস্থলে আসেন। অ্যাম্বুলেন্স চালকের গাড়ির চাবি ছিনিয়ে নিয়ে তাঁকে মারধর করা হয়। শিশুটির পরিবারের লোকেরা অ্যাম্বুলেন্স চালককে ছেড়ে দেওয়ার অনুরোধ জানালেও কোনও কোথায় শোনেননি অভিযুক্তরা। প্রায় আধঘন্টা ধরে মারধরের ঘটনার চলতে থাকে। এরপরই দেখা যায় ক্যান্সার আক্রান্ত শিশুটি মারা গিয়েছে। ট্রাফিক পুলিশ ঘটনাস্থলে আসতেই অভিযুক্তরা গা ঢাকা দেন। প্রধান অভিযুক্তকে খুঁজে বের করার চেষ্টা করছে পুলিশ।

আরও পড়ুন: Bangladesh Vaccine: প্রথম ডোজ়ে সিনোভ্যাক, বুস্টার ডোজ়ে অ্যাস্ট্রাজেনেকা এবং মডার্নার টিকা দেওয়ার নির্দেশ বাংলাদেশে

আরও পড়ুন : Bangladesh News : রক্তে ভেসে যাচ্ছে বৌদ্ধ বিহার, ডাকাতি করতে গিয়ে কুপিয়ে খুন ধর্মগুরুকে!

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla