সন্তানের নাম কী হবে তা বাবা-মা ছাড়া আর কারও নির্ণয় করার অধিকার নেই: সাবা

TV9 Bangla Digital

TV9 Bangla Digital | Edited By: বিহঙ্গী বিশ্বাস

Updated on: Sep 09, 2021 | 6:49 PM

Kareena- Saif: অনবরত চলতে থাকা ট্রোলিং নিয়ে মুখ খুললেন ছোট্ট জেহ'র পিসি ওরফে সাবা আলি খান।

সন্তানের নাম কী হবে তা বাবা-মা ছাড়া আর কারও নির্ণয় করার অধিকার নেই: সাবা
করিনা-জেহ।

বয়স তার মাত্র সাত মাস। তবু ইতিমধ্যেই তার নাম নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় কদর্য ট্রোলিং। কথা হচ্ছে করিনার দ্বিতীয় সন্তান জাহাঙ্গীর ওরফে জেহকে নিয়ে। অনবরত চলতে থাকা ট্রোলিং নিয়ে মুখ খুললেন ছোট্ট জেহ’র পিসি ওরফে সাবা আলি খান।

ইনস্টাগ্রামে করিনা ও জেহর একটি ছবি পোস্ট করে তিনি লেখেন, “একজন মা যখন তাঁর সন্তানকে তাঁর ভিতরে লালন করেন ও তাঁকে জন্ম দেন শুধুমাত্র তিনি ও সন্তানের বাবার নির্ণয় করার অধিকার রয়েছে বাচ্চার নাম কী হবে… বাচ্চা কীভাবে বড় হবে।” থেমে থাকেননি সাবা। তিনি আরও যোগ করেন, “কেউ না… কেউ না… পরিবারের অন্যান্য সদস্যরাও কেবন মতামত দিতে পারে। কিন্তু মায়ের আত্মা সন্তানকে লালন করেছে, পালন করেছে, তাই তাঁরা ছাড়া আর কারও এ অধিকার নেই। সবাইকে মনে করিয়ে দিলাম কথাটা। সম্মান করুন।” সাবার কথাকে সম্মান জানিয়েছেন করিনা-অনুরাগীরাও। তাঁদের অনেকেরই মতে, ‘জাহাঙ্গীর আদপেই একটি সুন্দর নাম।”

View this post on Instagram

A post shared by Saba (@sabapataudi)

ইতিহাস বলছে, নুরুদ্দীন মহম্মদ সেলিম বা জাহাঙ্গীর ছিলেন মুঘল সাম্রাজ্যের চতুর্থ সম্রাট। তিনি ১৬০৫ সাল থেকে তার মৃত্যু অবধি ১৬২৭ সাল পর্যন্ত রাজত্ব করেন। এর আগে প্রথম সন্তানের নাম তৈমুর রাখা নিয়ে সমালোচিত হয়েছিল কাপুর ও খান পরিবার। অত্যাচারী শাসক তৈমুরের নামে কী করে ছেলের নামকরণ হতে পারে তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন নেটিজেনদের একটা বড় অংশ। হয়েছিল সমালোচনাও। জাহাঙ্গীরের বেলাতেও অন্যথা হয়নি। বিতর্ক জারি এখনও। কোলের সন্তানকে ট্রোল করা নিয়ে মাস খানেক আগে মুখ খুলেছিলেন করিনা নিজেও। তিনি বলেছিলেন, “আর কোনও উপায় নেই। আমায় ধ্যান করতে হবে। দেওয়ালে পিঠ ঠেকে গিয়েছে। একটি মুদ্রায় দুটি পিঠ। পজেটিভ-নেগেটিভ। এই দুই নিষ্পাপ শিশুকে নিয়ে কথা হচ্ছে। তবে হ্যাঁ আমি খুশি থাকব ও একই সঙ্গে পজেটিভ থাকব।”

গত মাসের মাঝামাঝি ছোট্ট জেহ আর তৈমুরকে নিয়ে মলদ্বীপ পাড়ি দিয়েছিলেন করিনা। উপলক্ষ ছিল সইফ আলি খানের জন্মদিন সেলিব্রেশন। করিনা আগেই জানিয়েছিলেন হাবেভাবে ও দেখতে তৈমুরের থেকে একেবারেই আলাদা তাঁর ভাই জাহাঙ্গীর ওরফে জেহ। তৈমুর দেখতে বাবা সইফ আলি খানের মতো, অন্যদিকে জেহ দেখতে হুবহু মায়ের মতো। তাঁর কথায়, “আমার দুই সন্তানই চারিত্রিক দিক দিয়েও একেবারে আলাদা। তৈমুর আউটগোয়িং। কিন্তু বয়সেই জেহ অনেক বেশি চুপচাপ, শান্ত।” জেহ-র মুখের সঙ্গে করিনার মুখের যে অনেক মিল রয়েছে তা জানাচ্ছেন নেটিজেনরাও।

আরও পড়ুন- ‘হুবহু করিনার মতো দেখতে…’, জাহাঙ্গীরের প্রথম ছবি প্রকাশ্যে আসতেই বলছে নেটিজেন

আরও পড়ুন- Bollywood: কঙ্গনার বাতিল করা এই ৫ ছবি দিয়েই বলিউডে ছক্কা হাঁকিয়েছেন অনুষ্কা-করিনারা

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla