Agnipath Protest: নিশানায় প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন! অগ্নিপথ-বিক্ষোভ নিয়ে চাঞ্চল্যকর তথ্য গোয়েন্দা রিপোর্টে

Agnipath Protest: নিশানায় প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন! অগ্নিপথ-বিক্ষোভ নিয়ে চাঞ্চল্যকর তথ্য গোয়েন্দা রিপোর্টে
ছবি: সংবাদ সংস্থা

Intelligence Report: অন্যদিকে অগ্নিপথ প্রকল্পের প্রতিবাদে বিক্ষোভকারীদের তরফে আজ ভারত বনধের ডাক দেওয়া হয়েছে। বিগত কয়েকদিন ধরেই অগ্নিপথ নিয়ে গোটা দেশে উত্তাল।

TV9 Bangla Digital

| Edited By: অরিজিৎ দে

Jun 20, 2022 | 1:30 PM

নয়া দিল্লি: গত কয়েকদিন ধরে কেন্দ্রের অগ্নিপথ প্রকল্প (Agnipath Scheme) নিয়ে উত্তাল গোটা দেশ। গোটা দেশেই অগ্নিপথ ইস্যুকে (Agnipath Protest) হাতিয়ার করে বিক্ষোভে নেমেছেন সেনাবাহিনীতে চাকরিপ্রার্থীদের একাংশ। অগ্নিপথ বিক্ষোভ নিয়ে চাঞ্চল্যকর তথ্য এসেছে কেন্দ্রীয় সরকারের হাতে। গোয়েন্দা তথ্য জানিয়েছে, অগ্নিপথ বিক্ষোভের আঁচ এবার গিয়ে পড়তে পারে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর (PM Narendra Modi) বাসভবনে। মোদীর বাড়ির সামনে বিক্ষোভ দেখানোর পরিকল্পনা করা হচ্ছে বলেই খবর। গোয়েন্দা রিপোর্ট থেকে জানা গিয়েছে, শুধুমাত্র প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনই সংসদ ভবন এবং শাসকদল বিজেপি সাংসদদের বাসভবনকেও নিশানা করতে পারে বিক্ষোভকারীরা। সূত্র মারফত জানা গিয়েছে, দিল্লি পুলিশের কাছেও এই নিয়ে মারাত্মক কিছু তথ্য এসেছে। জানা গিয়েছে, বাইরে থেকে বিক্ষোভকারীদের রাজধানী দিল্লিতে জড়ো করে এই বিক্ষোভ দেখানো হতে পারে। গোয়েন্দা রিপোর্ট থেকে পাওয়া এই চাঞ্চল্যকর তথ্য হাতে পাওয়ার পর থেকেই নড়েচড়ে বসেছে দিল্লি পুলিশ। রাজধানীর নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে। বিভিন্ন জায়গায় বাড়তি পুলিশকর্মী মোতায়েন করা হয়েছে। এছাড়াও দিল্লি পুলিশের তরফে, রাজধানী দিল্লিতে প্রবেশের সব সীমান্ত গুলিতেও নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে।

অন্যদিকে অগ্নিপথ প্রকল্পের প্রতিবাদে বিক্ষোভকারীদের তরফে আজ ভারত বনধের ডাক দেওয়া হয়েছে। বিগত কয়েকদিন ধরেই অগ্নিপথ নিয়ে গোটা দেশে উত্তাল। অগ্নিপথ প্রকল্পের প্রতিবাদে গোটা জুড়েই বিক্ষোভ-প্রতিবাদ চলছে। এমনকী বেশ কয়েকটি রাজ্যেও বিভিন্ন সরকারি দফতের হামলা এবং ট্রেনে আগুন ধরিয়ে দেওয়ার ঘটনা ঘটেছিল। কেন্দ্রের এই নতুন প্রকল্পে সবথেকে বেশি ধাক্কা খেয়েছিল ভারতীয় সেনায় চাকরিপ্রার্থীরা। নতুন নিয়মে কেন্দ্রের তরফে বলা হয়েছে, অগ্নিপথ প্রকল্পের আওতায় ভারতীয় সেনাবাহিনী, নৌসেনা এবং বায়ুসেনাতে ৪ বছরের জন্য কর্মী নিয়োগ করার কথা জানিয়েছিল কেন্দ্র। প্রশিক্ষণের পর ৪ বছর চাকরি করার পর, তাদের অবসর নিতে হবে, সেই সময় তাদের এককালীন টাকা দেওয়া হলেও, পেনশন ও অন্যান্য সুযোগ সুবিধা মিলবে না। এই নিয়ম চালু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে দেশজুড়ে প্রতিবাদে নেমে পড়েছিলেন চাকরিপ্রার্থীরা। এমনকী বিরোধী দলগুলিও কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে সরব হয়েছিল।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 BANGLA