Puri Temple: জগন্নাথের রাজবেশ চলাকালীন বিপত্তি, পুরী মন্দিরের গর্ভগৃহে খসে পড়ল দেড় কেজির চাঁই!

Puri Temple: জগন্নাথদেব, বলরামদেব ও সুভদ্রা দেবীর স্নানপর্ব শেষের পর তাদের বেশভূষা পরানো হচ্ছিল। সেই সময়ই আচমকা বলরাম দেবের পিছনের দেওয়াল থেকে প্রায় ১.৫ কেজি ওজনের একটি প্লাস্টার খসে পড়ে।

Puri Temple: জগন্নাথের রাজবেশ চলাকালীন বিপত্তি, পুরী মন্দিরের গর্ভগৃহে খসে পড়ল দেড় কেজির চাঁই!
ফাইল চিত্র
TV9 Bangla Digital

| Edited By: ঈপ্সা চ্যাটার্জী

Aug 04, 2022 | 8:27 AM

ভুবনেশ্বর: প্রাচীন ও ঐতিহ্যশালী পুরীর জগন্নাথ মন্দিরে ভাঙন। দ্বাদশ শতাব্দীতে তৈরি এই মন্দিরের গর্ভগৃহেরই দেওয়াল খসে পড়েছে। জানা গিয়েছে বলরামের মূর্তির পিছনে বেশ কিছুটা অংশ খসে পড়েছে। সেই সময় জগন্নাথ দেবের বেশভূষা পরানোর কাজ চলছিল। আচমকা দেওয়ালের একটি অংশ খসে পড়তে দেখেই আতঙ্কিত হয়ে পড়েন সেবাইতরা। তবে ঘটনায় কেউ আহত হয়নি বলেই জানা গিয়েছে। দ্রুত মন্দির মেরামতির কাজ শুরু হবে।

মন্দির কমিটির তরফে জানানো হয়েছে, মঙ্গলবার রাতে দুর্ঘটনাটি ঘটে। জগন্নাথদেব, বলরামদেব ও সুভদ্রা দেবীর স্নানপর্ব শেষের পর তাদের বেশভূষা পরানো হচ্ছিল। সেই সময়ই আচমকা বলরাম দেবের পিছনের দেওয়াল থেকে প্রায় ১.৫ কেজি ওজনের একটি প্লাস্টার খসে পড়ে। ঘটনায় কোনও পুরোহিত বা সেবাইত আহত না হলেও, গর্ভগৃহেই এই ঘটনা ঘটায়, তারা কিছুটা আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। দ্বাদশ শতাব্দীর প্রাচীন এই মন্দিরটির রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্বে রয়েছে আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অব ইন্ডিয়া। ইতিমধ্যেই তাদেরও বিষয়টি সম্পর্কে অবগত করা হয়েছে বলে জানান মন্দির উন্নয়ন কমিটির প্রধান অজয় কুমার জানা।

এদিকে, গর্ভগৃহের দেওয়াল খসে পড়তেই আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অব ইন্ডিয়ার কাজ নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন সেবাইতরা। এক সেবাইত বলেন, “রথযাত্রার সময় যখন পুরীর মন্দির থেকে জগন্নাথ, বলরাম ও সুভদ্রাকে গর্ভগৃহ থেকে বের করে মাসির বাড়ি গুচিন্ডায় নিয়ে যাওয়ার পরে, ২ জুলাই এএসআইয়ের আধিকারিকরা গর্ভগৃহের অবস্থা পর্যবেক্ষণে এসেছিলেন। সেই সময় তাদের দেওয়ালে ফাটল কীভাবে চোখে পড়ল না? ওনাদের কর্তব্যে গাফিলতির জন্যই মন্দিরের গর্ভগৃহ থেকে চুন-পলেস্তারের বড় চাঙর খসে পড়ল। মন্দিরের পাথরের উপরে চুন-পলেস্তার বসানো ঠিক হয়নি।” উল্লেখ্য, পুরী মন্দিরকে পুরাতাত্ত্বিক স্থান হিসাবে বহুদিন আগেই চিহ্নিত করা হয়েছে। এর রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব পুরাতত্ত্ব বিভাগের উপরেই। তবে কয়েক বছর আগে মন্দির কমিটির তরফে নতুন নিয়ম তৈরি করা হয়, যেখানে বলা হয়, ত্রিমূর্তি যতক্ষণ রত্ন সিংহাসনে থাকবে, ততক্ষণ পুরোহিত ও সেবাইত ছাড়া আর কেউ গর্ভগৃহে প্রবেশ করতে পারবে না।

এদিকে, এএসআইয়ের তরফে অবহেলার অভিযোগ উড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। তাদের তরফে জানানো হয়েছে, গর্ভগৃহের ভিতরে সর্বক্ষণ ভেজা ভাব থাকার কারণেই ড্যাম্প থেকে এই পলেস্তার খসে পড়েছে। এতে চিন্তার কোনও কারণ নেই। গর্ভগৃহ সম্পূর্ণ সুরক্ষিতই রয়েছে। শীঘ্রই খসে পড়া অংশটিরও মেরামতি করা হবে।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla