UK Policy on Covishield: কোভিশিল্ডকে স্বীকৃতি না দিলে ‘একই ভাষায় জবাব’…ব্রিটেনকে কড়া বার্তা ভারতের

Covishield awaits UK Recognition: কোভিশিল্ডকে করোনার টিকা হিসেবে না মানা ব্রিটেনের বৈষম্যমূলক আচরণ হিসেবেই দেখছে ভারতীয় বিদেশ মন্ত্রক। আর যদি এমনটাই চলতে থাকে তাহলে একইরকম ব্যবস্থা নেওয়ার অধিকার ভারতের সমানভাবে আছে বলে মনে করছেন বিদেশ সচিব।

UK Policy on Covishield: কোভিশিল্ডকে স্বীকৃতি না দিলে 'একই ভাষায় জবাব'...ব্রিটেনকে কড়া বার্তা ভারতের
ব্রিটেনকে কোভিশিল্ড ইস্যুতে কড়া বার্তা বিদেশ সচিব হর্ষ বর্ধন শ্রিংলার (ফাইল ছবি)

নয়া দিল্লি : কোভিশিল্ডকে (Covishield) এখনও পর্যন্ত করোনার টিকা হিসেবে মানতে চাইছে না ব্রিটেন। এদিকে দেশের একটি বড় অংশের নাগরিক ইতিমধ্যেই কোভিশিল্ডের দু’টি ডোজ় নিয়ে ফেলেছেন। ফলে তাঁদের ব্রিটেন যাত্রা নিয়ে নানাবিধ সংশয় তৈরি হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে ব্রিটেন দ্রুত সিদ্ধান্ত বদল না করলে ভারতের থেকেও একইরকম ব্যবহার পাবে। আজ এমনটাই শাসানি দিয়ে রাখলেন বিদেশ সচিব হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা (Harsh Vardhan Shringla)।

কোভিশিল্ডকে করোনার টিকা হিসেবে না মানা ব্রিটেনের বৈষম্যমূলক আচরণ হিসেবেই দেখছে ভারতীয় বিদেশ মন্ত্রক। আর যদি এমনটাই চলতে থাকে তাহলে একইরকম ব্যবস্থা নেওয়ার অধিকার ভারতের সমানভাবে আছে বলে মনে করছেন বিদেশ সচিব।

আজ দিল্লিতে এক সাংবাদিক বৈঠকে শ্রিংলা জানিয়েছেন, “ব্রিটেন কোভিশিল্ডকে বৈধ করোনা টিকা হিসেবে স্বীকৃতি না দেওয়ার ফলে আমাদের দেশ থেকে ব্রিটেনে যাওয়া যাত্রীরা সমস্যায় পড়ছেন। ব্রিটেনের বিদেশ সচিবের কাছে এই বিষয়টি নিয়ে কড়া প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর (S Jaishankar)। আমাকে বলা হয়েছে, ব্রিটেনের থেকে এই সমস্যা মেটানোর জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে।”

উল্লেখ্য, সম্প্রতি বিদেশ থেকে আগত যাত্রীদের জন্য নতুন নিয়ম জারি করেছে ব্রিটেন। সেখানে বলা হয়েছে, যাঁরা কোভিশিল্ডের দু’টি ডোজ় নিয়েছেন, তাঁদের ভ্যাকসিনেশন হয়নি বলেই ধরে নেওয়া হবে। ফলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে ১০ দিনের বাধ্যতামূলক সেল্ফ আইসোলেশনে থাকতে হবে। আর ব্রিটেনের এই সিদ্ধান্ত মোটেই ভাল চোখে দেখছে না ভারত। ভারতে একটি বড় অংশের নাগরিক ইতিমধ্যেই কোভিশিল্ডের দু’টি ডোজ নিয়ে নিয়েছেন। ফলে, ব্রিটেনের এই নয়া নির্দেশিকার পর অনেকেরই ব্রিটেন যাত্রায় সমস্যা দেখা দিচ্ছে। আজই ব্রিটেনের বিদেশ সচিব লিজ় ট্রাস্টের সঙ্গে এই বিষয়ে কথা বলেছেন বিদেশ মন্ত্রী এস জয়শঙ্কর।

ব্রিটেন প্রশাসন সূত্রে খবর, গত শুক্রবার থেকে জারি হওয়া এই নির্দেশিকা আগামী ৪ অক্টোবর থেকে কার্যকর হবে। বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ব্রিটেনে আগত পর্যটকদের কথা মাথায় রেখেই যাবতীয় নিয়মকানুন ‘সরলীকরণ’ করার লক্ষে এই পদক্ষেপ করা হয়েছে। আন্তর্জাতিকভাবে ব্রিটেন, ইউরোপ (Europe) ও আমেরিকা (USA) অনুমোদিত টিকাকরণ কর্মসূচি থেকে অক্সফোর্ড ও অ্যাস্ট্রজেনেকা, ফাইজার- বায়োএনটেক (Pfizer-BioNTech), মডার্নার (Moderna) মতো টিকার দুটি ডোজ় অথবা জনসনের একটি ডোজ় যাঁরা পেয়েছেন, নতুন নিয়েমের আওতায় তাঁরা পড়বেন না। তাদেরকেই শুধুমাত্র সম্পূর্ণরূপে টিকা প্রাপ্ত হিসেবে গণ্য করা হবে।

অস্ট্রেলিয়া, অ্যান্টিগুয়া ও বার্বুডা,ক্যানাডা, ইজরায়েল, জাপান, কুয়েত, মালয়েশিয়া, নিউ জিল্যান্ড, সিঙ্গাপুর, সৌদি আরব, দক্ষিণ কোরিয়া দেশগুলির নাগরিকরা স্থানীয় স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠান গুলির অধীনে করোনা টিকা পেলেও গ্রাহ্য হবে ব্রিটেনে।

ব্রিটেন সরকারের নয়া নিয়মে সঙ্কটে ভারতীয় নাগরিকরা। কারণ ভারতের বেশিরভাগ নাগরিকরাই অক্সফোর্ড ও অ্যাস্ট্রজেনেকার কোভিশিল্ড টিকা পেয়েছেন, যা ব্রিটেন সরকারের নয়া টিকাকরণ নীতিতে প্রযোজ্য নয়। ভারতে বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর ও ভারতের বিদেশ সচিব হর্ষ শ্রিংলা, ব্রিটেন প্রশাসনের উচ্চ স্তরে বিষয়টি নিয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করার চেষ্টা করলেও এখনও পর্যন্ত কোনও ইতিবাচক পদক্ষেপ গ্রহন করা হয়নি। এই কারণে ভারতের নাগরিকরা আরও বেশি বিচলিত হয়ে পড়েছেন।

আরও পড়ুন : United Kingdom: ব্রিটেনে গ্রাহ্য নয় কোভিশিল্ড, বিপাকে ভারতীয় পর্যটকরা

Read Full Article

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla