India-Pakistan Issue: মুক্তির আনন্দ, আটক ২০ ভারতীয় মৎসজীবীকে ভারতের হাতে তুলে দিল পাকিস্তান

India-Pakistan Issue: মুক্তির আনন্দ, আটক ২০ ভারতীয় মৎসজীবীকে ভারতের হাতে তুলে দিল পাকিস্তান
ছবি: সংবাদ সংস্থা

Fishermen: রবিবার ওই মৎসজীবীদের গ্রেফতার করা হয়েছিল। তাদেরকে করাচির লন্ধি জেলে রাখা হয়েছিল বলেই জানা গিয়েছিল।

TV9 Bangla Digital

| Edited By: অরিজিৎ দে

Jan 25, 2022 | 11:58 AM

নয়া দিল্লি: সোমবার এক অনন্য মুহূর্তের সাক্ষী রইল ওয়াঘা সীমান্ত। মাছ ধরতে গিয়ে ভুলবশত পাকিস্তানের জলসীমাতে প্রবেশ করেছিলেন ২০ জন ভারতীয় মৎসজীবী। সোমবার ওয়াঘা সীমান্তে তাদের ভারতে হাতে তুলে দিল পাকিস্তান। রবিবার ওই মৎসজীবীদের গ্রেফতার করা হয়েছিল। তাদেরকে করাচির লন্ধি জেলে রাখা হয়েছিল বলেই জানা গিয়েছিল। পাকিস্তানের সমাজসেবী সংগঠন এধি ফাউন্ডেশনের মুখপাত্র জানিয়েছেন যাবতীয় নিয়মনীতি পূরণের পর বিএসফের হাতে ওই ২০ মৎসজীবীকে তুলে দেওয়া হয়েছে। সংস্থার মুখপাত্র মহম্মদ ইউনুস সংবাদ সংস্থা পিটিআই কে জানিয়েছেন, “মালির জেলা সংশোধনাগার থেকে ২০ জন মৎসজীবীকে সোমবার ওয়াঘা সীমান্তে নিয়ে আসা হয়েছিল। নিয়ম মেনেই সন্ধে বেলা তাদের বিএসএফে হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।”

জানা গিয়েছে পাকিস্তানের ভারতীয় হাই কমিশন থেকে পাওয়া ‘এমারজেন্সি ট্রাভেল সার্টিফিকেটের’ ভিত্তিতেই ভারতে ফিরে আসতে পেরেছেন তারা। পাকিস্তান থেকে ভারতের মাটিতে প্রবেশ করা পরই নিচু হয়ে তারা ভারতের মাটিকে চু্ম্বন করেন। ভারতীয় এক আধিকারিক জানিয়েছেন, দেশে প্রবেশের পর তাদের শারীরিক পরীক্ষাও করা হয়েছে পাশাপাশি তাদের করোনা পরীক্ষাও করা হয়েছে। কাল সারাদিন তাঁরা অমৃতসরে ছিলেন। আজ তাদের নিজেদের রাজ্য গুজরাটে ফিরে যাওয়ার কথা।

মুক্ত মৎসজীবীদের বিরুদ্ধে পাকিস্তানের জলসীমায় প্রবেশ এবং মাছ ধরার অভিযোগ ছিল। তাদেরকে গ্রেফতার করে সড়কপথে লাহোরে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। এধি ফাউন্ডেশনের পক্ষে থেকে ভাল ব্যবহারের জন্য প্রত্যেক মৎসজীবীকে পাকিস্তানি টাকায় ৫ হাজার টাকা দেওয়া হয়েছে।

মৎসজীবীরা জানিয়েছেন তাদের কোনও ধারণাই ছিল না যে তারা পাকিস্তানে প্রবেশ করেছেন। “রাতে তখন চারিদিক অন্ধকার ছিল। আমাদের মনে হয়েছিল আমরা এখনও ভারতেই রয়েছি। পাকিস্তানি উপকূল রক্ষী বাহিনীর সাদা নৌকা যখন আমাদের দিকে আসে তখন আমার বুঝতে পারি যে আমরা পাকিস্তানে চলে এসেছি। তারা আমাদের গ্রেফতার করেছিল এবং আমাদের মাছ ধরার নৌকাও বাজেয়াপ্ত করা হয়েছিল।” জানিয়েছেন ৫ বছর ধরে পাকিস্তানের জেলে থাকা মৎসজীবী সুনীল লাল। লাল বলেন তিনি অধীর আগ্রহে নিজের পরিবারে সঙ্গে দেখা করার অপেক্ষায় রয়েছেন। বিশেষত তাঁর দুই মেয়ের সঙ্গে তিনি দ্রুত দেখা করতে চান।

আরও পড়ুন Kashmir News: কাশ্মীরে বেআইনি অনুপ্রবেশের জন্য তৈরি ১৩৫ জঙ্গি, বিএসএফের দাবি ঘিরে আশঙ্কা

আরও পড়ুন Republic Day: বৃহস্পতিবার রাজধানীতে ‘ড্রাই ডে’, প্রজাতন্ত্র দিবস উপলক্ষে বিশেষ ঘোষণা আফগারি কমিশনের

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 BANGLA