‘শাসক দলের হাতের পুতুল পুলিশ’, প্রধানমন্ত্রী-রাষ্ট্রপতির কাছে অভিযোগ জানাবেন মানিক

Tripura Political Violence: বিধানসভার বিরোধী নেতা মানিক সরকার বলেন, "শাসক দল বিজেপি বিরোধীদের উপর যে অত্যাচার চলছে, তা রুখতে অক্ষম। পুলিশ ও প্রশাসন বর্তমানে শাসক দলের হাতের পুতুল হয়ে গিয়েছে।"

'শাসক দলের হাতের পুতুল পুলিশ', প্রধানমন্ত্রী-রাষ্ট্রপতির কাছে অভিযোগ জানাবেন মানিক
মানিক সরকার। ফাইল চিত্র।

আগরতলা: মুখ্যমন্ত্রী, রাজ্যপালকে অনুরোধ করেও কোনও লাভ হয়নি, তাই রাজনৈতিক হিংসা রুখতে এ বার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের দারস্থ হবেন বলে জানালেন ত্রিপুরার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার। রবিবার আগরতলায় একটি সাংবাদিক বৈঠকে তিনি জানান, দলীয় কর্মীদের উপর যেভাবে প্রতিনিয়ত হামলা চলছে, অত্যাচার করা হচ্ছে, তা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব ও রাজ্যপাল রমেশ বাইসকে জানানো হলেও তাঁরা কোনও আবেদনই শোনেননি।

বিধানসভার বিরোধী নেতা মানিক সরকার বলেন, “শাসক দল বিজেপি বিরোধীদের উপর যে অত্যাচার চলছে, তা রুখতে অক্ষম। পুলিশ ও প্রশাসন বর্তমানে শাসক দলের হাতের পুতুল হয়ে গিয়েছে। তাদের চোখের সামনে আইন ভাঙা হলেও কেবল নীরব দর্শকের ভূমিকাই পালন করেছেন তারা।”

তিনি জানান , সিপিএমের রাজ্য় কমিটির প্রতিনিধিরা মুখ্য়মন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব ও রাজ্যপাল রমেশ বাইসকে রাজ্যে ক্রমাগত চলা রাজনৈতিক হিংসার বিষয়ে জানাতে রাজভবনে গিয়েছিলেন। তখন তারা গোটা বিষয়ে পদক্ষেপ করা ও রাজনৈতিক হিংসা বন্ধ করার বিষয়ে আশ্বাস দিলেও বাস্তবে কোনও ফলই মেলেনি। ৩ মার্চের পর থেকে রাজ্যের বিরোধী নেতা-কর্মীদের বাড়িতে হামলা চালানোর কমপক্ষে ২০০টি ঘটনা ঘটেছে। রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করার পরও ৬০টিরও বেশি হামলার ঘটনা ঘটেছে।

বিজেপি সরকারের ব্যর্থতা তুলে ধরে মানিক সরকার বলেন, “বিগত দুই বছরে গণপিটুনি ও পুলিশি হেফাজতে মৃত্যুর ঘটনাও বেড়েছে। করোনা সংক্রমণ ও কার্ফুর মাঝেও সাধারণ মানুষ স্যানিটাইজ়ার, মাস্ক ও রেশন বিতরণে এগিয়ে এসেছিলেন। কিন্তু তাদেরও অনেককেই বিজেপির হিংসার শিকার হতে হয়েছে। যেহেতু মুখ্যমন্ত্রী ও রাজ্যপাল আমাদের কথা শুনছে না, তাই  এ বার প্রধানমন্ত্রী ও রাষ্ট্রপতির কাছেই আবেদন জানাব আমরা।”

আরও পড়ুন: বিমানঘাঁটিতে হামলা করেই ‘ভ্যানিশ’, কোত্থেকে এসেছিল ‘শক্তিশালী’ ড্রোন?

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla