Kolkata Municipal Election: ভোটের ফলপ্রকাশ সম্ভবত ২১ ডিসেম্বর, আজ থেকেই কলকাতাজুড়ে বলবৎ আদর্শ আচরণ বিধি

KMC: যদি কোনও পুনর্নিবাচন হয় তা হলে তা ২০ ডিসেম্বর হবে, জানালেন রাজ্য নির্বাচন কমিশনার

Kolkata Municipal Election:  ভোটের ফলপ্রকাশ সম্ভবত ২১ ডিসেম্বর,  আজ থেকেই কলকাতাজুড়ে বলবৎ আদর্শ আচরণ বিধি
সাংবাদিক বৈঠকে রাজ্য নির্বাচন কমিশনার সৌরভ দাস। নিজস্ব চিত্র।


কলকাতা: কলকাতায় পুরভোটের দামামা বেজে গিয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালেই রাজ্য নির্বাচন কমিশন বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানিয়ে দিয়েছে ভোট হবে ১৯ ডিসেম্বর। তবে ভোটের গণনা কবে তা নিয়ে এখনও ধোঁয়াশা রয়ে গিয়েছে। দুপুরেই রাজ্য নির্বাচন কমিশনার সৌরভ দাস সাংবাদিক সম্মেলন করে জানিয়েছেন ২১ ডিসেম্বর সম্ভবত গণনা হতে পারে। তবে ২২ ডিসেম্বরের মধ্যে গোটা ভোট প্রক্রিয়া শেষ করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। এদিকে ভোটের বিজ্ঞপ্তি জারির পর এদিন থেকেই কলকাতার ১৪৪টি ওয়ার্ডে জারি হয়ে গেল আদর্শ আচরণ বিধি।

রাজ্য নির্বাচন কমিশনার সৌরভ দাস বলেন, “যদি কোনও পুনর্নিবাচন হয় তা হলে তা ২০ ডিসেম্বর হবে। আমরা গোটা ভোট প্রক্রিয়া ২২ ডিসেম্বরের মধ্যেই শেষ করব। আমরা ভোট গণনার দিনও শুক্রবার কিংবা শনিবারের মধ্যে জানিয়ে দেব। কাল পরশুর মধ্যে বিজ্ঞপ্তিও জারি হয়ে যাবে।”

কলকাতা পুরনিগমের ১৪৪টি ওয়ার্ডের ভোটের জন্য বৃহস্পতিবার বিজ্ঞপ্তি জারি হয়েছে। ৪ হাজার ৭৪২টি মূল পোলিং বুথ রয়েছে। সঙ্গে রয়েছে ৩৮৫টি অক্সিলারি পোলিং বুথ। ৪০ লক্ষ ৪৮ হাজার ৩৫২ জন ভোটার রয়েছে। বৃহস্পতিবার থেকেই মনোনয়ন জমা দেওয়া শুরু হয়ে গেল বলে জানান রাজ্য নির্বাচন কমিশনার। মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন ১ ডিসেম্বর। স্ক্রুটিনি হবে ২ ডিসেম্বর। মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন ৪ ডিসেম্বর। যদিও এখনও কোনও রাজনৈতিক দলের তরফেই প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হয়নি।

সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার রাতে কিংবা শুক্রবার প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করতে পারে তৃণমূল কংগ্রেস। বৃহস্পতিবারই চারদিনের দিল্লি সফর সেরে কলকাতায় ফিরছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিনই রাজধানী থেকে ফিরছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ও। কালীঘাটে একটি বৈঠকেরও সম্ভাবনা রয়েছে এদিন। সেখানে প্রার্থী তালিকা প্রকাশ নিয়ে কোনও সিদ্ধান্ত হতে পারে বলেও মনে করা হচ্ছে।

ভোট গ্রহণের সময় সকাল ৭টা থেকে বিকেল ৫টা। সবরকম করোনা বিধি মেনেই এবারও ভোটগ্রহণ পর্ব চলবে বলে জানান রাজ্য নির্বাচন কমিশনার সৌরভ দাস। মনোনয়নপত্র জমা নেওয়া হবে সকাল ১১টা থেকে বেলা ৩টে পর্যন্ত। নিয়ম মেনেই রবিবার ও অন্যান্য সরকারি ছুটির দিন মনোনয়নপত্র গৃহীত হবে না। ইভিএমে হবে ভোট। ভোটে কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকবে কি না সে প্রসঙ্গে সৌরভ দাস জানান, ডিজির রিপোর্টের ভিত্তিতে এই সিদ্ধান্ত হয়। দু’ একদিনের মধ্যে সেই রিপোর্ট এসে যাবে। তারপরই পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

একই সঙ্গে সৌরভ দাস জানান, হাওড়ার পুরভোট নিয়ে এখনই তাঁরা কিছু জানাতে পারছেন না। কারণ, “নিয়মটা খুবই স্পষ্ট। নির্বাচন কমিশন রাজ্য সরকারের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে দিন ঘোষণা করে। রাজ্য সরকারকে আমাদের আগে জানাতে হবে। তার পর আমরা সহমত হতে পারি, আলোচনা করতে পারি, তারপর আমাদের বক্তব্য জানাতে পারি। হাওড়া নিয়ে আমাদের কাছে এখনও কোনও কমিউনিকেশন নেই।”

কোভিডের জন্য প্রচারবিধিতে কড়াকড়ি —

* সন্ধ্যা ৭টা থেকে সকাল ১০টা অবধি বড় মিটিং মিছিল করা যাবে না।

* সাইলেন্ট জ়োন হবে ভোট শুরুর ৭২ ঘণ্টা আগে থেকে।

* ছোট মিটিংয়ের উপর জোর দিতে হবে।

* বড় মিটিং হলে সে ক্ষেত্রে বড় জায়গায় করতে হবে।

* জেলাশাসক, পুলিশ নজর রাখবে।

* বাড়িতে গিয়ে প্রচারে একসঙ্গে পাঁচজন যাবেন।

* বাইক র‍্যালি কি না তা পরে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন: সাফল্যের নয়া উচ্চতায় যোগীরাজ্য, বিশ্বের চতুর্থ বৃহত্তম বিমানবন্দরের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

 

 

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla