Cholesterol Control: এই পদ্ধতিগুলো মেনে চললে প্রাথমিক পর্যায়েই কোলেস্টেরলকে নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব…

বয়সের সঙ্গে সঙ্গে আপনার শরীরে কোলেস্টেরলের মাত্রা বাড়ছে? চিন্তার কোনও কারণ এখনই নেই। প্রাথমিক পর্যায়েই কোলেস্টেরলকে নিয়ন্ত্রণে আনতে পারবেন আপনি। জানা নিন কীভাবে...

1/6
হালকা গরম জল পান করা: খাবার খাওয়ার ৩০ থেকে ৪৫ মিনিট পরে হালকা গরম জল খান। হালকা গরম জল খাবারের মধ্যেকার পুষ্টিগুলিকে সহজে হজম করতে সাহায্য করে। ফলে আপনি হালকা অনুভব করতে শুরু করেন।
হালকা গরম জল পান করা: খাবার খাওয়ার ৩০ থেকে ৪৫ মিনিট পরে হালকা গরম জল খান। হালকা গরম জল খাবারের মধ্যেকার পুষ্টিগুলিকে সহজে হজম করতে সাহায্য করে। ফলে আপনি হালকা অনুভব করতে শুরু করেন।
2/6
ডিটক্স জল খান: শরীরকে শান্ত করার সবচেয়ে ভাল উপায় হল লেবুর জল পান করা। এই ডিটক্স জল তৈলাক্ত খাবার খাওয়ার পর জমে থাকা টক্সিন বের করতে সাহায্য করে। এটি ওজন কমাতেও সাহায্য করে।
ডিটক্স জল খান: শরীরকে শান্ত করার সবচেয়ে ভাল উপায় হল লেবুর জল পান করা। এই ডিটক্স জল তৈলাক্ত খাবার খাওয়ার পর জমে থাকা টক্সিন বের করতে সাহায্য করে। এটি ওজন কমাতেও সাহায্য করে।
3/6
প্রতিদিন অল্প হাঁটুন: ভারী খাবার খাওয়ার পরে অন্তত ২০ মিনিট হাঁটলে তা হজমশক্তি উন্নত করতে সাহায্য করে। এটি পেটের স্বাস্থ্য বজায় রাখে এবং ওজন কমাতেও সাহায্য করে।
প্রতিদিন অল্প হাঁটুন: ভারী খাবার খাওয়ার পরে অন্তত ২০ মিনিট হাঁটলে তা হজমশক্তি উন্নত করতে সাহায্য করে। এটি পেটের স্বাস্থ্য বজায় রাখে এবং ওজন কমাতেও সাহায্য করে।
4/6
প্রোবায়োটিক খান: একটি ভারী খাবারের ২০ থেকে ২৫ মিনিট পরে আপনি কিছু প্রোবায়োটিক খেতে পারেন। প্রোবায়োটিকগুলি হজমের স্বাস্থ্য উন্নত করতে সাহায্য করে। এছাড়াও অন্ত্রকে বিভিন্ন রোগ থেকে সুরক্ষিত রাখে। সবচেয়ে কার্যকর প্রোবায়োটিক যা আপনি খেতে পারেন তা হল দই।
প্রোবায়োটিক খান: একটি ভারী খাবারের ২০ থেকে ২৫ মিনিট পরে আপনি কিছু প্রোবায়োটিক খেতে পারেন। প্রোবায়োটিকগুলি হজমের স্বাস্থ্য উন্নত করতে সাহায্য করে। এছাড়াও অন্ত্রকে বিভিন্ন রোগ থেকে সুরক্ষিত রাখে। সবচেয়ে কার্যকর প্রোবায়োটিক যা আপনি খেতে পারেন তা হল দই।
5/6
ফল খান: প্রত্যেক ৬০ মিনিটের ব্যবধানে সামান্য পরিমাণে হলেও ফাইবার সমৃদ্ধ ফল খেতে পারেন। এরা কোষ্ঠকাঠিন্য এড়াতে সাহায্য করে এবং পাচনতন্ত্রকেও শক্তিশালী করে।
ফল খান: প্রত্যেক ৬০ মিনিটের ব্যবধানে সামান্য পরিমাণে হলেও ফাইবার সমৃদ্ধ ফল খেতে পারেন। এরা কোষ্ঠকাঠিন্য এড়াতে সাহায্য করে এবং পাচনতন্ত্রকেও শক্তিশালী করে।
6/6
মিলের হিসেব রাখুন: পেট ভর্তি খাবার খাওয়ার পরে খেয়াল রাখুন যাতে আপনার পরবর্তী দুটো মিল খুব হালকা এবং সহজে হজম করার মতো হয়। শরীরকে হাইড্রেটেড রাখতে এবং ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার সহজে হজম করতে তরল খাবার খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়।
মিলের হিসেব রাখুন: পেট ভর্তি খাবার খাওয়ার পরে খেয়াল রাখুন যাতে আপনার পরবর্তী দুটো মিল খুব হালকা এবং সহজে হজম করার মতো হয়। শরীরকে হাইড্রেটেড রাখতে এবং ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার সহজে হজম করতে তরল খাবার খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়।

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla