Sawan Month 2021: শিবভক্ত হলে শ্রাবণ মাসে এই ৫ খাবার ভুলেও ছোঁবেন না!

পুরাণে আছে, সমুদ্রমন্থনের সময় উঠে আসা মারাত্মক বিষ নিজ কণ্ঠে ধারণ করেন। তারপর থেকেই মহাদিদেবের অপর নাম নীলকণ্ঠ। হিন্দু ধর্ম মতে, শ্রাবণ মাসে শিবের পুজো করলে পুণ্য লাভ হয়।

Sawan Month 2021: শিবভক্ত হলে শ্রাবণ মাসে এই ৫ খাবার ভুলেও ছোঁবেন না!
শিবভক্ত হলে শ্রাবণ মাসে এই ৫ খাবার ভুলেও ছোঁবেন না!

হিন্দু ক্যালেন্ডার অনুযায়ী শ্রাবণকে অত্যন্ত শুভ মাস হিসাবে বিবেচনা করা হয়। পবিত্র মাসটি শিবকে উত্সর্গ করা হয়। লোকেরা দেবতার উপাসনা করেন এবং তাঁর নিয়মিত প্রার্থনা করেন। শ্রাবণ শুরু হতেই গোটা মাস জুড়ে শিবের ভক্তরা উপবাস করেন এবং উপাসনা করেন। শ্রাবণ মাস ভগবান শিবের মাস। পুরাণে আছে, সমুদ্রমন্থনের সময় উঠে আসা মারাত্মক বিষ নিজ কণ্ঠে ধারণ করেন। তারপর থেকেই মহাদিদেবের অপর নাম নীলকণ্ঠ। হিন্দু ধর্ম মতে, শ্রাবণ মাসে শিবের পুজো করলে পুণ্য লাভ হয়। তাই শ্রাবণ মাসের প্রতি সোমবার শিবের উপাসনা করলে কৃপাদৃষ্টি পাওয়া যায়।তাই এই মাসে পাঁচটি খাবার একেবারেই ছুঁয়েও দেখবেন না। অন্যথা হলে সেই ব্য়ক্তির জীবনে ঘনিয়ে আসতে পারেন চরম দুর্দশা।

পুরাণ মতে, মহাদেবের একনিষ্ঠ ভক্ত মার্কণ্ড শিবলিঙ্গের সামনে কঠিন তপস্যা শুরু করেন। দীর্ঘ একমাস ধরে তিনি তপস্যা করলে সেই মাসকে শ্রাবণ মাস হিসেবে নির্ধারণ করা হয়। এই সময়ে কিছু খাবার এড়িয়ে চলাই ভাল। তবে এই ধর্মীয় আচার-অনুষ্ঠানের পিছনে রয়েছে কিছু বৈজ্ঞানিক কারণ। তবে যদি আপনি শিবভক্ত হোন, তাহলে এই খাবারগুলি ছুঁয়েও দেখবেন না…

১, শ্রাবণ মাসে বেগুন একেবারেই খাবেন না। কুসংস্কার ভাবলেও এর পিছনে রয়েছে বৈজ্ঞানিক ভিত্তি। কারণ বর্ষার সময় বেগুন দ্রুত নষ্ট হয়, পচে যায় ও পোকা ধরে। শিবভক্তরা তাই বেগুন এড়িয়ে চলুন।

২. শাস্ত্রমতে, কাঁচা দুধ পান করা শিবপুরাণ অনুযায়ী নিষিদ্ধ। এর কারণ হচ্ছে কাঁচা দুধ খেলে আমাদের দেহে পিত্তর রস বাড়ে যা বিপাকতন্ত্রকে ক্ষতি করে। দুধ খাওয়ার পরিবর্তে এই সময় দই বা ছানা জাতীয় খাবার বেছে নিতে পারেন।

৩. শিবপুরাণ অনুযায়ী, শ্রাবণ মাসে কাঁচা শাক-সবজি বা খাওয়া নিষিদ্ধ। শ্রাবণ মাস যেহেতু শিবকে উত্সর্গ করা হয়, তাই ভক্তদের সর্বদা শুভ ও খাঁটি খাবার খাওয়া উচিত। এছাড়া এই বর্ষার মরসুমে শাক-সবজিতে পোকামাকড়, জীবাণু বাসা বেঁধে থাকে। বর্ষাকালে শাকপাতার বিভিন্ন উপাদান অতিরিক্ত পিত্তরস নিঃসরণ করতে পারে।

৪. শ্রাবণ মাসে আমিষ আহার করা উচিত নয়। তবে যদি নিতান্তই খেতে হয়, প্রতি সোমবার নিরামিষ খান ও মহাদেবের পুজো করুন। অন্যান্য দিনগুলিতে আমিষ খেতে পারেন। বর্ষাকাল বংশবৃদ্ধি ও প্রজননের ঋতু। তাই হিন্দু ধর্ম অনুযায়ী, প্রজননকালে প্রাণিদের হত্যা করা হিন্দু সংস্কৃতিতে পাপ হিসেবে বিবেচিত হয়। আর এই সময় মাংস খেলে স্বাস্থ্যের ক্ষতিও হয়।

৫. শ্রাবণ মাসে শিবভক্তরা মদ ছুঁয়েও দেখেন না। যাঁরা শিবের পুজো করেন, তাঁরা বিশেষ করে মদ্যপান এড়িয়ে চলুন। কারণ মদ কারোর শরীর ও মনের মধ্যে নেতিবাচক শক্তি সঞ্চার করে। মদ্যপান করলে ব্যক্তির সংবেদনশীল হতে পারে না। কোনও পাপকাজে লিপ্ত হতে পারেন যে কোনও ব্যক্তিই।

আরও পড়ুন: রাখি বন্ধন কবে থেকে শুরু হল? এর নেপথ্যে পৌরাণিক ইতিহাস অনেকেরই অজানা!

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla