Lohri 2022: আগুন জ্বালিয়ে গান গেয়ে উদযাপিত হয় লোহরি! এই আগুনের গুরুত্ব সম্পর্কে জানা আছে?

এ বছর পঞ্জিকা অনুযায়ী ১৩ জানুয়ারি অর্থাৎ আজ রাতে লোহরি উদযাপিত হবে। এই দিন আগুন জ্বালানোর পর নতুন ফসলের পুজো করা হয় এবং গুড়, চীনাবাদাম, রেবদি, গজক, পপকর্ন ইত্যাদি নিবেদন করা হয়।

Lohri 2022: আগুন জ্বালিয়ে গান গেয়ে উদযাপিত হয় লোহরি! এই আগুনের গুরুত্ব সম্পর্কে জানা আছে?
লোহরি
TV9 Bangla Digital

| Edited By: megha

Jan 13, 2022 | 6:09 PM

লোহরি (Lohri 2022) একটি জনপ্রিয় শীতকালীন লোক-উৎসব। মূলত ভারতীয় উপমহাদেশে উদযাপিত হয়। লোহরি উৎসব সম্পর্কে একাধিক কিংবদন্তি ও তাৎপর্য রয়েছে এবং এগুলোর বেশিরভাগই উৎসবটিকে পাঞ্জাব অঞ্চলের সাথে সম্পৃক্ত বলে ইঙ্গিত করে। অনেকেই বিশ্বাস করে যে এই উৎসবটি দক্ষিণায়ণের শেষ সূচিত করে। অঞ্চল ভেদে উৎসবের নাম ভিন্ন হলেও উৎসবের চেতনা একই থাকে। এটি রবি শস্যের ফসল কাটার উৎসব হিসাবে বিবেচিত হয়। ভারতীয় উপমহাদেশের উত্তর অঞ্চলের হিন্দু ও শিখ ধর্মাবলম্বীরা লোহরিকে শীতের শেষ বলে চিহ্নিত করে। তারা এটিকে লম্বা দিনের আগমন এবং সূর্যের উত্তরায়ণকে স্বাগত জানানোর ঐতিহ্য বলে মনে করে। এটি চান্দ্র-সৌর বিক্রম সংবৎ (সৌর-চান্দ্র বিক্রমি বর্ষপঞ্জী) সৌর অংশ অনুযায়ী মকর বা পৌষ সংক্রান্তির আগের রাতে পালন করা হয়। এই উৎসব মাঘী নামেও পরিচিত এবং প্রতি বছর এটি প্রায় একই তারিখে পড়ে।

ভারতের পঞ্জাব, জম্মু ও কাশ্মীরের জম্মু অঞ্চল এবং হিমাচল প্রদেশে লোহরি একটি সরকারি ছুটির দিন হিসেবে স্বীকৃত। পঞ্জাবে, মকর সংক্রান্তি মাঘি নামে পরিচিত এবং এটি লোহরির আগে হয়। এই সমস্ত অঞ্চলের হিন্দু, শিখ এবং মুসলমানরা এই উৎসবটি পালন করে। পাকিস্তানের পঞ্জাবে এটি সরকারিভাবে পালন করা হয় না, তবে খ্রিস্টান, হিন্দু, শিখ এবং কিছু মুসলমানেরা পঞ্জাবের গ্রামাঞ্চলে এবং ফয়সালাবাদ ও লাহোর শহরে উৎসবটি পালন করে থাকেন। সৌর ক্যালেন্ডার অনুসারে নির্ধারিত ভারতীয় উত্সবগুলির মধ্যে একটি। গ্রেগরিয়ান ক্যালেন্ডার অনুসারে, এটি প্রতি বছর একই তারিখে পড়ে। এ বছর পঞ্জিকা অনুযায়ী ১৩ জানুয়ারি অর্থাৎ আজ রাতে লোহরি উদযাপিত হবে।

এই দিন আগুন জ্বালানোর পর নতুন ফসলের পুজো করা হয় এবং গুড়, চীনাবাদাম, রেবদি, গজক, পপকর্ন ইত্যাদি নিবেদন করা হয়। এরপরে, পরিবার এবং আশেপাশের লোকজনেরা একসঙ্গে আগুনকে প্রদক্ষিণ করেন এবং তাঁদের ঐতিহ্যবাহী গান গান, গিদ্দা ভাংড়া পরিবেশন করেন এবং এই দিনটি উদযাপন করেন। আজ সারাদেশে পালিত হচ্ছে লোহরি উৎসব, তাহলে জেনে নিন কেন এই উৎসবে আগুন জ্বালানো হয়।

‘লোহরি’ শব্দটি উৎসবের ঐতিহ্যকে বর্ণনা করে

লোহরি উৎসবের ঐতিহ্য বুঝতে হলে এর অর্থ বুঝতে হবে। এই শব্দটি তিনটি অক্ষর দিয়ে তৈরি। এতে ‘লো’ মানে কাঠ, ‘ওহ’ মানে গোহা অর্থাৎ শুকনো গোবর আর ‘ডি’ মানে রেবদি। এভাবেই লোহরি শব্দটি তৈরি হয়। তাই লোহরির দিনে গোবর ও কাঠের সাহায্যে আগুন জ্বালানো হয়। এই উৎসবে তিলের তৈরি খাবার, গুড়ের তৈরি গজক ইত্যাদি দিয়ে প্রসাদ হিসেবে বিতরণ করা হয়। অনেকের বিশ্বাস, লোহরির পর আবহাওয়ার শীতলতাও কমতে শুরু করে।

লোহরি উৎসব সম্পর্কে আরও বলা হয় যে এই উৎসব সূর্য দেবতা এবং অগ্নিকে উৎসর্গীকৃত। এমন পরিস্থিতিতে মানুষ নতুন ফসল উৎসর্গ করে অগ্নিদেবকে। শাস্ত্রে বলা হয়েছে যে সমস্ত দেব-দেবী কেবল অগ্নি দ্বারাই আনন্দ পান। এইভাবে নতুন ফসলের ভোগ সমস্ত দেবতাদের কাছে পৌঁছে যায়। এটা বিশ্বাস করা হয় যে অগ্নিদেব এবং সূর্যকে ফসল উৎসর্গ করার মাধ্যমে, তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করা হয় এবং আগামী দিনে তাদের ভাল ফসল, সুখ এবং সমৃদ্ধি কামনা করা হয়।

ধর্মীয় কাহিনী

লোকেরা লোহরিতে আগুন পোড়ানোর প্রথাকে ভগবান শিবের স্ত্রী সতীর সঙ্গে যুক্ত করে। সতীর পিতা রাজা দক্ষিণ তাঁর বাড়িতে যজ্ঞের অনুষ্ঠান করেছিলেন এবং এতে সমস্ত দেব-দেবীকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন, কিন্তু শিব ও মাতা সতীকে ডাকেননি। এতে মা সতী অপমানিত বোধ করেন এবং উত্তর পেতে পিতার কাছে যান। এরপর রাজা দক্ষিণ তাঁর এবং মহাদেবের অনেক নিন্দা করেন। আহত হয়ে সতী অগ্নিকুণ্ডে বসে দেহ ত্যাগ করেন। কথিত আছে, মা সতীর এই আত্মত্যাগকে স্মরণ করে লোহরির সন্ধ্যায় আগুন জ্বালানো হয়।

Disclaimer: এখানে প্রদত্ত তথ্য ধর্মীয় বিশ্বাস ও লোকবিশ্বাসের উপর ভিত্তি করে, এর কোনও বৈজ্ঞানিক প্রমাণ নেই।

আরও পড়ুন: আপনি কি সদ্য বিবাহিতা! তাহলে প্রথম লোহরি মিস করবেন না, রইল হিন্দুদের এই বিশাল উত্‍সবের গুরুত্ব

Follow us on

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla