Pakistan Cricket: ক্রিকেট দুনিয়ার কাছে ক্রমশ ‘নিষিদ্ধ দেশ’ হয়ে পড়ছে পাকিস্তান

নিউজিল্যান্ডের পর ইংল্যান্ডেরও পাক সফর থেকে সরে দাঁড়ানোর পর একটা মহল তাই বলছে। আর এতে পাক ক্রিকেট আরও জৌলুস হারাচ্ছে। যে দিকে গড়াচ্ছে পরিস্থিতি, তাতে পাকিস্তানকে 'নিষিদ্ধ দেশ' হিসেবে ধরে নিচ্ছে ক্রিকেটমহল।

Pakistan Cricket: ক্রিকেট দুনিয়ার কাছে ক্রমশ 'নিষিদ্ধ দেশ' হয়ে পড়ছে পাকিস্তান
Pakistan Cricket: ক্রিকেট দুনিয়ার কাছে ক্রমশ 'নিষিদ্ধ দেশ' হয়ে পড়ছে পাকিস্তান (সৌজন্যে-টুইটার)

করাচি: রাজনৈতিক পরিস্থিতি, তালিবানি সংযোগই কি ক্রিকেট দুনিয়ায় ক্রমশ কোণঠাসা করে ফেলছে পাকিস্তানকে (Pakistan)? নিউজিল্যান্ডের পর ইংল্যান্ডেরও পাক সফর থেকে সরে দাঁড়ানোর পর একটা মহল তাই বলছে। আর এতে পাক ক্রিকেট আরও জৌলুস হারাচ্ছে। যে দিকে গড়াচ্ছে পরিস্থিতি, তাতে পাকিস্তানকে ‘নিষিদ্ধ দেশ’ হিসেবে ধরে নিচ্ছে ক্রিকেটমহল।

ওয়ান ডে সিরিজ শুরুর কয়েক ঘণ্টা আগে নিউজিল্যান্ড পাক সফর বাতিল করেছিল। নিরাপত্তাজনিত কারণ তুলে ধরা হয়েছিল। নিউজিল্যান্ডের কয়েক জন প্লেয়ারকে প্রাণহানীর হুমকি দেওয়া হয়। কিন্তু এ সবই বেসরকারি গল্প। নিউজিল্যান্ড সরকারের তরফে এ নিয়ে কোনও ব্যাখ্যাই দেওয়া হয়নি। পাকিস্তান দাবি তুলেছে, প্রাণহানীর যে ফোন এসেছিল কিউয়ি ক্রিকেটারদের কাছে, তা আসলে ভিত্তিহীন। আর তাতেই সফর বাতিল করার সিদ্ধান্ত নেয় নিউজিল্যান্ড। ইংল্যান্ডও সেই পথেই হেঁটেছে।

দাবি যাই করা হোক না কেন, পাকিস্তান কিন্তু ক্রিকেটের জন্য নিরাপদ নয়। ২০০৯ সালে পাক সফরের সময় শ্রীলঙ্কা টিমের উপর জঙ্গিহানা হয়েছিল। কয়েক জন ক্রিকেটার তাতে আহতও হন। ওই ঘটনা ক্রিকেটের কালোদিন হয়ে রয়েছে। ঘটনা হল, ২০০৯ সালের পর পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সিরিজে আপত্তি জানায়নি কোনও দেশই। তবে, নিরপেক্ষ দেশে খেলতে হয়েছে তাদের। সেই পথেই আবার হাঁটতে হবে পাকিস্তানকে।

কেন এই পরিস্থিতি? রাজনৈতিক অস্থিরতা ও তালিবানি সংযোগকেই দায়ী করছেন অনেকে। পাকিস্তানে কখনওই রাজনৈতিক স্থিরতা আসেনি। সেনা দখলে দীর্ঘ থাকা ওই দেশের প্রধানমন্ত্রী এখন ইমরান খান। ১৯৯২ সালে বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক দেশের পরিস্থিতি পাল্টাতে পারেননি। বরং জঙ্গি মদত, দেশের নানা কোণে ঘনঘন বিস্ফোরণ হয়েই চলেছে। পাকিস্তানকে এড়িয়ে যাওয়ার সাম্প্রতিক কারণ তালিবান প্রীতি। আফগানিস্তান তালিবান সরকার গঠনের সময় পাকিস্তান যথেষ্ট মদত দিয়েছে। আন্তর্জাতিক রাজনীতিতে যা কিছুটা হলেও প্রভাব ফেলেছে। তারই জেরে একের পর এক টিম পাক সফর বাতিল করছে বলে মত দিচ্ছে বিশেষজ্ঞমহল।

ঘটনা যাই হোক না কেন, পাকিস্তানের ক্রিকেট চরম দুর্ভোগের মুখে পড়েছে, তা নিয়ে সন্দেহ নেই। ক্রিকেট প্রেমী দেশ হিসেবে পরিচিত দেশের অনেকেই যা মেনে নিতে পারছেন না। ইসলামাবাদে একটি ক্লাবের কর্তা নবাব আহমেদ আলম বলেছেন, ‘নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে সাদা বলের সিরিজ নিয়ে আমরা খুব রোমাঞ্চিত ছিলাম। এমনকি স্টেডিয়ামে বসেই ম্যাচ দেখার পরিকল্পনা সেরে ফেলেছিলাম। নিউজিল্যান্ড সফর বাতিল করায় আমাদের মনে হচ্ছে, আবার ১০ বছর পিছিয়ে গেল পাকিস্তান ক্রিকেট।’

পাকিস্তানের জঙ্গি সংগঠনগুলো বিশেষ করে পাকিস্তানি তালিবান একটা সময় আতঙ্কের পরিস্থিতি তৈকি করেছিল সারা দেশে। তারা আবার মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে। শুধু আগস্ট মাসেই ৩২টা জায়গায় হানা দিয়েছে তারা। আফগানিস্তানের তালিবান ফিরে আসায় পাকিস্তানি তালিবান সংগঠনকে দমিয়ে রাখার মতো পরিস্থিতিতে নেই ইমরান সরকার। তবু পাকিস্তান সরকার নিউজিল্যান্ড-ইংল্যান্ডের সফর বাতিল মেনে নিতে পারছে না। তথ্য সম্প্রচারকারী মন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরি বলেছেন, ‘আন্তর্জাতিক লবি পাকিস্তানের বিরুদ্ধে কাজ করছে। যারা আমাদের মাথা নত করার চেষ্টা করছে, তারা কখনও সফল হবে না।’

রাজনীতি ও জঙ্গি বিধ্বস্ত পাকিস্তান আরও একবার ক্রিকেট দুনিয়ার কাছে নিষিদ্ধ দেশ হয়ে যাচ্ছে। রামিজ রাজারা (Ramiz Raja) যতই চেষ্টা করুন, এই ছবি এখনই পাল্টানো সম্ভব নয়।

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla