Tokyo Paralympics 2021: ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই কেড়ে নেওয়া হল বিনোদের পদক

৪১ বছর বয়সী বিনোদ এই প্রথমবার প্যারালিম্পিকে অংশ নিয়েছিলেন। সেখানে নতুন এশিয়ান রেকর্ড (Asian Record) গড়ার পাশাপাশি প্যারালিম্পিকের মঞ্চে ১৯.৯১ মিটার ছুড়ে তাঁর কপালে জুটেছিল পদকও। কিন্তু পদকের স্বাদ দীর্ঘস্থায়ী হল না।

Tokyo Paralympics 2021: ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই কেড়ে নেওয়া হল বিনোদের পদক
Tokyo Paralympics 2021: ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই কেড়ে নেওয়া হল বিনোদের পদক

টোকিও: প্যারালিম্পিকে (Paralympics) পদক জয়ের ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই বিনোদ কুমারের (Vinod Kumar) পদক কেড়ে নেওয়া হল। টোকিও প্যারালিম্পিকে (Tokyo Paralympics) রবিবার পুরুষদের ডিসকাস থ্রোয়ের (discus throw) এফ-৫২ বিভাগে তৃতীয় হয়ে ব্রোঞ্চ অর্জন করেছিলেন ভারতের ডিসকাস থ্রোয়ার বিনোদ কুমার (Vinod Kumar)। কিন্তু আজ, সোমবার প্যারালিম্পিক আয়োজক কমিটির তরফ থেকে জানিয়ে দেওয়া হল, শারীরিক সক্ষমতার নিরিখে তিনি এফ-৫২ বিভাগের আওতায় পড়ছেন না। যার ফলেই বিনোদের ব্রোঞ্চ কেড়ে নেওয়া হল।

৪১ বছর বয়সী বিনোদ এই প্রথমবার প্যারালিম্পিকে অংশ নিয়েছিলেন। সেখানে নতুন এশিয়ান রেকর্ড (Asian Record) গড়ার পাশাপাশি প্যারালিম্পিকের মঞ্চে ১৯.৯১ মিটার ছুড়ে তাঁর কপালে জুটেছিল পদকও। কিন্তু পদকের স্বাদ দীর্ঘস্থায়ী হল না। প্যারালিম্পিকে প্রতিবন্ধকতার বিভিন্ন বিভাগ থাকে। বিনোদ ব্রোঞ্চ পাওয়ার পর অনেক দেশের তরফ থেকে দাবি করা হয়, যে বিভাগে (এফ-৫২ বিভাগ) তৃতীয় হয়ে পদক পেয়েছেন বিনোদ, তিনি সেই বিভাগের উপযুক্ত অ্যাথলিট নন। তাই তিনি পদক পাওয়ার উপযুক্তও নয়। এই সকল অভিযোগের ভিত্তিতে পুনরায় বিবেচনা করে আয়োজক সংস্থা। তারপর আজ, সোমবার জানানো হয়, “এফ-৫২ বিভাগের যোগ্যতার সঙ্গে বিনোদ কুমারের মিল না হওয়ায় সিদ্ধান্তে বদল করতে হচ্ছে। বিনোদ কুমার পুরুষদের ডিসকাস থ্রো-য়ের এফ-৫২ বিভাগের জন্য অনুপযুক্ত। যার ফলে সেই প্রতিযোগিতার ফলাফল বাতিল করা হল।”

তবে এই ফলাফল নিয়ে কিন্তু প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই। ভারতের শেফ দ্য মিশন গুরশরণ সিং এ বিষয়ে বলেছেন, “এখানে বিনোদ কুমারের পদক পাওয়ার ব্যাপারে এক বা একের বেশি প্রতিবাদ জমা পড়েছিল সেটা হতেই পারে। সেই সংখ্যাটা জানা না গেলেও তাঁর পদক কেড়ে নেওয়ার ঘটনাটা কাম্য নয়।” এই পরিস্থিতিতে বিশেষজ্ঞমহল থেকেও বড়সড় প্রশ্ন উঠছে, বিনোদ যদি এফ-৫২ বিভাগের জন্য উপযুক্তই না ছিলেন, তা হলে তিনি কীভাবে ওই প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছিলেন? প্যারা অ্যাথলিটদের প্রতিবন্ধকতার ধরণের ওপর নির্ভর করে তাঁদের বিভিন্ন শ্রেনীতে ভাগ করা হয়। উল্লেখ্য, ২২ অগস্ট বিনোদের শ্রেনীবিভাগ সম্পন্ন হয়েছিল।

এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে ভারতের (India) পক্ষ থেকে প্যারালিম্পিক আয়োজক কমিটির কাছে এখন প্রশ্ন উঠতে পারে, সব দিক বিবেচনা না করেই কী তবে বিনোদকে টোকিও প্যারালিম্পিকে নামার ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছিল? আর যদি সেটা না হয়ে থাকে, তা হলে তাঁকে এফ-৫২ বিভাগের ইভেন্টে নামার আগেই কেন নিষেধ করা হয়নি? সব মিলিয়ে ভারতের ঝুলি থেকে একটি পদক কমে গেলেও, ক্রমশ জট বাড়ছে বিনোদের ব্রোঞ্চ পদক কেড়ে নেওয়া নিয়ে।

আরও পড়ুন: Tokyo Olympics 2020: নীরজ আলোয় কেন ঢাকা পড়বেন দেবেন্দ্র ঝাঝারিয়া?

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla