‘মাষ্টারমশাই নেই!’ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত রাজ্যের প্রাক্তন উচ্চ শিক্ষামন্ত্রী

Sudarshan Roy Chowdhury: বামশিবির সূত্রে খবর, বেশ কিছুদিন ধরে বার্ধক্যজনিত অসুখে ভুগছিলেন অধ্যাপক।  সম্প্রতি, শারীরিক অবস্থার অবনিতি হওয়ায় তাঁকে উত্তরপাড়ার বেসরকারি একটি নার্সিংহোমে ভর্তি করা হয়।

'মাষ্টারমশাই নেই!' হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত রাজ্যের প্রাক্তন উচ্চ শিক্ষামন্ত্রী
প্রয়াত রাজ্য়ের প্রাক্তন মন্ত্রী, নিজস্ব চিত্র

হুগলি: হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত রাজ্যের প্রাক্তন উচ্চ শিক্ষা মন্ত্রী তথা সিপিআইএম নেতা সুদর্শন রায়চৌধুরী। বেশ কিছুদিন ধরেই বার্ধক্যজনিত অসুখে ভুগছিলেন ‘মাষ্টারমশাই’। শুক্রবার রাত থেকেই অসুস্থতা বাড়তে শুরু করে সুদর্শনবাবুর। শনিবার তাঁকে, উত্তরপাড়ার একটি বেসরকারি নার্সিংহোমে ভর্তি করা হয়। সেখানেই এদিন রাত ৮.২০ নাগাদ মৃত্য়ু হয় রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রীর এমনটাই জানিয়েছেন চিকিত্‍সক কৌশিক মুন্সি।

বামশিবির সূত্রে খবর, বেশ কিছুদিন ধরে বার্ধক্যজনিত অসুখে ভুগছিলেন অধ্যাপক।  সম্প্রতি, শারীরিক অবস্থার অবনিতি হওয়ায় তাঁকে উত্তরপাড়ার বেসরকারি একটি নার্সিংহোমে ভর্তি করা হয়। শনিবার সারাদিন নার্সিংহোমেই ছিলেন তিনি। হাসপাতাল সূত্রে খবর, সুদর্শনবাবুর শরীরে সোডিয়াম পটাশিয়ামের মাত্রা কমে যায়। এদিন আচমকা হৃদরোগে আক্রান্ত হলে তাঁকে আইসিউতে ভর্তি করা হয়। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। বামশিবির সূত্রে খবর, রাত ৯টা ২০ মিনিটে মৃত্যু হয় বর্ষীয়ান বামনেতার।

রাজনৈতিক নেতৃত্ব হিসেবে কেবল নয়, অধ্যাপক হিসেবেও সুপরিচিত ছিলেন সুদর্শন। জেলায় তাঁকে ‘মাষ্টারমশাই’ বলেই ডাকা হত। প্রাক্তন উচ্চ শিক্ষা মন্ত্রী সুদর্শন বাবু বর্তমানে সিপিআইএম রাজ্য কমিটির সদস্য ছিলেন। ষাটের দশকে প্রেসিডেন্সিতে পড়ার সময় থেকে বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য,বিমান বোস,হান্নান মোল্লা,বৃন্দা কারাতদের সঙ্গে বামরাজনীতিতে যুক্ত হন। বিনোদ দাশের মৃত্যুর পর ২০১২ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত হুগলি জেলা সম্পাদকের দায়িত্ব সামলেছেন সুদর্শন। শ্রীরামপুর কলেজের প্রাক্তন অধ্যাপক সুদর্শনবাবু জাঙ্গীপাড়া থেকে ২০০৬ সালে বিধায়ক নির্বাচিত হয়ে উচ্চশিক্ষা মন্ত্রী হন। তার আগে দুই বার শ্রীরামপুর থেকে সাংসদ নির্বাচিত হয়েছিলেন। তাঁর মৃত্যুতে শোকার্ত রাজনৈতিক মহল। বাম শিবিরের পক্ষ থেকে টুইট করে তাঁদের ‘কমরেড’-কে শেষ শ্রদ্ধাও জানিয়েছেন নেতৃত্বরা।

‘মাষ্টারমশাই’-কে শেষ শ্রদ্ধা জানিয়েছেন বাম-কর্মী সমর্থকেরাও। সোশ্যাল মিডিয়ায় ইতিমধ্যেই ছড়িয়েছে এই শোকবার্তা। আরও পড়ুন: ‘গ্যাঁটের কড়ি খরচা করে জেতালাম, বিধায়কদের পাত্তা নেই’, ক্ষোভ তৃণমূল সংখ্যালঘু সেলের

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla