Bikaner-Guwahati Express Train Accident: ট্র্যাকেই গোলমাল? রেললাইনে ট্রলি চালিয়ে পরিদর্শন রেলকর্তাদের

Maynaguri Rail Accident: শুক্রবার সকালে ঘটনাস্থলে যান, রেলদফতরের কর্তারা। উপস্থিত ছিলেন বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর অধিকর্তারাও। যে লাইনে দুর্ঘটনা ঘটে সেখানে কোনও ফাটল ছিল কি না, বা ট্র্য়াকের গোলমাল  কি না তা খতিয়ে দেখা হয়।

Bikaner-Guwahati Express Train Accident: ট্র্যাকেই গোলমাল? রেললাইনে ট্রলি চালিয়ে পরিদর্শন রেলকর্তাদের
রেল ট্র্যাক পরীক্ষা, নিজস্ব চিত্র

জলপাইগুড়ি: রেল দুর্ঘটনার নেপথ্যে কী ট্র্য়াকের গোলমাল না রেলের? সবটাই তদন্তসাপেক্ষ। কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণ এসে পৌঁছনোর আগেই ময়নাগুড়ির ওই দুর্ঘটনাগ্রস্ত লাইনে (Maynaguri Rail Accident) একটি ট্রলি চালিয়ে পরীক্ষা করা শুরু করলেন রেলদফতরের কর্তারা।

শুক্রবার সকালে ঘটনাস্থলে যান, রেলদফতরের কর্তারা। উপস্থিত ছিলেন বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর অধিকর্তারাও। যে লাইনে দুর্ঘটনা ঘটে সেখানে কোনও ফাটল ছিল কি না, বা ট্র্য়াকের গোলমাল  কি না তা খতিয়ে দেখা হয়। রেলমন্ত্রী আসার পরে ট্রলিতে চড়ে তিনিও গোটা লাইনে নজরদারি চালান। পরে রেলমন্ত্রী বৈষ্ণ জানান, ট্র্য়াক বা কোচের কোনও সমস্যা নেই, আচমকা যান্ত্রিক ত্রুটির জেরেই এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। এদিকে, রেল মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, কমিশনার অফ রেলওয়ে সেফটি গোটা ঘটনাটির তদন্ত করে দেখবে। ২৩১৪ কিলোমিটারের পথে কেন এই দুর্ঘটনা হল, তা খতিয়ে দেখা হবে।

দুর্ঘটনাগ্রস্ত বিকানের গুয়াহাটি এক্সপ্রেসের ইঞ্জিনের নিচে থাকা ট্রাকশন মোটর রেললাইনের উপরে পড়ে যাওয়া কি এই দুর্ঘটনার বড় কারণ? তাই নিয়ে এখন প্রশ্ন উঠেছে। আধিকারিকরা কিছু না বললেও রেললাইনের উপর পড়ে যাওয়া ট্রাকশন মোটরের স্থানটি বার বার ঘুরে দেখছেন তাঁরা। তদন্তেও এই বিষয়টিতে জোর দেওয়া হচ্ছে বলে সূত্রের খবর। কী কারণে এই রেল দুর্ঘটনা ঘটল? রেলওয়ে লাইন থেকে ১২টি কামরা কীভাবে উল্টে পড়ে গেল? এই সমস্ত নিয়ে তদন্ত হবে রেলওয়ে সেফটি কমিশনারের নেতৃত্বে।

বৃহস্পতিবার। বিকেল ৪টে ৫৩। দোমহানি স্টেশন ছাড়ে আপ বিকানের এক্সপ্রেস। ৪টে ৫৮ দুর্ঘটনা। আচমকাই ব্রেক কষে থমকে যায় ট্রেন। সে সময় ট্রেনের গতি ছিল ঘণ্টায় ৪০ কিলোমিটার। লাইনচ্যুত হয়ে ছিটকে যায় ট্রেনের বগিগুলি। স্থানীয় বাসিন্দা ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রেলের কামরাগুলি একটি আরেকটির উপর উঠে পড়ে, যেন খেলনা গাড়ি! দুর্ঘটনায় বেঁকেচুরে যায় প্রায় ১২ টি কামরা। গুরুতর জখম হন ৪২ জন। শেষ পাওয়া খবর পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৯ জন যাত্রীর। আহতদের জলপাইগুড়ি সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বিকানের-গুয়াহাটি এক্সপ্রেসটিতে ছিলেন অসমের বহু বাসিন্দাও। রেল দুর্ঘটনায়, উদ্ধারকাজে তত্পরতা প্রকাশ এবং দুর্ঘটনার কবলে পড়া মানুষদের সাহায্য করায় বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানালেন অসমের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা। গতাকলই টুইট করে হিমন্ত বিশ্ব শর্মা জানান যে এই বিষয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে তাঁর কথা হয়েছে।

টুইটে হেমন্ত লিখেছেন, “বিকানের-গুয়াহাটি এক্সপ্রেসের দুর্ঘটনা নিয়ে জানতে আমি পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ফোন করে কথা বলি। তিনি সমস্ত রকমের সাহায্য প্রদানের আশ্বাস দিয়েছেন আমাকে। পরিস্থিতি সম্পর্কে আমাদের জানাতে থাকবেন বলেও কথা দিয়েছেন তিনি। ক্ষতিগ্রস্থদের জন্য তাঁর সমস্ত সহায়তার জন্য আমি তাঁকে ধন্যবাদ জানাতে চাই।”

এদিকে, রেল দুর্ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। টুইট করে শোকপ্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও। কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে মৃতদের পরিবারকে ৫ লক্ষ, গুরুতর জখমদের ১ লক্ষ ও সামান্য আহতদের ২৫ হাজার টাকা অর্থসাহায্য দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে।

আরও পড়ুন: ‘যান্ত্রিক ত্রুটির কারণেই দুর্ঘটনা, কোচের কোনও সমস্যা নয়’

Published On - 10:17 am, Fri, 14 January 22

Related News

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla