ইসকনের পাশেই দীক্ষিতের গুলিবিদ্ধ দেহ উদ্ধার

পরিবারের সদস্যদেরও জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এর পিছনে ব্যবসায়ীক কোনও কারণ রয়েছে কিনা, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

ইসকনের পাশেই দীক্ষিতের গুলিবিদ্ধ দেহ উদ্ধার
নিজস্ব চিত্র

নদিয়া: ইসকনের (Iskon) দীক্ষিতের গুলিবিদ্ধ দেহ উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল। নবদ্বীপের (Nadia) মায়াপুর সংলগ্ন গৌরনগর গ্রামের ঘটনা। মৃত ব্যক্তির নাম রসিক শেখর দাস (৪০)।

ইসকন সূত্রের খবর, রসিক শেখর দীক্ষা নিলেও বাইরেই সংসার নিয়ে থাকতেন। ঘি-এর ব্যবসা করে সংসার চালাতেন তিনি। পরিবারের দাবি, সোমবার রাতে কাজ সেরে বাড়ি ফিরে আসেন তিনি। খাওয়ার পর ঘরেই ছিলেন। একটি ফোন আসায় তিনি বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান।

পরিবারের দাবি, রসিক বাড়িতে জানিয়ে যান তিনি অফিসে যাচ্ছেন। রাতে আর বাড়ি ফিরে আসেননি। মঙ্গলবার সকালে অফিস থেকেই রসিকের গুলিবিদ্ধ দেহ উদ্ধার হয়। তাঁর শরীরে চারটি গুলি লেগেছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। খুনের পিছনে কী কারণ থাকতে পারে, তা স্পষ্ট নয়।

আরও পড়ুন: কয়লাকাণ্ড: ‘লালার কীর্তি’ জানতে আজও খনিতে অভিযান সিবিআইয়ের, সঙ্গী খনি বিশেষজ্ঞ

পুলিশ অফিসের সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখছে। সেখানে দু’জনকে দেখা গেলেও, তদন্তের খাতিরে এখনই কারোর নাম স্পষ্ট করছে না পুলিশ। পরিবারের সদস্যদেরও জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এর পিছনে ব্যবসায়ীক কোনও কারণ রয়েছে কিনা, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।