West Bengal Protest: ‘কেন বিভক্ত করা হচ্ছে?’, জেলায় জেলায় বিক্ষোভ

West Bengal: আর জেলা বিভক্ত হওয়ার ঘোষণার পরই বিভিন্ন জায়গা থেকে উঠে এসেছে বিক্ষোভের ছবি। বাঁকুড়া, নদিয়া কিংবা মুর্শিদাবাদ প্রতিটি জেলার চিত্রটা প্রায় এক।

West Bengal Protest: 'কেন বিভক্ত করা হচ্ছে?', জেলায় জেলায় বিক্ষোভ
জেলায়-জেলায় বিক্ষোভ (নিজস্ব ছবি)
TV9 Bangla Digital

| Edited By: অবন্তিকা প্রামাণিক

Aug 02, 2022 | 7:13 PM

কলকাতা: নিয়োগ কেলেঙ্কারিতে প্রাক্তন মন্ত্রীর নাম জড়ানোর ঘটনায় এখন থিতু হয়নি রাজ্যের উত্তাল পরিস্থিতি। এই সবের মধ্যে সোমবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যে সাতটি নতুন জেলা তৈরির কথা ঘোষণা করেছেন। সেই তালিকায় রয়েছে, সুন্দরবন, ইছামতি, বসিরহাট, বিষ্ণুপুর, কান্দি, বহরমপুর এবং রানাঘাট। আর জেলা বিভক্ত হওয়ার ঘোষণার পরই বিভিন্ন জায়গা থেকে উঠে এসেছে বিক্ষোভের ছবি। বাঁকুড়া, নদিয়া কিংবা মুর্শিদাবাদ প্রতিটি জেলার চিত্রটা প্রায় এক।

মুর্শিদাবাদ

গতকাল মুর্শিদাবাদকে ভেঙে কান্দি, বহরমপুর দু’টি আলাদা জেলার নাম ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী। এই খবর প্রকাশ্যে আসতেই ময়দানে নামে বিজেপি।মুর্শিদাবাদ জেলাকে অবিভক্ত রেখে কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলের দাবি তোলেন বিজেপির রাজ্য সম্পাদক তথা মুর্শিদাবাদের বিধায়ক গৌরী শংকর ঘোষ। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে উদ্দেশ্য করে তিনি সামাজিক মাধ্যমে লেখেন যে, জেলা ভেঙে যদি ইতিহাস ভোলানোর চেষ্টা করেন তাহলে আমি কেন্দ্র সরকারের কাছে আবেদন জানাচ্ছি মুর্শিদাবাদ তাদের অধীনে রেখে পূর্ণাঙ্গ কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল গড়ে তোলার।

নদিয়া

শুধু মুর্শিদাবাদ নয়, মঙ্গলবার সকাল থেকে জেলা ভাঙার জন্য বিক্ষোভে সামিল হন সাধারণ মানুষ। সোশ্যাল মিডিয়ায় ওঠে প্রতিবাদের ঝড় ওঠে। তাঁদের দাবি, নদিয়া তাঁদের জন্মগত ঠিকানা। সেখান থেকে কেন মুছে দেওয়া হচ্ছে নদিয়ার নাম। এই জেলা হল মহাপ্রভু শ্রী চৈতন্যদেব, বিজয় কৃষ্ণ গোস্বামী, ও অদ্বৈত আচার্যের মতো একাধিক মহাপুরুষের নাম। সেই ‘নদের নিমাইকে’ কেন বিভক্ত করা হচ্ছে? এই প্রশ্ন তুলে বিক্ষোভে সামিল হন তাঁরা।

এরপর মঙ্গলবার সকাল থেকেই শান্তিপুরে নেতাজির পাদদেশে রাস্তায় নেমে শুরু হয়। ‘নদীয়া দক্ষিণ’ করা হোক দাবি তোলের বিক্ষোভকারীরা। তবুও নদিয়া নামটা জুড়ে থাক।

বাঁকুড়া

একই অবস্থা বাঁকুড়ারও। গতকাল রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বাঁকুড়া জেলাকে ভেঙে নতুন বিষ্ণুপুর জেলা গঠনের কথা ঘোষণা করেছেন। এতে বিষ্ণুপুর শহর সহ একাংশ উল্লসিত হলেও বাঁকুড়া জেলার বিস্তীর্ণ অংশের মানুষ যথেষ্ট ক্ষুব্ধ। মুখ্যমন্ত্রীর এই সিদ্ধান্তের কড়া সমালোচনা করে সামাজিক মাধ্যমে রীতিমত তোলপাড় শুরু হয়েছে। জেলা ভাগ ঠেকাতে প্রয়োজনে আন্দোলনে নামার হুঁশিয়ারিও দিয়েছে একাধিক সংগঠন।

এই খবরটিও পড়ুন

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla