ফাইজ়ারের টিকা নিয়েই অল্পবয়সীদের মধ্যে দেখা দিচ্ছে হৃৎযন্ত্রে প্রদাহ, দাবি ইজরায়েলের স্বাস্থ্যমন্ত্রকের

এর আগে গত মাসে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সিডিসি-র তরফেও মায়োকার্ডিটিস ও এমআরএনএ ভ্যাকসিনের মধ্যে যোগসূত্র নিয়ে বিস্তারিত গবেষণা প্রয়োজন বলে জানানো হয়।

ফাইজ়ারের টিকা নিয়েই অল্পবয়সীদের মধ্যে দেখা দিচ্ছে হৃৎযন্ত্রে প্রদাহ, দাবি ইজরায়েলের স্বাস্থ্যমন্ত্রকের
ফাইল ছবি
ঈপ্সা চ্যাটার্জী

|

Jun 02, 2021 | 10:26 AM

জেরুজালেম: ফাইজ়ারের টিকা নেওয়া পরই কিছু সংখ্যক মানুষের দেহে দেখা যাচ্ছে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া। এর মধ্যে অধিকাংশই আবার অল্পবয়সী, মঙ্গলবার এমনটাই ইজরায়েলের স্বাস্থ্য মন্ত্রক।

গত বছরের শেষভাগ থেকেই ইজরায়েলে টিকাকরণ শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়, ২০২০ সালের ডিসেম্বর থেকে চলতি বছরের মে মাসের মধ্যে মোট ২৭৫ জনের হৃৎযন্ত্রে প্রদাহের সৃষ্টি হয়েছে, যা মায়োকার্ডিটিস নামে পরিচিত। এগুলি করোনা টিকা নেওয়ার সঙ্গেই সম্পর্কিত বলে মনে করা হচ্ছে। তবে ৯৫ শতাংশের ক্ষেত্রেই তা স্বল্প প্রদাহ বলে ধরা হয়েছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তরফে জানানো হয়, তিন বিশেষজ্ঞের একটি দল গবেষণা করে জানিয়েছে যে, টিকাপ্রাপ্ত ৫০ লক্ষ মানুষের মধ্যে ২৭৫ জনের দেহে মায়োকার্ডিটিস দেখা গিয়েছে। তবে যে সংখ্যক মানুষের মধ্যে টিকা নেওয়ার পর প্রদাহ দেখা দিয়েছে, তাঁদের অধিকাংশকেই চারদিনের বেশি হাসপাতালে কাটাতে হয়নি এবং ৯৫ শতাংশ কেসেই অতি স্বল্প প্রদাহ দেখা দিয়েছে।

গবেষণায় জানা গিয়েছে, ফাইজ়ারের করোনা টিকার দ্বিতীয় ডোজ় নেওয়ার সঙ্গে ১৬ থেকে ৩০ বছর বয়সীদের মধ্যে মায়োকার্ডিটিসের সংযোগ থাকতে পারে। এদের মধ্যে মূলত ১৬ থেকে ১৯ বছর বয়সীদের মধ্যেই এই প্রদাহ দেখা দিয়েছে বলে জানানো হয়।

আগামী কয়েকদিনের মধ্যেই ইজরায়েলে ১২ থেকে ১৫ বছর বয়সীদের মধ্যে টিকাকরণ নিয়ে সিদ্ধান্ত ঘোষণা করা হবে। তার আগেই ফাইজ়ারের টিকায় সম্ভাব্য পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া অনিশ্চয়তা সৃষ্টি করেছে।

এ দিকে, টিকা প্রস্তুতকারক সংস্থা ফাইজ়ারের তরফে জানানো হয়েছে, টিকাকরণ নিয়ে ইজরায়েলের পর্যবেক্ষণের বিষয়ে তারা অবগত এবং এখনও অবধি টিকা নেওয়ার সঙ্গে মায়োেকার্ডিটিসের কোনও যোগসূত্র প্রমাণিত হয়নি। সংস্থার তরফে জানানো হয়, সাধারণত হৃৎযন্ত্রে প্রদাহের যে সমস্যা দেখা যায়, টিকা নেওয়ার পর তার থেকে বেশি সংখ্যক মায়োকার্ডিটিসে আক্রান্তের খোঁজ মেলেনি। সুতরাং টিকাকরণের সঙ্গে এর যোগ রয়েছে, তা ভাবা সঠিক নয়। টিকাকরণে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নিয়ে নিয়মিত পর্যালোচনা করা হয় এবং এই বিষয়ে ইজরায়েলের স্বাস্থ্যমন্ত্রকের টিকা সুরক্ষা দফতরের সঙ্গেও নিয়মিত যোগাযোগ রাখা হচ্ছে।

এর আগে গত মাসে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সিডিসি-র তরফেও মায়োকার্ডিটিস ও এমআরএনএ ভ্যাকসিনের মধ্যে যোগসূত্র নিয়ে বিস্তারিত গবেষণা প্রয়োজন বলে জানানো হয়। সিডিসির তরফে জানানো হয়, স্বাভাবিক সংখ্যার অতিরিক্ত সংখ্যক ব্যক্তির দেহে মায়োকার্ডিটিস দেখা না গেলেও স্বাস্থ্য পরিষেবা প্রদানকারীদের এই সম্ভাব্য পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া সম্পর্কে জানা উচিত।

Latest News Updates

Follow us on

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla