COVID-19 in North Korea: মাত্র ৩ দিনে আক্রান্ত ৮ লক্ষেরও বেশি! ‘অজানা জ্বরে’র তত্ত্ব খারিজে নারাজ প্রশাসন

COVID-19 in North Korea: মাত্র ৩ দিনে আক্রান্ত ৮ লক্ষেরও বেশি! 'অজানা জ্বরে'র তত্ত্ব খারিজে নারাজ প্রশাসন
গোটা দেশেই জারি লকডাউন। ছবি:PTI

COVID-19 in North Korea: স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, দেশের সমস্ত প্রদেশ, শহরে কড়া লকডাউন জারি করা হয়েছে। বিভিন্ন শিল্প ও বাণিজ্যক্ষেত্রগুলিকেও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

TV9 Bangla Digital

| Edited By: ঈপ্সা চ্যাটার্জী

May 15, 2022 | 12:23 PM

প্যাংগং: ফের অজানা জ্বরে মৃত্যু। এবার একদিনেই নতুন করে ১৫ জনের মৃত্যু হল। বিগত আড়াই বছর সংক্রমণের ছোঁয়াচ এড়িয়ে চললেও, চলতি সপ্তাহেই উত্তর কোরিয়ার (North Korea) প্রশাসনের তরফে জানানো হয়, দেশে প্রথম করোনা আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে। এই ঘোষণার পর থেকেই লক্ষাধিক মানুষের জ্বরে আক্রান্ত হওয়া ও মৃত্যুর খবর সামনে আসে। মৃত্যুর কারণ হিসাবে প্রশাসন ‘অজানা জ্বরে’র তত্ত্ব তুলে ধরলেও, একাংশের মতে করোনা (COVID-19) সংক্রমণের জেরেই এত সংখ্যক মানুষ আক্রান্ত ও মারা যাচ্ছেন। সংক্রমণ রুখতে ইতিমধ্যেই লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে দেশজুড়ে।

উত্তর কোরিয়ার সংবাদমাধ্যম কেসিএনএ-র তরফে জানানো হয়েছে, এখনও অবধি মোট ৪২ জনের মৃত্যু হয়েছে অজানা জ্বরে। অসুস্থ হয়েছেন ৮ লক্ষ ২০ হাজার ৬২০ জন। এরমধ্যে বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৩ লক্ষ ২৪ হাজার ৫৫০ জন। দেশের শীর্ষ নেতা কিম জং উনও সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার কথা স্বীকার করে নিয়ে জানিয়েছেন যে, দেশের পরিস্থিতি অত্যন্ত সঙ্কটজনক।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, দেশের সমস্ত প্রদেশ, শহরে কড়া লকডাউন জারি করা হয়েছে। বিভিন্ন শিল্প ও বাণিজ্যক্ষেত্রগুলিকেও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। আবাসিক অঞ্চলগুলিকে বাকি অংশ থেকে আলাদা করে দেওয়া হয়েছে। সংক্রমণ রুখতে সর্বাধিক জরুরি কোয়ারেন্টাইন ব্যবস্থা গ্রহণের কথা বলা হয়েছে।

চলতি সপ্তাহের বৃহস্পতিবারই উত্তর কোরিয়া প্রশাসনের তরফে জানানো হয়, দেশে করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছে। প্য়াংগং প্রদেশে আক্রান্তের শরীরে ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টের খোঁজ মিলেছে। এরপরই গোটা দেশে লকডাউন জারি করা হয়। শনিবার কিম জং উন জানান, উত্তর কোরিয়া প্রতিষ্ঠার পর এই প্রথম দেশে ভয়ঙ্কর অবস্থার সৃষ্টি হল করোনা সংক্রমণের জেরে।

এই খবরটিও পড়ুন

এদিকে, হু হু করে আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পেতেই ভেঙে পড়েছে দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা। এমনিতেই সাধারণ মানুষ করোনার টিকা পাননি। তার উপর ওষুধের সঙ্কটও দেখা গিয়েছে। যথাযথভাবে করোনা পরীক্ষা হচ্ছে না বলেও অভিযোগ। বিগত কয়েকদিনে নতুন করে যাঁরা জ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন এবং মারা গিয়েছেন, তাঁরা করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন কি না, সে বিষয়ে কিছু জানানো হয়নি। তবে বিশেষজ্ঞদের মতে, চলতি মাসে নয়, এপ্রিলের শেষ ভাগ থেকেই করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছিল দেশে।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 BANGLA