Afghanistan-Pakistan Relations: এ কী কথা! ইমরান খান হাতের পুতুল, চরম কটাক্ষ তালিবানের

Afghanistan Crisis, আফগানিস্তান উত্তাল হওয়ার সময় থেকে শুরু করে আফগান মসনদে তালিবান বসার সময় অবধি, তালিবানদের সমর্থন জানিয়েছিল পাকিস্তান। এমন গুঞ্জনও শোনা গিয়েছে অস্ত্রসস্ত্র দিয়েও তালিবানকে সাহায্য করেছে পাকিস্তান।

Afghanistan-Pakistan Relations: এ কী কথা! ইমরান খান হাতের পুতুল, চরম কটাক্ষ তালিবানের
ইমরান খানের ইস্তফার দাবি উঠছে পাকিস্তানে (ফাইল ছবি)

নয়া দিল্লি: আজব কান্ড তালিব(Taliban) মুলুকে!এবার পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের (Imran Khan) উদ্দেশে উড়ে এলো তীব্র কটাক্ষ। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীকে ‘হাতের পুতুল’ বলে আক্রমণ শানালেন এক তালিবান মুখপাত্র। আরও এক ধাপ এগিয়ে তালিবান মুখপাত্রের দাবি, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী জনগণের দ্বারা নির্বাচিত নন।

এক সাক্ষাৎকারে ওই তালিবান মুখপাত্র বলেন, “আফগানিস্তানের (Afghanistan) অভ্যন্তরীণ বিষয়ে পাকিস্তানের হস্তক্ষেপ করার কোনও প্রয়োজন নেই। অনেকেই বলেন পাকিস্তানের (Pakistan) প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত নন, তিনি মনোনীত এবং তিনি হাতের পুতুলের (Puppet) মতো। প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তাঁর একক সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষমতাও নেই। আমাদের দেশের বিষয়ে অন্য কোনও দেশের অযাচিত হস্তক্ষেপ আমরা পছন্দ করছি না, কারণ অন্য কোনও দেশের অভ্যন্তরীণ ব্যাপারে আমরা নাক গলাতে যাই না।”

বুধবার ব্রিটেনের এক সংবাদ মাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে পাক প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, “আফগানিস্তানে হাতের পুতুলের মতো সরকার কখনই দীর্ঘমেয়াদী হবেনা।” ইমরানের মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় তালিবান মুখপাত্র জানিয়েছেন, “পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, তিনি চান আমাদের দেশে অন্তর্বতীকালীন সরকার গঠিত হোক এবং দেশের সব দল সেই সরকারে অংশগ্রহণ করুক! পাকিস্তান নিজেই ভীষণ সমস্যার মধ্যে রয়েছে। ইমরান খান নিজেই জনতার দ্বারা নির্বাচিত হয়ে সরকারে আসেননি। তিনি মনোনীত প্রধানমন্ত্রী।” তালিবান মুখপাত্রের ইঙ্গিত যে পাকিস্তানি সেনা বাহিনী (Pakistani Army) ও পাক গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই (ISI) দিকে তাতে কোনও সন্দেহ নেই।

ওই তালিবান মুখপাত্র বলেন “পাকিস্তানের জনগণ বলেন পাকিস্তানের সরকার, পাক সেনা বাহিনীর কথায় চলে। সেদেশের জনসাধারণ ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র চাহিদা ও মৌলিক অধিকার থেকেও বঞ্চিত। তাই সে দেশের সাধারণ মানুষ পাক সরকারকে নিয়ে মোটেও সন্তুষ্ট নয়। তাই তারা পাক সরকারকে সেনা বাহিনীর হাতের পুতুল বলে। তাই আমাদের নব গঠিত সরকার সম্পর্কে কারোর কোনও মন্তব্য করা শোভা পায় না। সরকারি পরিচালন ব্যবস্থায় তালিবান কোনও বিদেশী শক্তির হস্তক্ষেপ মেনে নেবে না। প্রত্যেকের উচিত নিজেদের দেশের প্রতি নজর দেওয়া এবং দেশের জনতার যাবতীয় প্রয়োজন মেটাতে কাজ করা। পাকিস্তানেও অসংখ্য সমস্যা রয়েছে, কিন্তু আমরা কখনই সেই বিষয়ে কোনও মন্তব্য করিনি, বা সমস্যা সমাধানে পাক প্রশাসনের কী করা উচিৎ সেই নিয়েও কোনও উপদেশ দিতে যাইনি। কারণ আমরা সার্বভৌমত্বে বিশ্বাসী। একই রকমের সম্মান আমরা আমাদের ক্ষেত্রেও আশা করি। ”

আফগানিস্তান উত্তাল হওয়ার সময় থেকে শুরু করে আফগান মসনদে তালিবান বসার সময় অবধি, তালিবানদের সমর্থন জানিয়েছিল পাকিস্তান। এমন গুঞ্জনও শোনা গিয়েছে অস্ত্রসস্ত্র দিয়েও তালিবানকে সাহায্য করেছে পাকিস্তান। কিন্তু সম্প্রতি আন্তর্জাতিক স্তরে ভারসাম্য বজায় রাখতে মৃদু তালিবান বিরোধীতার পথেই হাঁটতে চেয়েছিল ইসলামাবাদ। সম্ভবত সে কারণেই তালিবান সরকার প্রসঙ্গে মন্তব্য করেন ইমরান। কিন্তু এই পদক্ষেপ যে তালিবানরা ভালভাবে গ্রহণ করেনি, তা তাদের মুখপাত্রের বক্তব্য থেকেই সেটা স্পষ্ট।

 

আরও পড়ুন Maharashtra eases COVID Restrictions: নবরাত্রির প্রথম দিন থেকেই খুলে যাচ্ছে মহারাষ্ট্রের সব ধর্মীয় স্থান

আরও পড়ুন Congress: পঞ্জাবে হলে রাজস্থানে নয় কেন? রাজস্থানের ‘ককপিটে’ বসতে চেয়ে রাহুল সাক্ষাতে পাইলট

Read Full Article

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla