United States: অত্যাশ্চর্য! গর্ভবতী জানার দু’দিন পরই সন্তান প্রসব মহিলার

TV9 Bangla Digital

TV9 Bangla Digital | Edited By: Amartya Lahiri

Updated on: Oct 19, 2022 | 8:44 AM

United States: হঠাৎ করেই জানতে পেরেছিলেন তিনি গর্ভবতী। একেবারেই অপ্রত্যাশিত ছিল। কিন্তু, এর থেকেও বড় ধাক্কাটা অপেক্ষা করে ছিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ওমাহার বাসিন্দা পেটন স্টোভার এবং তাঁর প্রেমিক টাভিস কোয়েস্টার্সের জন্য।

United States: অত্যাশ্চর্য! গর্ভবতী জানার দু'দিন পরই সন্তান প্রসব মহিলার
প্রতীকী ছবি

ওয়াশিংটন: হঠাৎ করেই জানতে পেরেছিলেন তিনি গর্ভবতী। একেবারেই অপ্রত্যাশিত ছিল। কিন্তু, এর থেকেও বড় ধাক্কাটা অপেক্ষা করে ছিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ওমাহার বাসিন্দা পেটন স্টোভার এবং তাঁর প্রেমিক টাভিস কোয়েস্টার্সের জন্য। গর্ভাবস্থার কথা জানার মাত্র দুদিনের মধ্যেই এক পুত্র সন্তানের জন্ম দিয়েছেন পেটন। শুনতে অবিশ্বাস্য লাগলেও, এটাই সত্যি।

২৩ বছর বয়সী পেটন স্টোভার, ওমাহার এক বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনা করেন। কর্মজীবনের প্রথম বছরেই তিনি ক্লান্তি-সহ শরীরে একাধিক উপসর্গগুলি অনুভব করতে শুরু করেছিলেন। তিনি মনে করেছিলেন, কর্মক্ষেত্রে অত্যাধিক চাপের জন্যই অসুস্থ হয়ে পড়ছেন তিনি। সব সময়ই তাঁর ক্লান্ত লাগত। আর এটাকেই স্বাভাবিক বলে, ধরে নিয়েছিলেন পেটন।

তবে, এরপর তিনি বিভিন্ন শারীরিক পরিবর্তনও লক্ষ্য করা শুরু করেছিলেন। পেটন স্টোভারের পা ফুলে যাচ্ছিল। এরপরই, চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে ছুটেছিলেন তিনি। আর সেখানে তাঁর জন্য অপেক্ষা করছিল বিস্ময়। ডাক্তার তাঁকে জানিয়েছিলেন, একটি শিশুর জন্ম দিতে চলেছেন তিনি। নিশ্চিত হতে আরও পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়েছিল। আল্ট্রাসাউন্ড পরীক্ষার সময়, চিকিৎসক সরাসরি স্ক্রিনের দিকে তাকিয়ে পেটনকে বলেন, “নিশ্চিতভাবে আপনি গর্ভবতী”।

গর্ভাবস্থার খবর পেটন ও টাভিসকে দারুণ আনন্দ দিলেও, সেই সঙ্গে পেটনের শারীরিক অবস্থা নিয়ে উদ্বেগও তৈরি হয়েছিল। জানা গিয়েছে, পেটনের কিডনি এবং লিভার সঠিকভাবে কাজ করা বন্ধ করে দিয়েছিল। ডাক্তাররা জানিয়েছিলেন, তাঁকে অবিলম্বে হাসপাতালে ভর্তি হতে হবে। এক পুত্রসন্তান প্রসব করেন ২৩ বছরের মার্কিন তরুণী। মা ও শিশুকে বাঁচানোর চিকিৎসকরা জরুরি ভিত্তিতে অস্ত্রোপচার করেছিলেন।

কিন্তু, কীভাবে ঘটল এমন ঘটনা? ডাক্তাররা জানিয়েছেন, পেটন স্টোভার ‘প্রিক্ল্যাম্পসিয়া’ ছিল। ‘প্রিক্ল্যাম্পসিয়া’ হল এক গর্ভাবস্থা সংক্রান্ত এক গুরুতর জটিলতা। যার জন্য, উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা এবং অন্যান্য অঙ্গের ক্ষতির সম্ভাবনা তৈরি হয়। তবে চিকিৎসকদের তৎপরতায়, স্বাভাবিক সময়ের ১০ সপ্তাহ আগেই অস্ত্রোপচার করে পেটনের গর্ভ থেকে শিশুপুত্রকে বের করে আনা হয়। যার ফলে পেটন ও তাঁর পুত্র সন্তান কাশ, দুজনেই বিপন্মুক্ত হয়। জন্মের সময় শিশুটির ওজন ছিল ২ কেজিরও কম।

পেটন জানিয়েছেন, গর্ভাবস্থার কথা জানা এবং তার পরের কয়েকটা দিন “অত্যন্ত ভীতিকর” ছিল। পেটন ও টাভিস দুজনেই জানিয়েছেন, একদিন তাঁদের সন্তান হবে, এটা তাঁদের কাঙ্খিতই ছিল। কিন্তু, এত তাড়াতাড়ি সন্তান লাভের কোনও পরিকল্পনা তাঁদের ছিল না। প্রত্যাশার থেকে দ্রুত সেই সময়টা এসে পড়ায় তাঁরা অত্যন্ত রোমাঞ্চিত।

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla