Air India: প্রতিদিন ২০ কোটি টাকা খরচ হচ্ছে, এয়ার ইন্ডিয়ার দ্রুত হস্তান্তর চাইছে কেন্দ্র

Air India Hand Over: এয়ার ইন্ডিয়াকে চালু রাখার জন্য প্রতিদিন ২০ কোটি টাকা খরচ করা হচ্ছে। আর এই বিশাল অঙ্কের টাকা আসছে করদাতাদের টাকা থেকেই। এই পরিস্থিতিতে দ্রুত এয়ার ইন্ডিয়ার হস্তান্তর চাইছে কেন্দ্র।

Air India: প্রতিদিন ২০ কোটি টাকা খরচ হচ্ছে, এয়ার ইন্ডিয়ার দ্রুত হস্তান্তর চাইছে কেন্দ্র
প্রতিদিন ২০ কোটি খরচ হয় এয়ার ইন্ডিয়ার জন্য (ফাইল ছবি)

নয়া দিল্লি: তিনজন আলাদা আলাদা মন্ত্রী, একাধিক নিয়ম পরিবর্তন, দুটি মাঝপথে বন্ধ হয়ে যাওয়া মিশন… অবশেষে দুই দশক পরে রেহাই। লোকসানে ডুবে থাকা উড়ান সংস্থা এয়ার ইন্ডিয়াকে চালু রাখার জন্য করদাতাদের টাকার থেকে আর টান পড়বে না। এয়ার ইন্ডিয়াকে চালু রাখার জন্য প্রতিদিন ২০ কোটি টাকা খরচ করা হচ্ছে। আর এই বিশাল অঙ্কের টাকা আসছে করদাতাদের টাকা থেকেই। এই পরিস্থিতিতে দ্রুত এয়ার ইন্ডিয়ার হস্তান্তর চাইছে কেন্দ্র।

এয়ার ইন্ডিয়া টাটার কাছে বিক্রি করে দেওয়ার তীব্র বিরোধিতা করেছে কংগ্রেস। এই নিয় ডিপাম (DIPAM)-এর সচিব তুহিন কান্ত পান্ডে জানিয়েছেন, আমরা টাটার কাছে দুধেল গাই বিক্রি করছি না। এই উড়ান সংস্থাটি এক সঙ্কটের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছিল, আর এটিকে ঠিকঠাকভাবে চালাতে হলে বিনিয়োগের দরকার ছিল।

তিনি আরও বলেন, “এটি মোটেই সহজ কাজ হবে না। এয়ার ইন্ডিয়ার নতুন মালিক টাটার একমাত্র সুবিধা হল যে তারা যে মূলধন খরচ করতে পারবে তা তারা আবার তুলে নিতে পারবে বলে মনে করছে। তারা ঘাটতি পূরণের জন্য আগের বছরগুলিতে যে পরিমাণ অতিরিক্ত ঋণ রয়েছে, তা গ্রহণ করছে না। এর ফলে করদাতাদেরও এই প্রক্রিয়া অনেকটা টাকা সাশ্রয় হবে।

মোট ৭০ হাজার কোটি টাকার লোকসান হয়েছে এয়ার ইন্ডিয়ার। এই সংস্থার জন্য প্রত্যেকদিন সরকারের ক্ষতি হচ্ছে ২০ কোটি টাকা। এর আগেও একবার এয়ার ইন্ডিয়ার বেসরকারিকরণের চেষ্টা হয়েছিল। কিন্তু বিপুল ঋণের বোঝা থাকার কারণে কোনও সংস্থা উৎসাহ দেখাচ্ছিল না। ফলে, তখন সফল হয়নি কেন্দ্র। ঋণের বোঝা থাকা সত্ত্বেও আজও এয়ার ইন্ডিয়া দেশের মধ্যে অন্যতম বৃহৎ বিমান সংস্থা। বর্তমানে দেশের সব বিমানবন্দরের মধ্যে এয়ার ইন্ডিয়ার ডোমেস্টিক বিমানের জন্য বরাদ্দ ৪,৪০০ টি ল্যান্ডিং ও পার্কিং স্লট। আন্তর্জাতিক বিমানের জন্য বরাদ্দ ১৮০০ টি ল্যান্ডিং ও পার্কিং স্লট। এ ছাড়া দেশের বাইরে ৯০০ টি স্লট রয়েছে এয়ার ইন্ডিয়ার জন্য।

টাটা গোষ্ঠী এয়ার ইন্ডিয়ার জন্য় ২ হাজার ৭০০ কোটি টাকার নগদ অর্থ খরচ করবে। এছাড়া ১৫ হাজার ৩০০ কোটি টাকার ঋণও নেবে টাটা। এয়ার ইন্ডিয়ার ১ অগস্ট পর্যন্ত মোট ৬১ হাজার ৫৬২ কোটি টাকার ঋণ ছিল। এর মধ্যে ৭৫ শতাংশ অর্থাৎ ৪৬ হাজার ২৬২ কোটি টাকা ঋণ বিশেষ ইউনিট এআইএএইচএল-এ স্থানান্তরিত হবে। তার পরে এই লোকসানে ডুবে থাকা এই এয়ারলাইন টাটা গ্রুপের হাতে তুলে দেওয়া হবে।

তুহিন কান্ত পাণ্ডে বলেন, “টাটা যে ১৪১ টি বিমান পাবে তার মধ্যে ৪২ টি লিজ় দেওয়া হবে এবং বাকি ৯৯ টি স্ব-মালিকানাধীন হবে। এই বিমানগুলির অনেকগুলি এখনও ইঞ্জিন এবং অন্যান্য রক্ষণাবেক্ষণ জনিত মেরামতির প্রয়োজন।” পান্ডে আরও বলেন, “আমরা খুব শীঘ্রই টাটা গ্রুপের কাছে এয়ারলাইন হস্তান্তরের কাজ শেষ করতে চাই। এয়ারলাইন পরিচালনার জন্য প্রতিদিন ২০ কোটি টাকা খরচ হচ্ছে। এয়ারলাইন্সের নতুন মালিককে অনেক টাকা খরচ করতে হবে। বিমানের উন্নতির জন্য বিনিয়োগ করতে হবে, তাদের নতুন করে প্রস্তুত করতে হবে। তবেই তারা পুনরুজ্জীবিত হতে পারে। এর বাইরে, একটি শর্তও আরোপ করা হয়েছে যে তারা এক বছরের জন্য কর্মীদের বরখাস্ত করতে পারবে না। দ্বিতীয় বছর থেকে, তাদের কর্মীদের সরানোর জন্য ভিআরএস দিতে হবে।”

আরও পড়ুন : Gold Investment Plan: মাত্র ৫০০ টাকায় কিনতে পারেন সোনা! সোনায় বিনিয়োগ করে পাবেন দুর্দান্ত রিটার্ন

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla