ভারত থেকে ব্যবসা গোটাচ্ছে ফোর্ড

TV9 Bangla Digital

TV9 Bangla Digital | Edited By: Soumya Saha

Updated on: Sep 09, 2021 | 7:48 PM

Ford : গত দশ বছরে ফোর্ড ইন্ডিয়ার প্রায় ২০০ কোটি টাকার লোকসান হয়েছে।

ভারত থেকে ব্যবসা গোটাচ্ছে ফোর্ড
ভারতীয় বাজারে বিপুল অঙ্কের ক্ষতি ফোর্ডের

নয়াদিল্লি : ভারতীয় বাজারকে বিদায় জানাতে চলেছে ফোর্ড। ভারতে আর তৈরি হবে না ফোর্ডের গাড়ি। এ দেশে ফোর্ডের যে দু’টি গাড়ি তৈরির কারখানা রয়েছে, তা বন্ধ করে দেওয়া হবে। সংবাদসংস্থা রয়টার্স সূত্রে এমনটাই জানা গিয়েছে। ফোর্ডের এক আধিকারিক রয়টার্সকে জানিয়েছেন, ভারতের বাজারে সেভাবে মুনাফা কামাতে পারছিল না সংস্থা। সেই কারণেই এই ভারত থেকে ব্যবসা গুটিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ফোর্ড। তবে গোটা প্রক্রিয়া শেষ হতে প্রায় এক বছর সময় লাগতে পারে।

তাহলে কি ভারতীয় বাজারে আর পাওয়া যাবে না ফোর্ডের গাড়ি ? এই বিষয়টি নিয়ে এখনও পর্যন্ত তেমন কিছু জানা যায়নি। তবে ফোর্ডের অন্য এক আধিকারিক জানিয়েছেন, ভারতে নতুন করে কোনও ফোর্ডের গাড়ি তৈরি করা না হলেও কিছু গাড়ি অন্য দেশ থেকে আমদানি করা হতে পারে। যে গাড়িগুলি ইতিমধ্যে রাস্তায় চলছে, সেগুলির কী হবে ? গাড়ির মালিকদের এখনই দুশ্চিন্তার কোনও কারণ নেই। ফোর্ডের গাড়ির মালিকরা, ঠিকঠাকই পরিষেবা পেয়ে যাবেন। সংস্থার তরফে গাড়ির ডিলারদের সেই সংক্রান্ত যাবতীয় সাহায্য করা হবে বলে জানানো হয়েছে।

সূত্রের খবর, চলতি বছরের শেষের দিকেই গুজরাতের সানন্দ থেকে নিজেদের কারখানা গুটিয়ে নিতে পারে ফোর্ড। চেন্নাইয়ের ইঞ্জিন প্রস্তুতকারী কারখানা বন্ধ হয়ে যেতে পারে ২০২২ সালের মাঝামাঝির দিকে। এর আগে মার্কিন গাড়ি প্রস্তুতকারী সংস্থা জেনারেল মোটরসও ২০১৭ সালে ভারত থেকে নিজেদের ব্যবসা গুটিয়ে নিয়েছিল। গত দশ বছরে ফোর্ড ইন্ডিয়ার প্রায় ২০০ কোটি টাকার লোকসান হয়েছে। সেই জন্য ভারতে কীভাবে ফোর্ডের ব্যবসা টিকিয়ে রাখা যায়, তা ঠিক করতে বেশ কিছু সিদ্ধান্ত নিয়েছিল সংস্থা।

সংস্থার সিইও জিম ফারলে জানিয়েছেন, ‘ফোর্ড প্লাস’ পরিকল্পনা অনুযায়ী, কীভাবে লম্বা সময়ের জন্য ব্যবসাকে লাভের মুখ দেখানোর জন্য ফোর্ড বেশ কিছু জরুরি এবং কঠিন সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সঠিক জায়গায় বিনিয়োগ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, যেখানে সংস্থার লাভ হবে। ভারতীয় বাজারে প্রচুর টাকা লাগানোর পরেও বিগত ১০ বছরে ২০০ কোটি টাকার লোকসান হয়েছে ফোর্ডের। যেমনটা অনুমান করা হয়েছিল, নতুন গাড়ির চাহিদা তার থেকেও অনেক কম।

ফোর্ডের এই সিদ্ধান্তের ফলে সমস্যায় পড়তে পারেন সংস্থার প্রায় চার হাজার কর্মী। তবে সংস্থার তরফে আশ্বাস দেওয়া হয়েছে কর্মী, ইউনিয়ন, সাপ্লাইয়ার, ডিলার, সরকারের সঙ্গে কথা বলে যতটা সম্ভব এই সমস্যা মেটানোর চেষ্টা করা হবে। গাড়ি প্রস্তুতকারী কারখানাগুলি বন্ধ করে দেওয়া হলেও দিল্লি, চেন্নাই, মুম্বই, সানন্দ ও কলকাতায় ওয়ার্কশপ চালু রাখছে সংস্থা।

আরও পড়ুন : ১৮ মিনিট চার্জ দিলেই চলবে ৭৫ কিলোমিটার, দিন ঠিক থাকলেও কেন বাজারে এল না OLA-র ই স্কুটার

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla