Omicron diet tips: একমাত্র হাই প্রোটিন ডায়েটই পারে ডেল্টা আর ওমিক্রনের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় অ্যান্টিবডি তৈরি করতে, পরামর্শ পুষ্টিবিদদের

High protein diet: কোভিড থেকে সেরে ওঠার পর শরীরের জন্য ভীষণ ভাবে প্রোটিন জরুরি। এছাড়াও আক্রান্ত অবস্থায় পর্যাপ্ত পরিমাণ প্রোটিন খাবেন। এতেই বাড়বে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা

Omicron diet tips: একমাত্র হাই প্রোটিন ডায়েটই পারে ডেল্টা আর ওমিক্রনের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় অ্যান্টিবডি তৈরি করতে, পরামর্শ পুষ্টিবিদদের
কোভিড থেকে সেরে ওঠার পর যে কারণে প্রোটিন ডায়েট জরুরি

নভেম্বরের ২৪ তারিখ দক্ষিণ আফ্রিকার তরফে কোভিডের এই নতুন ভ্যারিয়েন্ট সম্পর্কে রিপোর্ট করা হয় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে (WHO)। ২৬ নভেম্বর বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এই ভ্যারিয়েন্টকে কোভিডের ভ্যারিয়েন্ট হিসেবেই চিহ্নিত করে। আর এরপরই তা ছড়িয়ে পড়তে শুরু করে বিশ্বজুড়ে। বিশ্বের প্রায় ৫৫টিরও বেশি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে ওমিক্রন। প্রতিদিন অজস্র মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন ওমিক্রনে। ডেল্টার তুলনায় অনেক বেশি দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে করোনার এই নতুন ভ্যারিয়েন্ট। রিপোর্ট অনুযায়ী, জানুয়ারি মাসের শেষে ভারত হয়ত তৃতীয় ঢেউয়ের শিখরে পৌঁছবে।

মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, নতুন করে ১,৬৮,০৬৩ জন আক্রান্ত হয়েছেন কোভিডে। এর মধ্যে ওমিক্রনে (Omicron update) আক্রান্ত হয়েছেন ৪,৪৬১ জন। ক্রমবর্ধমান কোভিড কেসের জন্য ইতিমধ্যেই বেশ কিছু রাজ্যে নেওয়া হয়েছে কঠোর পদক্ষেপ। দিল্লির রেস্তোরাঁ, বারে প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। হরিদ্বারে মকর সংক্রান্তি উপলক্ষ্যে গঙ্গাস্নানেও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। তৃতীয় তরঙ্গের সংক্রমণ রুখতেই এই ব্যবস্থা।

কোভিড আক্রান্ত হলে কী কী নিয়ম মেনে চলতে হবে এবং কতদিন আইসোলেশনে থাকতে হবে সেই বিষয়ে আগেই নির্দেশিকা জারি করেছে ICMR। সেই সঙ্গে এই সময় সুস্থ থাকতে কী কী খেতে হবে আর কোন খাবার এড়িয়ে চলবেন সেই বিষয়েও কিন্তু বেশ কিছু পরামর্শ দিয়েছেন পুষ্টিবিদরা। করোনার একেবারে গোড়া থেকেই প্রোটিনযুক্ত খাবারের উপর জোর দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। কোভিড থেকে সেরে উঠলে কিংবা কোভিড রুখতে কিন্তু বেশি করে প্রোটিন খেতেই হবে। পুষ্টিবিদ-লেখক কবিতা দেবগন নিউজ ৯-কে জানান, অতিমারীর সময়ে প্রোটিন আমাদের শরীরের ক্ষেত্রে কিন্তু খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ প্রোটিন অ্যামাইনো অ্যাসিড দিয়ে তৈরি। আর যা আমাদের শরীরে অ্যান্টিবডি গঠনে সাহায্য করে এবং সংক্রমণের হাত থেকে রক্ষা করে।

সেই সঙ্গে তিনি আরও জানান, খাদ্যে যদি পর্যাপ্ত প্রোটিন না থাকে তাহলে শরীর কিন্তু রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করতে পারে না। শরীর দুর্বল হয়ে পড়ে। আর তাই প্রোটিন খাওয়া শরীরের জন্য এত বেশি জরুরি। কিন্তু একজন পূর্ণবয়স্ক মানুষ প্রতিদিন ঠিক কতটা পরিমাণে প্রোটিন খাবেন? প্রত্যেক মানুষের উচিত তাঁর ওজন অনুযায়ী প্রোটিন গ্রহণ করা। যেমন যদি কোনও মানুষের ওজন হয় ৬০ কেটি তাহলে তাঁকে দৈনিক ৬০ গ্রাম প্রোটিন খেতে হবে।

কোভিড থেকে সেরে ওঠার পরও নিয়মিত বিভিন্ন বীজ, বাদাম, মুসুর ডাল, দুগ্ধজাত খাবার, মাছ. মাংস, ডিম কিন্তু খেতে হবে। প্রোটিন যেন ডায়েটে থাকে সে ব্যাপারে সতর্ক থাকুন। এছাড়াও ভিটামিন সি, ডি, এ, ই, জিঙ্ক, কপার, ম্যাগনেসিয়াম এবং ওমেগা ৩ ফ্যাটি অ্যাসিডও কিন্তু শরীরের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। ভাইরাসের সঙ্গে লড়তে হলে ভাল করে খেতে হবে। কুমড়োর বীজ, কাজু, ছোলা এসবও কিন্তু নিয়মিত খাবেন। শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে তুলতে ভিটামিন সি আর জিঙ্ক কিন্তু খুব গুরুত্বপূর্ণ। সংক্রমণ ঠেকাতে জিঙ্কের অনেক ভূমিকা রয়েছে।

এছাড়াও গত বছর মে মাসে তেলঙ্গানার নিজামস ইন্সটিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্সের তরফে একটি গবেষণাপত্র প্রকাশিত হয়। সেখানেই বলা হয়েছে. কোভিড থেকে সেরে ওঠার পর ভিটামিন ডি ডায়েটে রাখাও কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ। এতে শরীর দ্রুত সুস্থ হবে।

আরও পড়ুন: Omicron impact: কোভিড রুখতে এবং মৃত্যুহার ঠেকাতে ভরসা ভ্যাকসিনেই, জোর সওয়াল বিশেষজ্ঞদের

Related News

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla