Sonia Gandhi: ‘রাষ্ট্রপত্নী’ বিতর্কে কথা বলতে বাধা, স্মৃতি ইরানির উপরে মেজাজ হারালেন সনিয়া

Sonia Gandhi on Adhir Ranjan Chowdhury: 'রাষ্ট্রপত্নী' শব্দ নিয়ে বিতর্ক শুরু হতেই সংসদ চত্বরে দাঁড়িয়ে ক্ষোভ উগরে দেন অধীর রঞ্জন চৌধুরীও। তিনি বলেন, "এই একটা শব্দের জন্য় কি আমায় ফাঁসি দেওয়া হবে? তবে তাই করুন, ফাঁসি দিন আমায়"।

Sonia Gandhi: 'রাষ্ট্রপত্নী' বিতর্কে কথা বলতে বাধা, স্মৃতি ইরানির উপরে মেজাজ হারালেন সনিয়া
ফাইল ছবি
TV9 Bangla Digital

| Edited By: ঈপ্সা চ্যাটার্জী

Jul 28, 2022 | 1:34 PM

নয়া দিল্লি: রাষ্ট্রপতিকে ঘিরে বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে বিপাকে কংগ্রেস। বুধবার লোকসভার সাংসদ অধীর রঞ্জন চৌধুরী রাষ্ট্রপতির জায়গায় দ্রৌপদী মুর্মুকে রাষ্ট্রপত্নী বলে উল্লেখ করেন। এরপরই বিতর্ক শুরু হয়। এদিন সংসদ অধিবেশন শুরু হতেই শাসক দলের সাংসদরা অধীর রঞ্জন চৌধুরী ও কংগ্রেস নেত্রী সনিয়া গান্ধীর ক্ষমা প্রার্থনা করার দাবিতে সরব হন। একদিকে অধীর চৌধুরী জানান, মুখ ফসকে তিনি ওই মন্তব্য করেছেন। অন্যদিকে, বিক্ষোভের মুখে পড়ে কংগ্রেস নেত্রীও জানান যে, অধীর চৌধুরী আগেই ক্ষমা চেয়েছেন। দলের শীর্ষনেতাদের নিয়ে জরুরি বৈঠকের ডাক দিয়েছেন তিনি। লোকসভা ও রাজ্যসভার বিরোধী দলনেতা অধীর রঞ্জন চৌধুরী ও মল্লিকার্জুন খাড়গেকেও সিপিপি অফিসে ডাকা হয়েছে বৈঠকে যোগ দেওয়ার জন্য।

এদিন সংসদে অধিবেশন শুরু হতেই লোকসভায় কংগ্রেস সাংসদের মন্তব্যের সমালোচনা করে প্রতিবাদে সরব হন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি। তিনি কংগ্রেস নেত্রী সনিয়া গান্ধীকেই নিশানা করে বলেন, “সনিয়া গান্ধী, আপনি দেশের সর্বোচ্চ সাংবিধানিক পদে থাকা একজন মহিলাকে অপমান করার অনুমতি দিয়েছেন। আপনাকে ক্ষমা চাইতেই হবে।” বিজেপি সাংসদদের বিক্ষোভের মাঝেই কংগ্রেস সভাপতিকে উঠে এক বিজেপি সাংসদের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করতেও দেখা যায়। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি মাঝে বাধা দিলে, তিনি কঠোর স্বরে বলেন, “আমার সঙ্গে কথা বলবে না”।

বিক্ষোভের জেরে সংসদ মুলতুবি হয়ে যেতেই লোকসভা ছেড়ে বেরিয়ে আসেন সনিয়া গান্ধী। বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য় অধীর রঞ্জন চৌধুরী ক্ষমা চাইবেন কি না, জানতে চাওয়া হলে তিনি কিছুটা কঠোর স্বরেই বলেন, “উনি ইতিমধ্যেই ক্ষমা চেয়েছেন”। জানা গিয়েছে, কংগ্রেস নেত্রী শীর্ষনেতাদের নিয়ে জরুরিভিত্তিতে বৈঠকের ডাক দিয়েছেন। অধীর চৌধুরীও এই বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন।

‘রাষ্ট্রপত্নী’ শব্দ নিয়ে বিতর্ক শুরু হতেই সংসদ চত্বরে দাঁড়িয়ে ক্ষোভ উগরে দেন অধীর রঞ্জন চৌধুরীও। তিনি বলেন, “এই একটা শব্দের জন্য় কি আমায় ফাঁসি দেওয়া হবে? তবে তাই করুন, ফাঁসি দিন আমায়”। ক্ষমা চাওয়ার প্রসঙ্গেও তিনি বলেন, “কার কাছে ক্ষমা চাইবো আমি? বিজেপির কাছে? কে বিজেপি? আমি গতকালো বলেছি যে মুখ ফসকে এই শব্দ বলেছি আমি।”
জানা গিয়েছে, তিনি লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লার কাছে অনুরোধ জানিয়েছেন, তাঁকে যেন একবার স্বপক্ষে বক্তব্য রাখার সুযোগ দেওয়া হয়। এই মর্মে চিঠিও লিখেছেন তিনি।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla