সুস্মিতা বললেন ‘ত্রিপুরা জিতবে’, অসম নিয়ে কী ভাবছে তৃণমূল?

এ দিন সুস্মিতা দেব স্পষ্ট করে দেন যে, অসমের কথাও ভাবছে তৃণমূল, তবে আপাতত তৃণমূলের পাখির চোখ ত্রিপুরা।

সুস্মিতা বললেন 'ত্রিপুরা জিতবে', অসম নিয়ে কী ভাবছে তৃণমূল?
ত্রিপুরেশ্বরী মন্দিরে সুস্মিতা

আগরতলা: বিগত মাসখানেক ধরে চর্চায় ত্রিপুরার রাজনীতি। ত্রিপুরেশ্বরী মন্দিরে গিয়ে পুজো দিয়েছেন একাধিক রাজনৈতিক নেতা-নেত্রী। এবার সেই মন্দিরেই গেলেন সুস্মিতা দেব। সদ্য তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন সুস্মিতা। আর তারপরই দলের তরফে সুস্মিতাকে ত্রিপুরায় পাঠানো হয়েছে। প্রতিবেশী এই রাজ্যই এখন তৃণমূলের পাখির চোখ। আর সেখানে সুস্মিতাকে অন্যতম মুখ হিসেবে সুস্মিতা দেবকে সামনে রাখতে চাইছে তৃণমূল। ১৫ দিনের সফতে ত্রিপুরা গিয়েছে তিনি।আর আজ মন্দিরে পুজো দিতে গিয়ে সুস্মিতা জানালেন ‘ত্রিপুরা জিতবে।’

আজ বৃহস্পতিবার উদয়পুরের মাতাবাড়ির মা ত্রিপুরেশ্বরী মন্দির পরিদর্শন করেন সুস্মিতা সহ তৃনমূলের অন্যান্য নেতা-কর্মীরা। বিজেপি সরকারকে কটাক্ষ ‌করে এ দিন তিনি বলেন, ‘২০১৮ সাল থেকে শাসক দল তাদের একটিও প্রতিশ্রুতি রাখতে পারেনি।’ রাজ্যে সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেসের লক্ষ্য সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করায় তিনি বলেন, ‘জিতবে ত্রিপুরা।’ তিনি আরও বলেন, ‘যদিও সাধারণ মানুষই শেষ কথা বলবে। তবে দেবীর আশীর্বাদে, আমরা রাজ্য এবং জনগণের উন্নয়নের জন্য কাজ করার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি এবং আমি বিশ্বাস করি সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেস এখানে আরও শক্তিশালী হবে।’

অসমে তৃণমূল কংগ্রেসের লক্ষ্য সম্পর্কে সুস্মিতা দেব স্পষ্ট বলেন, ‘অসমে একটি অপ্রীতিকর রাজনৈতিক পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী সবাইকে নিয়ন্ত্রণ করার পরিকল্পনা করছেন। যদিও অসমের জন্য আমাদের পরিকল্পনা আছে। তবে, কিন্তু এই মুহূর্তে আমরা ত্রিপুরায় মনোনিবেশ করতে চাই।’ সূত্রের খবর, হোটেলের সমস্যায় জেরবার হয়েই তৃণমূলের তরফে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যে এ বার ত্রিপুরাতেই তৃণমূল ভবন তৈরি করা হবে। আগরতলার বুকেই এই কার্যালয় তৈরি করা হবে বলে জানা গিয়েছে।

ইতিমধ্যেই অসমেও কর্মসূচি শুরু করেছেন সুস্মিতা। রবিবার অসমের শিলচরে সদস্য সংগ্রহ অভিযান শুরু করেন তিনি। সদ্য কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেওয়া সুস্মিতা দেবকেই ভিনরাজ্যে রাজনৈতিক কর্মসূচিতে সামনে রাখছে তৃণমূল। বিজেপি শাসিত অসমে তৃণমূলের জমি তৈরিতে বড় ভূমিকা নিতে পারেন সন্তোষমোহন দেবের কন্যা। শিলচরের এক সময় কংগ্রেস সাংসদ ছিলেন সুস্মিতা। তাই নিজের পুরনো কেন্দ্র থেকেই নতুন ইনিংস শুরু করেছেন তিনি। যদিও তিনি জানিয়েছেন, অসমের প্রতিটি জায়গাতেই ঘুরে ঘুরে সদস্যপদ সংগ্রহ অভিযান চালাবেন সুস্মিতা।

গত ১৬ অগস্ট সুস্মিতা দেবের কংগ্রেস ছাড়ার কথা প্রকাশ্যে আসে। কংগ্রেস নেত্রী সনিয়া গান্ধীর কাছে তিনি ইস্তফা পত্র জমা দেন। তিনি জানান, ‘তিন দশক ধরে অল ইন্ডিয়া ন্যাশনাল কংগ্রেসের সঙ্গে সম্পর্ক শেষ করছি। এতদিন ধরে আমার পাশে থাকার জন্য সকল সতীর্থ, নেতা-মন্ত্রীদের অনেক ধন্যবাদ। এই তিন দশকের স্মৃতি আমি চিরকাল আমি মনে রাখব।’ জনসেবার কাজেই তিনি জড়িত থাকবেন, এই কথা জানিয়ে ব্যক্তিগতভাবে তিনি সনিয়া গান্ধীকেও ধন্যবাদ জানান। এরপরই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত ধরে তৃণমূলে যোগ দেন অভিজ্ঞ এই নেত্রী। আরও পড়ুন: অসুস্থ অবস্থায় এসএসকেএমে ভর্তি মুকুল রায়, খোঁজ নিলেন মুখ্যমন্ত্রী

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla