বাকি নেই আর কেউ, ১৮৯ গ্রামের সকলেই পেয়েছেন করোনা টিকা

সম্প্রতিই ত্রিপুরায় ১৩৮টি নমুনায় ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের খোঁজ মেলে। প্রথমে তা ডেল্টা প্লাস ভ্যারিয়েন্ট বলে মনে করা হলেও পরে কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়, সেগুলি ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট।

বাকি নেই আর কেউ, ১৮৯ গ্রামের সকলেই পেয়েছেন করোনা টিকা
ফাইল চিত্র।

আগরতলা: বাকি নেই একজনও, গ্রামের সকলেই পেয়েছেন করোনা টিকার প্রথম ডোজ়। তবে এটি একটি গ্রামের খতিয়ান নয়, ১৮৯ টি গ্রামের চিত্র একই। প্রতিটি গ্রামেই সকল প্রাপ্তবয়স্ক ব্যক্তিই করোনা টিকা পেয়েছেন। এমনটাই সাফল্যের খতিয়ান দিলেন ত্রিপুরার জাতীয় স্বাস্থ্য মিশনের অধিকর্তা সিদ্ধার্থ শিব জয়সওয়াল।

রাজ্য়ে নির্দিষ্ট সংখ্যক বাসিন্দাদের টিকাকরণের লক্ষ্যমাত্রা পূরণের কথা জানিয়ে তিনি বলেন, “১৮৯টি গ্রামের সকল বাসিন্দাদেরই করোনা টিকার প্রথম ডোজ় দেওয়া হয়েছে। সাতটি শহরতলি ও দুই গ্রামোন্নয়ন ব্লকের সকল বাসিন্দাদেরও টিকাকরণের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করা হয়েছে।”

কম সময়েই এত সংখ্যক মানুষের টিকাকরণের লক্ষ্যমাত্রা কীভাবে পূরণ হল, তা জানতে চাওয়া হলে তিনি জানান, অঞ্চল ভিত্তিক টিকাকরণ কর্মসূচি চালানোর ফলেই সহজে নির্দিষ্ট লক্ষ্যমাত্রা পূরণ সম্ভব হয়েছে।

সম্প্রতিই ত্রিপুরায় ১৩৮টি নমুনায় ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের খোঁজ মেলে। প্রথমে তা ডেল্টা প্লাস ভ্যারিয়েন্ট বলে মনে করা হলেও পরে কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়, সেগুলি ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট। রাজ্যে বেশ কয়েকটি জায়গায় এখনও সংক্রমণের হার ৫ শতাংশের বেশি হওয়ায় কড়া বিধিনিষেধ জারি করা হয়েছে। করোনা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে সম্প্রতি কেন্দ্রীয় দলও এসেছিল রাজ্যে। আরও পড়ুন: নাচছেন, খেলছেন অথচ ভ্যাকসিন নিলেন বাড়িতে বসে! প্রশ্নের মুখে প্রজ্ঞা

COVID third Wave

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla