‘না পারলে ছেড়ে দিন’, সিপিএম রাজ্য কমিটির বৈঠকে বঙ্গ নেতৃত্বকে তুলোধোনা ইয়েচুরির

TV9 Bangla Digital

TV9 Bangla Digital | Edited By: ঋদ্ধীশ দত্ত

Updated on: Aug 12, 2021 | 9:30 PM

CPIM: তথাকথিত রাজ্য নেতৃত্বের ব্যর্থতা এবং সিদ্ধান্তহীনতা নিয়ে ক্ষোভ উগরে দিয়ে তিনি সোজাসুজি জানতে চান, কার গাফিলতিতে এমনটা হল?

'না পারলে ছেড়ে দিন', সিপিএম রাজ্য কমিটির বৈঠকে বঙ্গ নেতৃত্বকে তুলোধোনা ইয়েচুরির
ছবি-PTI

কলকাতা: শীর্ষ নেতৃত্বের প্রশ্নবাণেই কান ঝালাপালা হওয়ার জোগাড় সিপিএমের। বিধানসভা নির্বাচনের পর রাজ্য কমিটির প্রথম বৈঠকেও এ বার ঝড় উঠল সিপিএমের অন্দরে। সূত্রের খবর, বৈঠকে বিধানসভা ভোটে দলের শোচনীয় ফল এবং চরম ব্যর্থতা নিয়ে মারাত্মক ক্ষোভপ্রকাশ করেন সিপিএমের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি। তথাকথিত রাজ্য নেতৃত্বের ব্যর্থতা এবং সিদ্ধান্তহীনতা নিয়ে ক্ষোভ উগরে দিয়ে তিনি সোজাসুজি জানতে চান, কার গাফিলতিতে এমনটা হল?

দিনকয়েক আগেই হওয়া সিপিএমের কেন্দ্রীয় কমিটির বৈঠকে পশ্চিমবঙ্গের ভোট-ব্যর্থতা নিয়ে খুব একটা কাটাছেঁড়া হয়নি। নিজেদের শোচনীয় ফলের থেকে বাংলায় বিজেপির সফল না হওয়ার বিষয়টিও অগ্রাধিকার পেয়েছিল সেখানে। তবে রাজ্য কমিটির বৈঠকের ছবিটা ছিল পুরোপুরি অন্যরকম। ঠিক কার দোষে গত কয়েক দশকের মধ্যে সিপিএমকে এ রাজ্যে সবচেয়ে লজ্জাজনক হার হজম করতে হল, রাজ্য কমিটির নেতাদের উদ্দেশে সেই সওয়াল দাগেন ইয়েচুরি।

সূত্রের খবর, এ দিনের বৈঠকে রাজ্য কমিটির প্রায় সমস্ত প্রথম সারির নেতারাই হাজির ছিলেন। তাঁদের সামনেই এ দিন সরাসরি দলের সাধারণ সম্পাদক ইয়েচুরি জানতে চান, এই গাফিলতির দায় কার? কেন হল এই গাফিলতি? ভোটের আগে এবং পরে, রাজ্যের আসল ইস্যুগুলিতে চিহ্নিত করে তাকে প্রয়োজন মতো ব্যবহার করে না এগোনো নিয়েও ক্ষোভপ্রকাশ করেন তিনি। বরং যেগুলি আদতে কোনও ইস্যুই ছিল না (বিজেমূল), সেগুলিকে অগ্রাধিকার দেওয়ার কারণেই কি এই ব্যর্থতার মুখোমুখি হল সিপিএম? এই প্রশ্নও ঘুরে-ফিরে উঠে আসে আজকের বৈঠকে।

তবে একটা বিষয় আজকের বৈঠকে সাফ হয়ে গিয়েছে। তা হল- যারা কাজ করতে পারবেন না, তাঁদের দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হবে। এমনকী, সীতারাম ইয়েচুরি দ্বর্থ্যহীন ভঙ্গিতে জানিয়ে দিয়েছেন, কেউ না পারলে বলুন, তাঁদের সরিয়ে দেওয়া হবে। বরং যারা পারবেন, তাঁদের দায়িত্ব দেওয়া হবে।

মুজফফর আহমেদ ভবনে দু’দিন ব্যাপী এই রাজ্য কমিটির বৈঠকে নেতৃত্বের কাজে ক্ষোভপ্রকাশ করে উত্তর ২৪ পরগনা জেলা কমিটিও। নেতৃত্বকে জানিয়ে দেওয়া হয়, পার্টি যে পদ্ধতিতে চলছে, তাতে কর্মীরা বিক্ষুব্ধ। কাজ করা যাচ্ছে না। মাথার ওপর নেতৃত্ব বারবার ছড়ি ঘোরাচ্ছেন বলে অভিযোগ তোলা হয়। রেড ভলান্টিয়াররা কী করবেন, তাও পার্টি নেতৃত্বই ঠিক করে দিচ্ছেন বলেই অভিযোগ তোলা হয়।

দলীয় সূত্রে খবর, আজ থেকে শুরু হওয়া রাজ্য কমিটির বৈঠকে বড়সড় সংস্কারের সিদ্ধান্ত নিতে পারে সিপিএম। সেন্ট্রাল কমিটির সদস্যপদের সর্বোচ্চ বয়সসীমা কমিয়ে এর মধ্যেই বদলের বার্তা দিয়েছে সিপিএম। সূত্রের খবর, রাজ্য কমিটির বৈঠকেও বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। একাধিক বদলের সুপারিশ দেওয়া হয়েছে। শাখা কমিটি থেকে জেলা ও রাজ্য কমিটি সর্বত্র নতুন মুখ আনতে জোর দেওয়া হচ্ছে। তরুণ মুখের ব্যবহার বাড়াতে এবং প্রবীণ-নবীন অনুপাতে ভারসাম্য রাখার বিষয়টিও তুলে ধরা হয়েছে। আরও পড়ুন: উপনির্বাচন নিয়ে কী মত? কমিশনের চিঠি পেয়ে সক্রিয় তৃণমূল, উৎসাহ দেখাচ্ছে না বিজেপি

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla