Relaxation for Bars: পুজোর দিনগুলিতে বেশি রাত পর্যন্ত খোলা থাকবে পানশালা ও রেস্তরাঁ

Relaxation during Durga Puja: পুজোর দিনগুলি বেশি রাত পর্যন্ত খোলা রাখা যাবে রেস্তঁরা ও পানশালাগুলি। ১০ অক্টোবর থেকে ২০ অক্টোবর পর্যন্ত এই ছাড় দেওয়া হয়েছে। আজ এক নির্দেশিকা প্রকাশ করে এ কথা জানিয়েছে নবান্ন।

Relaxation for Bars: পুজোর দিনগুলিতে বেশি রাত পর্যন্ত খোলা থাকবে পানশালা ও রেস্তরাঁ
পানশালা ও রেস্তরাঁগুলির জন্য করোনা বিধি আরও শিথিল করল রাজ্য (ছবি - পিক্সঅ্যাবে)

কলকাতা: পুজোয় দিনগুলিতে করোনা সংক্রান্ত বিধিনিষেধ আরও শিথিল করল রাজ্য প্রশাসন। পানশালা, রেস্তরাঁগুলিতে নিয়মে আরও কিছুটা ছাড় দেওয়া হল। পুজোর দিনগুলি বেশি রাত পর্যন্ত খোলা রাখা যাবে রেস্তঁরা ও পানশালাগুলি। ১০ অক্টোবর থেকে ২০ অক্টোবর পর্যন্ত এই ছাড় দেওয়া হয়েছে। আজ এক নির্দেশিকা প্রকাশ করে এ কথা জানিয়েছে নবান্ন। একইসঙ্গে দোকানপাটগুলির ক্ষেত্রেও কোনওরকম নিয়মের বেড়াজাল থাকছে না পুজোর দিনগুলিতে।

গত বছরের মতো এই বছরেও দুর্গাপুজোয় একগুচ্ছ বিধি নিষেধ জারি করা হয়েছে। বেঁধে দেওয়া হয়েছে পুজোর গাইড লাইন। সেই গাইড লাইন মেনেই পুজো করতে হবে প্রত্যেক দুর্গাপুজো কমিটিকে। গতবারের মতো এবারও পুজো মণ্ডপগুলিতে সাধারণ দর্শনার্থীরা প্রবেশ করতে পারবেন না। বাইরে থেকে ঠাকুর দেখতে হবে। তবে তার মধ্যেও পুজো মণ্ডপগুলির বাইরে ভিড় হচ্ছে। ভিড় জমছে রেস্তরাঁ, পানশালাগুলির বাইরেও। এই পরিস্থিতিতে পুজোর দিনগুলিতে রাজ্যবাসীর জন্য নিয়মবিধি আরও কিছুটা শিথিল করল নবান্ন। আগামিকাল থেকে ২০ অক্টোবর পর্যন্ত রেস্তরাঁ এবং পানশালাগুলি বেশি রাত পর্যন্ত খোলা রাখা যাবে বলে জানিয়ে দিয়েছে রাজ্য সরকার।

এদিকে আগামিকাল থেকে ২০ অক্টোবর পর্যন্ত নাইট কার্ফুও থাকছে না রাজ্যে। এতদিন পর্যন্ত রাত ১১ টা থেকে ভোর ৫ টা পর্যন্ত জরুরি পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত না থাকলে বাড়ির বাইরে বেরনো যাচ্ছিল না। বেরোলেই পুলিশের ধড়পাকড়। তবে পুজোর দিনগুলিতে কোনওরকম নাইট কার্ফু থাকবে না বলে আগেই জানিয়ে দিয়েছিল নবান্ন। সেই নির্দেশিকা অনুযায়ী, আগামিকাল থেকে ২০ অক্টোবর পর্যন্ত ছাড় দেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ এই দিনগুলিতে রাত ১১ টা থেকে ভোর ৫ টা পর্যন্ত বাড়ির বাইরে বেরনোর ক্ষেত্রে কোনও নিষেধাজ্ঞা নেই। নির্দেশিকায় উল্লেখ করা হয়েছে, উৎসবের কথা মাথায় রেখেই এই ছাড় দেওয়া হচ্ছে।

১১ অক্টোবর মহাষষ্ঠী দিয়ে শুরু পুজো। ১৫ অক্টোবর বিজয়া দশমী। অর্থাৎ এই ১০ থেকে ২০ তারিখের মধ্যেই পড়ছে পুজোর কয়েকটা দিন। তাই রাতের ঘোরাঘুরিতে যে কোনও বাধা থাকবে না, তা বলাই বাহুল্য। তবে এবারও নির্দেশিকায় লোকাল ট্রেনের কথা উল্লেখ করা হয়নি। অর্থাৎ আগামী এক মাসও লোকাল ট্রেন বন্ধই থাকছে। পুজোয় রাতে কোনও বিধি নিষেধ না থাকলেও মাস্ক পরার কথা মনে করিয়ে দেওয়া হয়েছে ওই নির্দেশিকায়। অফিস বা যে কোনও কর্মক্ষেত্রে কোভিড বিধি মেনে চলার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

দ্বিতীয় ঢেউয়ের প্রাবল্য কিছুটা কমলেও তৃতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কা এখনও উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। তাই পুজোর সম্য সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন অনেকেই। কিছুদিন আগেই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের অধীনস্থ ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্টের (NIDM) তরফ থেকে এই সংক্রান্ত একটি রিপোর্ট জমা দেওয়া হয়েছে প্রধামমন্ত্রীর দফতরে। সেই রিপোর্টে উল্লেখ করা হয় যে, অক্টোবরেই সম্ভবত চরম আকার ধারণ করতে পারে করোনার তৃতীয় ঢেউ।

আরও পড়ুন : Corona Update: পুজোর মরসুমে কোভিড গ্রাফের ওঠানামা, ২৪ ঘণ্টায় মৃত ১২! জানেন আপনার জেলার পরিস্থিতি?

Read Full Article

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla