BJP West Bengal: কেন্দ্রীয় প্রকল্প ‘হাইজ্যাক’ না করে তৃণমূল! বিধায়কদের ‘হোমওয়ার্ক’ দিল বিজেপি, সময় দু’দিন

BJP West Bengal: প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার সুবিধার হাল হকিকত ঠিক কোন পর্যায়ে রয়েছে, কী-ই বা তার পরিস্থিতি? সবটা সবিস্তারে বুঝতে চায় বিজেপি।

BJP West Bengal: কেন্দ্রীয় প্রকল্প 'হাইজ্যাক' না করে তৃণমূল! বিধায়কদের 'হোমওয়ার্ক' দিল বিজেপি, সময় দু'দিন
উপনির্বাচনের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করল বিজেপি। ফাইল চিত্র।

প্রদীপ্তকান্তি ঘোষ: প্রকল্প কেন্দ্রের। অথচ, সেই প্রকল্প নাকি ‘হাইজ্যাক’ করে নাম-ধাম বদলে পুরো কৃতিত্বটাই নিয়ে ফেলছে রাজ্য! কেন্দ্রীয় সরকারের মন্ত্রী থেকে শুরু করে পশ্চিমবঙ্গের বিজেপি (BJP West Bengal) নেতা-বিধায়কদের এই অভিযোগ বেশ পুরনো। রাজ্য সরকারের একাধিক প্রকল্প নিয়ে দীর্ঘ সময় ধরে এই ধরনের আপত্তি তুলে এসেছে গেরুয়া শিবির। এই সমস্যার সমাধান খুঁজতেই এ বার নতুন পন্থা অবলম্বন করতে চলেছে বিজেপি।

রাজ্যের প্রত্যেক গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার সুবিধার হাল হকিকত ঠিক কোন পর্যায়ে রয়েছে, কী-ই বা তার পরিস্থিতি? সবটা সবিস্তারে বুঝতে চায় বিজেপি। তাই দলের সব বিধায়ককে বিশেষ ‘হোমওয়ার্ক’ দেওয়া হয়েছে।

কী সেই ‘হোমওয়ার্ক’? বিধায়কদের বলা হয়েছে, আগামী দু’দিনের মধ্যে তাঁরা যেন নিজ নিজ বিধানসভা কেন্দ্রের মধ্যে থাকা গ্রাম পঞ্চায়েত ও গ্রাম সংসদের তালিকা পাঠান। সেই তালিকা পৌঁছে যাবে বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর (Suvendu Adhikari) দফতরে। সূত্রের খবর, কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের সঙ্গে আলোচনা করে মূলত এই সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে। কয়েকদিনের মধ্যেই সমস্ত পঞ্চায়েত ও সংসদের অঞ্চলের তালিকা পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বিধায়কদের।

সূত্র জানাচ্ছে, সংশ্লিষ্ট অঞ্চলের তালিকা বিরোধী দলনেতার দফতরে আসার পরে তা নিয়ে বিস্তারিত রিপোর্ট তৈরি হবে। অতঃপর সেই রিপোর্ট পাঠানো হবে কেন্দ্রের কাছে। ওইসব এলাকায় আবাস যোজনার কী হাল, তার পর সেই বিস্তারিত তথ্য চলে আসবে বিজেপি বিধায়কদের কাছে।

কিন্তু কেন এমন চিন্তাভাবনা ? একটা বড় অংশের বিজেপি নেতাদের বক্তব্য, দীর্ঘদিন ধরেই রাজ্যের তৃণমূল শাসিত সরকার কেন্দ্রীয় সরকারের প্রকল্প নিজেদের নামে চালানোর চেষ্টা করছে। এমনকি, প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার ঘর কে পাচ্ছেন, কী ভাবে পাচ্ছেন, তা-ও আমজনতা জানতে পারছে না। পুরোটাই তৃণমূল নেতারা কুক্ষিগত করে রেখেছেন। তাই এই বিষয়ে সবিস্তারে তথ্য যদি হাতের কাছে থাকে, তবে সুবিধা হবে বিজেপির। পাশাপাশি সবটা বিধায়কদের নখদর্পণে থাকবে।

আরও পড়ুন: Sukanta Majumdar: দায়িত্ব নিয়েই মাঠে সুকান্ত! বুধের সকালে মমতার ওয়ার্ডে শুরু প্রচার

সে কারণেই সংসদ ও পঞ্চায়েতের নাম সংগ্রহ আর তারপরে সেখানে আবাস যোজনা বিস্তারিত তথ্য কেন্দ্রের কাছে পৌঁছে দিতে বলা হয়েছে। তৃণমূল যাতে কোনও ভাবেই কেন্দ্রীয় প্রকল্প নিয়ে একতরফা রাজনীতি না করতে পারে, সেই ভাবনা থেকেই এমন পদক্ষেপ করা হচ্ছে বলে মত রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের।

আরও পড়ুন: IAF Chief: চার দশকের অভিজ্ঞতা, ঝুলিতে ১৫টি পদক, ভাদুরিয়ার পর বায়ুসেনার নেতৃত্বে ইনিই

 

Read Full Article

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla