Drinking Green Tea: আমাদের শরীরের জন্য ঠিক কতটা গ্রিন টি উপকারী, জেনে নিন

গ্রিন টিয়ের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এলডিএল কোলেস্টেরল কমাতে সাহায্য করে। এর পাশপাশি এইচডিএল কোলেস্টেরল বাড়াতে এবং ধমনীর কার্যকারিতা বাড়াতেও বিশেষভাবে সাহায্য করে।

Drinking Green Tea: আমাদের শরীরের জন্য ঠিক কতটা গ্রিন টি উপকারী, জেনে নিন

এক কাপ গরম গ্রিন টি আপনার শরীর এবং মনকে অন্য মাত্রার শান্তি দিতে পারে। অনেক দিন থেকেই গ্রিন টি একটা স্বাস্থ্যকর পানীয় হিসেবে চিহ্নিত হয়ে আসছে। সাম্প্রতিক গ্রিন টিয়ের সম্বন্ধে মানুষের চিন্তা ভাবনা আরও অনেক বেশি স্পষ্ট হয়েছে। আর সেই জন্যই গ্রিন টি খাওয়ার পরিমাণও বেড়েছে অনেকাংশে। গ্রিন টি খাওয়ার প্রভূত স্বাস্থ্যকর উপকারিতা রয়েছে। এক কাপ গ্রিন টি আমাদের শরীরকে ভেতর থেকে পরিষ্কার করে। এর ফলে শরীর সুস্থ এবং সতেজ থাকে। গ্রিন টিতে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, পলিফেনল এবং ফ্ল্যাভোনয়েড রয়েছে যা কেবল রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় না, পাশপাশি কাশি এবং ফ্লু থেকেও রক্ষা করে।

নিয়মিত গ্রিন টি খেলে কোলেস্টেরলের মাত্রা কমে যায়। এটি ওজন কমাতে আর হজমের উন্নতি করে। গ্রিন টি খেলে ত্বক, স্তন, ফুসফুস, কোলন, খাদ্যনালী এবং মূত্রাশয় সহ বেশ কিছু ক্যানসারের সম্ভাবনা কমতে থাকে। গ্রিন আর ব্ল্যাক টি মানুষের হৃদরোগের ঝুঁকি কমাতেও বিশেষ সাহায্য করেছে। গ্রিন টিয়ের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এলডিএল কোলেস্টেরল কমাতে সাহায্য করে। এর পাশপাশি এইচডিএল কোলেস্টেরল বাড়াতে এবং ধমনীর কার্যকারিতা বাড়াতেও বিশেষভাবে সাহায্য করে। গ্রিন টি খেলে উচ্চ রক্তচাপের ঝুঁকি ৪৬ শতাংশ থেকে ৬৫ শতাংশ পর্যন্ত কমে যায়। গ্রিন টি খাওয়া চুল এবং ত্বকের স্বাস্থ্যের জন্যও বিশেষ উপকারি।

Benefits of Green Tea

ব্র্যান্ডের উপর নির্ভর করে, প্রতিদিন ২ থেকে ৩ কাপ গ্রিন টি (মোট ২৪০ থেকে ৩২০ মিলিগ্রাম পলিফেনলের জন্য) খাওয়া উচিত। চীন বিশ্বে সবচেয়ে বেশি পরিমাণে গ্রিন টি তৈরি করে। তার পরে রয়েছে জাপান, ভিয়েতনাম এবং ইন্দোনেশিয়া। চীন এবং জাপান একসঙ্গে সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং উৎকৃষ্ট মানের গ্রিন টি চাষ করে। যার মধ্যে চাইনিজ গানপাউডার, ড্রাগনওয়েল, স্নো মাউন্টেন জিয়ান সুবিখ্যাত। এছাড়া জাপানের বিশ্ব বিখ্যাত ম্যাচা, সেনচা, কুকিচা এবং আরও অনেক ধরনের গ্রিন টি রয়েছে।

কাহওয়া হল এক ধরনের গ্রিন টি যা মধ্য এশিয়া, আফগানিস্তান, পাকিস্তান এবং ভারতের পাশাপাশি  এলাকায় বিশেষ জনপ্রিয়। ভারতে এটি সাধারণত কাশ্মীর উপত্যকায় পাওয়া যায়। তবে দেশের উত্তর মালাবার অঞ্চলেও এই ধরনের গ্রিন টি তৈরি করা হয়। এটি দারুচিনি, জাফরান, মধু, এলাচ এবং বাদামের সুগন্ধ যোগ করে বিশেষ কাহওয়া পাতা দিয়ে তৈরি করা হয়। এই চা সাধারণত একটা পিতলের পাত্রের মধ্যে রেখে ফোটানো হয়। সামান্য জল যোগ করে কাহওয়া পাতা সহ বাকি উপাদানগুলি ছড়িয়ে দেওয়া হয়। চা যত বেশি ফুটতে থাকে তত সুগন্ধ ছড়িয়ে পড়ে। একে মূলত খাবারের পর পান করার রীতি আছে। এই গ্রিন টি অত্যন্ত স্বাস্থ্যকর।

আরও পড়ুন: রোজকার রান্নায় ট্যুইস্ট এনে তৈরি করুন ওয়ান-পট মাশরুম পাস্তা! রইল তার রেসিপি

আরও পড়ুন: বৃষ্টির দিনে ডিনারের জন্য বানিয়ে ফেলুন দক্ষিণী স্টাইলের চিকেন চেট্টিনাড!

Read Full Article

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla