South Dinajpur: চক-ডাস্টার হাতে শিক্ষকের পুলিশ সুপার, পড়ালেন সিভিল সার্ভিস পরীক্ষার পরীক্ষার্থীদের

South Dinajpur: চক-ডাস্টার হাতে শিক্ষকের পুলিশ সুপার, পড়ালেন সিভিল সার্ভিস পরীক্ষার পরীক্ষার্থীদের
সিভিল সার্ভিস পরীক্ষার্থীদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছেন পুলিশ সুপার। নিজস্ব চিত্র।

UPSC Aspirants: সিভিল সার্ভিস পরীক্ষায় অংশ নিতে উচ্চমাধ্যমিক স্তর থেকেই উৎসাহ দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছে রাজ্য। এ রাজ্য থেকে সিভিল সার্ভিস পরীক্ষায় পরীক্ষার্থীর সংখ্যা কমেছে। তাই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই ব্যাপারে রাজ্য সরকারের উদ্যোগে প্রশিক্ষণ দেওয়ার প্রকল্প করার কথা জানিয়েছিলেন।

TV9 Bangla Digital

| Edited By: সৈকত দাস

Nov 27, 2021 | 5:49 PM

বালুরঘাট: চোর ডাকাত ধরা নয়, আইন শৃঙ্খলা সামলানো নয়। চক- ডাস্টার হাতে শিক্ষকের ভূমিকায় দেখা গেল দক্ষিণ দিনাজপুর (South Dinajpur) জেলার পুলিশ সুপার (Police Super) রাহুল দে (Rahul Dey)’কে। শনিবার দুপুরে বালুরঘাট জেলা প্রশাসনিক ভবন সংলগ্ন বালুছায়াতে জেলার প্রায় ১০০ জন চাকরি প্রার্থীকে (Job Candidate) সিভিল সার্ভিস (Civil Service) পরীক্ষার প্রশিক্ষণ দিতে দেখা গেল রাহুল বাবুকে। খোদ পুলিশ সুপারকে শিক্ষকের ভূমিকায় পেয়ে উচ্ছ্বসিত চাকরি প্রার্থীরা।

দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা প্রশাসনের সিভিল সার্ভিস কর্নারে ইউপিএসসি (UPSC) ও আইপিএস (IPS) পরীক্ষার জন্য পড়ুয়াদের পড়াতে দেখা গেল জেলা পুলিশ সুপার রাহুল দে। পাশাপাশি কোন বই পড়তে হবে, কোন কোন নিয়মে পড়াশোনা করে মিলবে ইউপিএসসি-র মতো কঠিন পরীক্ষায় সাফল্য, তার টিপসও দিতে দেখা গেল তাঁকে। পুলিশ সুপার জানান, কোন পথে তিনি নিজে সফল হয়েছিলেন। ভাগ করে নিলেন পরীক্ষার্থীদের সঙ্গে নিজের অভিজ্ঞতা, জানালেন কী ভাবে নিজে তৈরি হচ্ছিলেন সর্বভারতীয় এই পরীক্ষার জন্য।

এছাড়াও পড়াশোনা করতে গিয়ে পড়ুয়ারা কোন সমস্যায় পড়লে সরাসরি মোবাইলে ফোন করে এবং নিজের অফিসে দেখা করবার জন্য জানিয়েছেন খোদ পুলিশ সুপার। একদিকে ক্রাইম নিয়ে ব্যস্ততা ও অন্যদিকে শিক্ষকের ভূমিকায় অবতীর্ণ হওয়া রাহুলবাবুর ভূয়সী প্রশংসা করেন পরীক্ষার্থীদের।

পরিক্ষার্থীদের জন্য তাঁর এহেন ভূমিকা ও প্রয়াসকে সাধুবাদ জানিয়েছেন শহরের বিশিষ্টজনেরাও। আর এ নিয়ে জেলা পুলিশ সুপার রাহুল দে নিজে বলেন, “আমি নিজে বিভিন্ন পরীক্ষা দিয়েছিলাম। অনেক পরীক্ষায় সফল হয়েছি। তাই নতুন প্রজন্মের পড়ুয়াদের আজকে আমার নিজের অভিজ্ঞতা শেয়ার করে এবং পড়িয়ে খুব ভাল লাগছে। আগামীতে এই ভাবেই জেলা প্রশাসনের সিভিল সার্ভিস কর্নারে পড়াব”।

ইউপিএসসি চাকরি প্রার্থী নন্দিতা মহন্তের কথায়, “আজ পুলিশ সুপারের ক্লাস করে খুবই ভাল লেগেছে। ওনার অভিজ্ঞতা শুনেছি। আমাদের পড়াশোনার জন্য তা কাজে লাগবে। এবং জেলা প্রশাসন যে উদ্যোগ নিয়েছেন তা তাদের অনেক কাজে লাগবে।”

উল্লেখ্য, সিভিল সার্ভিস পরীক্ষায় অংশ নিতে উচ্চমাধ্যমিক স্তর থেকেই উৎসাহ দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছে রাজ্য। এ রাজ্য থেকে সিভিল সার্ভিস পরীক্ষায় পরীক্ষার্থীর সংখ্যা কমেছে। তাই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই ব্যাপারে রাজ্য সরকারের উদ্যোগে প্রশিক্ষণ দেওয়ার প্রকল্প করার কথা জানিয়েছিলেন। সেই সূত্রে রাজ্য সরকারের উদ্যোগে সত্যেন্দ্রনাথ ঠাকুর সিভিল সার্ভিস স্টাডি সেন্টারে পড়াবেন প্রাক্তন আমলারা। এদিনই তার আনুষ্ঠানিক সূচনা হয়েছে। বিদ্যুৎ ভবন অডিটরিয়াম হলে এই অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন রাজ্যের মুখ্য সচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী, প্রাক্তন মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়, রাজ্য নিরাপত্তা উপদেষ্টা ও ওই স্টাডি সেন্টারে চেয়ারম্যান সুরজিৎ কর পুরকায়স্থ, কলকাতার নগরপাল সৌমেন মিত্র, বিধান নগরের উচ্চ শিক্ষা দপ্তরের প্রধান সচিব মণীশ জৈনের মতো আমলারা।

আরও পড়ুন: TMC: তৃণমূল নেতার পুকুর ছোট হয়ে যাবে, তাই রাস্তায় ‘না’ পুরসভার! কোমর জলে পারাপার বাসিন্দাদের 

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 BANGLA