কুল খেতে দাদার সঙ্গে জঙ্গলে যায় পাঁচ বছরের শিশু, পুকুরে ভেসে ওঠে লাশ!

জঙ্গলে ঠিক কী ঘটেছিল শিশুটির সঙ্গে? দাদা কথায় একাধিক অসঙ্গতি

কুল খেতে দাদার সঙ্গে জঙ্গলে যায় পাঁচ বছরের শিশু, পুকুরে ভেসে ওঠে লাশ!
এই মজে যাওয়া পুকুর থেকে উদ্ধার হয় শিশুটির দেহ
শর্মিষ্ঠা চক্রবর্তী

|

Jan 24, 2021 | 1:32 PM

পূর্ব মেদিনীপুর: বাড়ির আত্মীয় যখন কুলের লোভ দেখিয়ে জঙ্গলে যাওয়ার কথা বলে, ছোট্ট শিশুটি এক কথায় তাতে রাজি হয়ে যায়। কিন্তু তাতেই নৃশংসতার শিকার হতে হল তাকে। প্রথমে হাত পা চেপে ধর্ষণ, তাতে বাধা দেওয়ায় গলা টিপে খুন! পাঁচ বছরের শিশুকে ধর্ষণের পর খুনের অভিযোগ উঠল পরিবারেরই বছর আঠেরোর এক সদস্যের বিরুদ্ধে। মর্মান্তিক ঘটনা পূর্ব মেদিনীপুরের (Purbo Medinipur) পটাশপুরের অমরপুর উত্তরপাড়া গ্রামে। অভিযুক্ত শুভেন্দু ঘটমকে গ্রেফতার করেছে পুলিস।

শিশুটির বাবার বয়ান অনুযায়ী, শনিবার বাড়ির সামনেই উঠোনে খেলছিল তাঁর মেয়ে। কিন্তু বেলা ১১ টা নাগাদ তাকে ডাকতে গিয়ে আর দেখতে পান না তিনি। শুরু হয় খোঁজ। সম্ভাব্য সমস্ত জায়গায় খোঁজ করা হয় তার । বিকালে স্থানীয় একটি মজে যাওয়া পুকুরে তার দেহ ভেসে থাকতে দেখেন প্রতিবেশীরা। তার গলায় একটি দাগ দেখে সন্দেহ হয় গ্রামবাসীদের।

উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। প্রাথমিকভাবে গ্রামবাসীরাই খোঁজখবর করা শুরু করেন। পুলিস গিয়ে শুরু করে জিজ্ঞাসাবাদ। এরপর ওই শিশুরই আত্মীয় শুভেন্দুর কথায় একাধিক অসঙ্গতি খুঁজে পান তদন্তকারীরা। টানা জেরায় ভেঙে পড়ে শুভেন্দু।

আরও পড়ুন: ছোট্ট মেয়েটিকে স্কুল ঘরে ডাকে ‘দাদা’, প্রথম শ্রেণির ছাত্রীর কথায় ফুঁসছে গোটা গ্রাম!

পুলিসের দাবি, শুভেন্দু জেরায় স্বীকার করেছে, কুলের লোভ দেখিয়ে শিশুটিকে জঙ্গলে নিয়ে যায় সে। এরপর তাকে ধর্ষণ করে। তাতে বাধা দেওয়ায় গলা টিপে খুন করে শুভেন্দু। দেহ ফেলে দেয় ওই পুকুরে। শুভমকে গ্রেফতার করেছে পুলিস। আটক করা হয়েছে তার বাবা-মাকেও।

অভিযুক্তের বাবা-মা

তাদের ভূমিকাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন পটাশপুর থানার ওসি দীপক চক্রবর্তী।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla