Mamata Banerjee on Municipality Election: রাজ্যের বাকি পুরভোট আগামী ২-৩ মাসেই, প্রশাসনিক বৈঠকে জানালেন মমতা

Mamata Banerjee: “মাধ্যমিক, উচ্চমাধ্যমিক, জয়েন্ট পরীক্ষার তারিখ গুলো সব আমাদের দিয়ে দিন। গঙ্গাসাগর মেলা, দোল, হোলি আছে। সবদিক দেখে ভোটটা করিয়ে দেব।”

Mamata Banerjee on Municipality Election: রাজ্যের বাকি পুরভোট আগামী ২-৩ মাসেই, প্রশাসনিক বৈঠকে জানালেন মমতা
প্রশাসনিক বৈঠকে বসতে চলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফাইল ছবি।

কলকাতা: ডিসেম্বরেই রয়েছে কলকাতার পুরভোট (Kolkata Municipality Election)। বাকি পুরসভাগুলির ভোট হবে কবে? তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। তার মধ্যেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Chief Minister Mamata Banerjee) জানিয়ে দিলেন আগামী দুই তিন মাসের মধ্যেই বকেয়া পুরভোট হবে। তার জন্য তৃণমূল বিধায়কদের মানুষের পাশে থাকার বার্তা দিলেন তিনি।

মঙ্গলবার কর্ণজোড়ার প্রশাসনিক বৈঠক থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “আগামী দু-তিন মাসের মধ্যেই পুরভোট হয়ে যাবে। দু-তিন মাসের মধ্যে আমি সব পুর ভোট করে দেব… আমি চিন্তা করছি যেগুলো পেন্ডিং হয়ে আছে।” এদিন উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুরের প্রশাসনিক বৈঠক হয় কর্ণজোড়ায়। মুখ্যমন্ত্রী ছাড়া ছিলেন প্রশাসনিক আধিকারিক ও জনপ্রতিনিধিরা। সেখানে গঙ্গারামপুরের বিধায়কের সঙ্গে কথা বলার সময় পুরভোটের প্রসঙ্গ টানেন মমতা। বলেন, “দু থেকে তিন মাসের মধ্যে পুরভোট সব হয়ে যাবে।” পরক্ষণে প্রশাসনিক আধিকারিকদের দিকে তাকিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “মাধ্যমিক, উচ্চমাধ্যমিক, জয়েন্ট পরীক্ষার তারিখ গুলো সব আমাদের দিয়ে দিন। গঙ্গাসাগর মেলা, দোল, হোলি আছে। সবদিক দেখে ভোটটা করিয়ে দেব।” অর্থাৎ, আগামী বছরের মার্চের মধ্যেই হতে পারে বকেয়া পুরভোট, এমনই বার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী।

এদিকে মুখ্যমন্ত্রীর এই মন্তব্যের সমালোচনা করেছে বিজেপি। বিজেপি নেতা জয়প্রকাশ মজুমদারের দাবি, প্রশাসনিক বৈঠকে নিজের ইচ্ছামতো পুরভোটের সময় বলে দিচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী। যা মোটেই ঠিক নয়। এর জন্য রাজ্য নির্বাচন কমিশন তো রয়েছে, মন্তব্য তাঁর।

উল্লেখ্য, রাজ্যের ১১২টি পুরসভায় নির্বাচন বাকি রয়েছে। করোনার জেরে ২০২০ সালে এই নির্বাচন স্থগিত হয়ে গিয়েছিল। কলকাতা ও হাওড়ার পুরভোটের জন্য ১৯ ডিসেম্বর দিনটি প্রস্তাব দিয়েছিল রাজ্য। তাতে সায় দেয় নির্বাচন কমিশনও।

এদিকে কেন সব পুরসভায় ভোট একসঙ্গে হবে না, সেই প্রশ্ন তুলে হাই কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছে বিজেপি। ফলে জটিলতা তৈরি হয়। শেষমেশ ১৯ ডিসেম্বর শুধু কলকাতা পুরসভার ভোট করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এদিনই রাজ্যে অবাধ নির্বাচন করানোর জন্য কেন্দ্রীয় বাহিনী দিয়ে ভোট করানোর আর্জি জানিয়েছেন বিরোধী নেতা শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari)। এর আগেও একাধিকবার এই আবেদন করা হয়েছে বিজেপি শিবিরের তরফে। কিন্তু এখনও পর্যন্ত যা পরিস্থিতি, তাতে কেন্দ্রীয় বাহিনী আনার কোনও পরিকল্পনা নেই রাজ্য নির্বাচন কমিশনের (West Bengal State Election Commission)। এই পরিস্থিতিতে কেন্দ্রীয় বাহিনীর দাবিতে এবার সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার পরিকল্পনা করছে বঙ্গ বিজেপি।

আরও পড়ুন: Mamata Banerjee: ‘এর পর বলবেন ঘরের মধ্যেও একটা জেলা চাই’, বিধায়কের আবদার শুনে খাপ্পা মুখ্যমন্ত্রী 

আরও পড়ুন: Pamela Goswami: মাদক কাণ্ডে ২৯২ দিন পর জামিন বিজেপি নেত্রী পামেলা গোস্বামীর 

Related News

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla