Pakistan: ‘কাশ্মীর সমস্যার সমাধান না হলে, শান্তি ফিরবে না দক্ষিণ এশিয়ায়’, দাবি পাক বিদেশমন্ত্রীর, কড়া জবাব দিল ভারতও

Pakistan on Kashmir Issue: পাক বিদেশমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি বৈঠকে দাবি করেন, "রাষ্ট্রপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদ ও কাশ্মীরী মানুষদের ইচ্ছার মর্যাদা দিয়ে যতদিন জম্মু-কাশ্মীর নিয়ে সমস্যার সমাধান না হচ্ছে, দক্ষিণ এশিয়ায় দীর্ঘস্থায়ী শান্তি স্থাপন ততদিন সম্ভব নয়।"

Pakistan: 'কাশ্মীর সমস্যার সমাধান না হলে, শান্তি ফিরবে না দক্ষিণ এশিয়ায়', দাবি পাক বিদেশমন্ত্রীর, কড়া জবাব দিল ভারতও
পাকিস্তানের বিদেশমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি। ফাইল চিত্র।

ইসলামাবাদ: ফের কাশ্মীরেই কুনজর পাকিস্তানের (Pakistan)। কাশ্মীর ইস্যু নিয়ে সমাধানসূত্রে না পৌঁছলে দক্ষিণ এশিয়ায় শান্তি ফেরাও সম্ভব নয় বলেই জানালেন পাকিস্তানের বিদেশমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি (Shah Mahmood Qureshi)। মঙ্গলবার কাজ়াকিস্তানে (Kazakhstan) বহুপাক্ষিক বৈঠকে পাক বিদেশমন্ত্রী দাবি করেন, ভারতের সঙ্গে শিকড়েই যে সমস্যা রয়েছে, তা সমাধান না হওয়া অবধি দক্ষিণ এশিয়ায় চিরস্থায়ী শান্তি স্থাপন সম্ভব নয়।

মঙ্গলবারই এশিয়ার দেশগুলির মধ্যে পারস্পরিক কার্যকলাপ ও আস্থা বৃদ্ধি সংক্রান্ত সম্মেলন , যা সংক্ষেপে সিকা (CICA) নামে পরিচিত, তার ষষ্ঠ দফার বৈঠক ছিল। কাজ়াকিস্তানের তরফে চলতি বছরের বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছিল। ওই বৈঠকেই ভিডিয়ো কনফারেন্সের মাধ্যমে যোগ দিয়ে পাক বিদেশমন্ত্রী এই কথা বলেন।

পাক বিদেশমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি বৈঠকে দাবি করেন, “রাষ্ট্রপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদ ও কাশ্মীরী মানুষদের ইচ্ছার মর্যাদা দিয়ে যতদিন জম্মু-কাশ্মীর নিয়ে সমস্যার সমাধান না হচ্ছে, দক্ষিণ এশিয়ায় দীর্ঘস্থায়ী শান্তি স্থাপন ততদিন সম্ভব নয়।” সূত্রের খবর, পাকিস্তানের এই মন্তব্যের প্রেক্ষিতে ভারতের তরফে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, জম্মু-কাশ্মীর ভারতের ছিল এবং আগামিদিনেও তা ভারতেরই থাকবে। পাকিস্তান যাতে সত্য স্বীকার করে নেয় এবং ভারত-বিরোধী প্রচার বন্ধ করে, সেই পরামর্শও দেওয়া হয়েছে।

ভারতের তরফে পাকিস্তানকে জানানো হয়েছে, ভারত ইসলামাবাদের কাছ থেকে সন্ত্রাসমুক্ত, হিংসামুক্ত সাধারণ প্রতিবেশী দেশের মতোই সম্পর্ক আশা করে। সন্ত্রাস ও শত্রুতামুক্ত পরিবেশ তৈরি করার দায়িত্ব পাকিস্তানের, এ কথাও সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়। সিকার বৈঠকে বিদেশমন্ত্রী জয়শঙ্কর সরাসরি পাকিস্তানের নাম উল্লেখ না করেই বলেন, “সীমান্তে সন্ত্রাসবাদ কোনও একক রাষ্ট্রের চিন্তার বিষয় নয়, বরং এটি এমন একটি অশুভ শক্তি, যার বিরুদ্ধে প্রতিটি দেশকে একজোট হয়ে লড়তে হবে, যেমন জলবায়ু পরিবর্তন বা করোনার মতো মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াই করা হচ্ছে।”

ভারতের দেখাদেখি পাক বিদেশমন্ত্রীও আফগানিস্তান প্রসঙ্গ নিয়ে কথা বলেন। বিগত কয়েক দশক ধরে যুদ্ধ ও সংঘর্ষের খারাপ প্রভাব আফগানিস্তানের উপর পড়েছে, এ কথা স্বীকার করে নিয়ে শাহ মাহমুদ কুরেশি বলেন, আফগানবাসীরা শান্তি, স্থিতাবস্থা  ও উন্নয়নের খোঁজে যে যাত্রা শুরু করেছে, তাতে আন্তর্জাতিক মহল যেন সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়।

আলোচনা ও সহযোগিতার মাধ্যমে এশিয়ায় যে শান্তি, নিরাপত্তা ও উন্নয়নের লক্ষ্যে সিকা কাজ করছে, তার প্রশংসাও করেন তিনি। প্যালেস্তাইন ইস্যুতেও রাষ্ট্রপুঞ্জের সংকল্প অনুসরণ করে দুই দেশের মধ্যে আলোচনার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান করা হয়, সেই অনুরোধও জানান তিনি। এশিয়ার শান্তি ও নিরাপত্তা বজায় রাখতে পাকিস্তান যে মিলিত উদ্যোগে কাজ করতে প্রস্তুত, সে কথাও জানান পাক বিদেশমন্ত্রী।

Read Full Article

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla