নমোর ‘মন কি বাতে’ প্রশংসা, দিল্লি থেকে সুদূর লন্ডনের বাজার দখল করছে ত্রিপুরার কাঁঠাল!

ত্রিপুরার পার্বত্য ঢালগুলিতে প্রাকৃতিক উপায়ে যে কাঁঠাল উৎপাদন করা হয়, তা ধীরে ধীরে দেশ তথা বিশ্বে পরিচিতি লাভ করছে। আকারে ছোট হলেও গুণমান ও স্বাদে দেশের বাকি প্রান্তে উৎপাদিত কাঁঠালকে পিছনে ফেলে দিয়েছে ত্রিপুরা।

নমোর 'মন কি বাতে' প্রশংসা, দিল্লি থেকে সুদূর লন্ডনের বাজার দখল করছে ত্রিপুরার কাঁঠাল!
প্রতীকী চিত্র।

আগরতলা: “মন কি বাত” অনুষ্ঠানে রবিবারই ত্রিপুরার কৃষকদের বিদেশে কাঁঠাল রফতানির উদ্যোগের প্রশংসা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi)। বিদেশের পর এ বার দেশেও সেই কাঁঠাল রফতানি শুরু করল ত্রিপুরা (Tripura) প্রশাসন। এ দিন রাজ্য সরকারের তরফে জানানো হয়, করোনা সংক্রমণের মাঝেও চলতি বছরে ত্রিপুরা থেকে দিল্লি ও তেলঙ্গনায় মোট ৭০০ কেজি কাঁঠাল রফতানি(Jackfruit Export) করা হয়েছে।

বিগত তিন বছর ধরেই ত্রিপুরা থেকে মধ্য প্রাচ্য ও ব্রিটেনে কাঁঠাল রফতানি করা হচ্ছে। মূলত ত্রিপুরার পার্বত্য ঢালগুলিতে প্রাকৃতিক উপায়ে যে কাঁঠাল উৎপাদন করা হয়, তা ধীরে ধীরে দেশ তথা বিশ্বে পরিচিতি লাভ করছে। আকারে ছোট হলেও গুণমান ও স্বাদে দেশের বাকি প্রান্তে উৎপাদিত কাঁঠালকে পিছনে ফেলে দিয়েছে ত্রিপুরা।

গতকালই মন কি বাত অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ত্রিপুরার সিপাহীজেলার এক কাঁঠাল চাষীর সঙ্গে কথা বলেন। তিনি জানান, ত্রিপুরায় উৎপাদন হচ্ছে সেরা গুণমানের কাঁঠাল। ট্রেনে গুয়াহাটি অবধি আসছে সেই কাঁঠাল এবং দিল্লি হয়ে তা সুদূর লন্ডনে পাড়ি দিচ্ছে।

১৩০ কোটি দেশবাসীর সামনে প্রধানমন্ত্রীর মুখে প্রশংসা শুনে অত্যন্ত খুশি ত্রিপুরার কাঁঠাল উৎপাদকরাও। তাঁরা জানান, ২০১৯ সাল থেকেই মধ্য প্রাচ্য ও পরে ব্রিটেনে তাঁদের কাঁঠালের রফতানি শুরু হয়। করোনা সংক্রমণের জেরে উৎপাদনে কিছুটা প্রভাব পড়লেও গত সপ্তাহেই লন্ডনে কাঁঠাল রফতানি করা হয়েছে। চলতি বছরে এখনও অবধি দিল্লি ও তেলঙ্গনা মিলিয়ে মোট ৭০০ কেজি কাঁঠাল রফতানি করা হয়েছে। আগামিদিনে এই পরিমাণ আরও বৃদ্ধি পাবে বলেই আশাবাদী তাঁরা।

আরও পড়ুন: ‘একাই একশো’ কোভিশিল্ডের ১ ডোজ়? কতটা সফল ভ্যাকসিনের সংমিশ্রণ, পরীক্ষা করে দেখবে কেন্দ্র

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla