West Bengal Budget 2023 DA: বাজেটে ছিল না, তবে কি চিরকুটেই DA?

TV9 Bangla Digital

TV9 Bangla Digital | Edited By: শর্মিষ্ঠা চক্রবর্তী

Updated on: Feb 15, 2023 | 5:21 PM

West Bengal Budget 2023 DA: মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, "আর্থিক অসুবিধা থাকা সত্ত্বেও সরকারি কর্মচারীদের জন্য ৬ পে কমিশন অনুযায়ী সুযোগ পেয়েছেন। এখানকার সরকারি কর্মীরা ব্যাঙ্কক, মালয়েশিয়ায় ঘুরতে যেতে পারেন, তাঁদের সুযোগ আছে।"

West Bengal Budget 2023 DA: বাজেটে ছিল না, তবে কি চিরকুটেই DA?
চিরকুটটি এসে পৌঁছয় চন্দ্রিমা ভট্টাচার্যের হাতে

কলকাতা: বাজেট বক্তৃতার মাঝে দেখা গেল অর্থমন্ত্রীর হাতে চিরকুট। বুধবার রাজ্য বিধানসভায় বাজেট (West Bengal Budget 2023) পেশ করেন অর্থমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য (Chandrima Bhattacharya)। সে সময়ে কিন্তু তাঁকে ডিএ নিয়ে কোনও কথা বলতে শোনা যায়নি। জানা যাচ্ছে বাজেট ঘোষণার সময়েই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একটি চিরকুট মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাসের হাতে দেন। সেই চিরকুট মন্ত্রী মারফত এসে পৌঁছয় অর্থমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্যের হাতে। তারপরই সরকারি কর্মীদের জন্য ডিএ ঘোষণা করেন অর্থমন্ত্রী। প্রশ্ন উঠছে, তাহলে কি ওই চিরকুটেই ৩ শতাংশ ডিএ-এর কথা ঘোষণা ছিল? চিরকুটটি দেখে অর্থমন্ত্রী ঘোষণা করেন, “আমাদের রাজ্যে সকল কর্মচারী, শিক্ষক-অশিক্ষক কর্মচারী, সমস্ত পেনশনভোগীরা ৩ শতাংশ ডিএ, মহার্ঘ ভাতা লাগু করা হবে। আগামী মার্চ থেকে তা লাগু হবে।” তিনি আরও বলেন, “আগামী অর্থবর্ষের জন্য ৩ লক্ষ ৩৯ হাজার ১৬২ কোটি নিট বাজেট বরাদ্দের প্রস্তাব করছি।” চিরকুট ইস্যুতে এরপর অর্থমন্ত্রী সাংবাদিক বৈঠকে বলেন, “ডিএ বাজেটে ছিল না। এটা মুখ্যমন্ত্রীর অনুমোদনক্রমে আমরা ঘোষণা করেছি।” তাহলে প্রশ্ন উঠছে, সেই চিরকুটেই কি তবে ডিএ নিয়ে ঘোষণা ছিল?

রাজ্য বিধানসভার বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী অবশ্য এই দাবিই করেছেন। তাঁর বক্তব্য, “সবাই ল্যাম্প পোস্ট, একটাই পোস্ট, সেটা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি কোম্পানির মালিক। তিনি হাউজ়ের মধ্যে মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাসকে দিয়ে চিরকুট পাঠালেন। অর্থমন্ত্রী বললেন, ৩ শতাংশ ডিএ দেব। কীভাবে দেব, কবে দেব, তার কোনও সুস্পষ্ট ব্যাখ্যা নেই। মার্চ নাকি পয়লা এপ্রিল, সেটা জানা নেই।” শুভেন্দু আরও বলেন, “১৫ মার্চ যেহেতু সুপ্রিম কোর্টে ডিএ মামলা, এই মামলার গতিপ্রকৃতি থেকে বাঁচার জন্য এই ঘোষণা। এর সঙ্গে বাস্তবের কোনও মিল নেই।”

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “আর্থিক অসুবিধা থাকা সত্ত্বেও সরকারি কর্মচারীদের জন্য ৬ পে কমিশন অনুযায়ী সুযোগ পেয়েছেন। এখানকার সরকারি কর্মীরা ব্যাঙ্ককে, মালয়েশিয়ায় ঘুরতে যেতে পারেন,তাঁদের সুযোগ আছে।”

যদিও রাজ্য সরকারি কর্মীরা এই ঘোষণায় চরম অসন্তুষ্ট। আন্দোলনের আঁচ তাঁরা আরও বাড়িয়েছেন ইতিমধ্যেই। শহিদ মিনারে নির্ধারিত হচ্ছে সরকারি কর্মীদের আন্দোলনের পরবর্তী কর্মসূচি।

Latest News Updates

Related Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla