Malda Airport: রানওয়েতে মদের আসর! মমতা সরকারের তৈরি বিমানবন্দর আজ দুষ্কৃতীদের আখড়া

Malda Airport: রানওয়েতে মদের আসর! মমতা সরকারের তৈরি বিমানবন্দর আজ দুষ্কৃতীদের আখড়া
মালদা বিমানবন্দর (নিজস্ব ছবি)

West bengal: কিন্তু মালদা এয়ারপোর্ট ক্রমশ ধ্বংসস্তূপে পরিণত হওয়ার পথেই চলেছে।

TV9 Bangla Digital

| Edited By: অবন্তিকা প্রামাণিক

Jan 28, 2022 | 8:01 PM

মালদা: মালদা বিমানবন্দর। এই এলাকা মূলত পরিচিত সমাজ বিরোধীদের আখড়া হিসেবে। বাম জমানার পতনের পর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কলকাতা-বালুরঘাট ভায়া মালদহ সাত আসনের সাপ্তাহিক হেলিকপ্টার পরিষেবা চালু করেন এখানে। কিন্তু পরিস্থিতি আদৌ বদলেছে?

একের পর এক খুন স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি গত দশ বছরে সাত জনের মতো খুন হয়েছে এই চত্ত্বরে। এক বছর আগেই এক যুবক- যুবতীর রক্তাক্ত দেহ মিলেছিল এখানে। বছর দুই আগে মাটিতে পুঁতে রাখা এক মহিলার দেহ উদ্ধার হয়। এমন একাধিক ঘটনার সাক্ষী এই মালদা বিমানবন্দর।

 স্মৃতির উড়ান এখন সমাজ বিরোধীদের আঁতুড় ঘর  একসময়ের স্বপ্নের উড়ানের স্মৃতি নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকা মালদা বিমানবন্দর এখন সমাজবিরোধীদের আখড়া। বিকেলের পর থেকেই তাঁদের দখলে যায় গোটা এয়ারপোর্ট এলাকা। মদের আসর, জুয়ার আড্ডার পাশাপাশি চলে ব্রাউন সুগার এমন কী ইয়াবা ট্যাবলেট, ও বিভিন্ন সব নেশার সামগ্রী। পাচারও হয় বলে অভিযোগ। বড় চক্র, মাফিয়াদের সঙ্গেও যোগসাজশ রয়েছে।

অতীত বলছে ৩৫০ একর জমির উপরে রয়েছে মালদহ বিমান বন্দর। ১৯৮০ সালের দিকে এখানে ছোট বিমান পরিষেবা চালু ছিল। পরবর্তীতে তা বন্ধ হয়ে যায়। তবে রাজ্যের পালাবদলের পর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কলকাতা-বালুরঘাট ভায়া মালদহ সাত আসনের সাপ্তাহিক হেলিকপ্টার পরিষেবা চালু করেন। কিন্তু এয়ারপোর্টের পরিস্থিতির বদল হয়নি। যে তিমিরে ছিল সেখানেই পড়ে রয়েছে। বিন্দুমাত্র কমেনি সমাজবিরোধীদের দৌরাত্ম।উলটে নতুন করে রানওয়ে তৈরি হলে সেখানে বাইক রাইডারদের বাজি ধরার জায়গা হয়ে ওঠে। কে কত গতিতে বাইক চালাতে পারে তার প্রতিযোগিতা। এরইমধ্যে আবার এয়ারপোর্ট সংলগ্ন এলাকারই বাসিন্দা এক যুবতীর রক্তাক্ত দেহ মেলে এক যুবকের সঙ্গে। পরিবারের দাবি, তাঁদেরকে খুন করা হয়েছে নৃশংসভাবে। এর পেছনে রয়েছে বড় কোনও মাফিয়া চক্র।

এখন বিমানবন্দরের অবস্থা এয়ার পোর্টে যত্রতত্র ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে মদের বোতল, অন্যান্য নেশার জিনিস, তাস। নিয়মিত যে আসর বসে তার নিদর্শন রয়েছে স্পষ্ট। আশে পাশে পাঁচিল ভাঙা। গেট ও খোলাই থাকে। অবাধ প্রবেশ। আশে পাশে জঙ্গল হয়ে যাচ্ছে। ঘন গাছপালার অন্ধকার। নিরাপত্তার কোনও বালাই নেই। দুমরে মুচড়ে পড়ে আছে এয়ারপোর্টের সাইনবোর্ড। বিমানবন্দরের যে অফিস ঘর রয়েছে সেটারও দৈনদশা। সব সময় তালাবদ্ধ। দায়িত্বরত কর্মীদের দেখা নেই। এত কান্ড যখন এয়ারপোর্টে হচ্ছে তখন এয়ারপোর্টের নিজস্ব নিরাপত্তার কোনও ব্যবস্থা নেই।নিরাপত্তা কর্মীও নেই। দেখা নেই পুলিশেরও। আজ চলবে বিমান, কাল চলবে বিমান এমন আশ্বাস বানী কেন্দ্র,রাজ্য দুই তরফেই বহুবার শুনে এসেছে মালদা বাসী। কিন্তু মালদা এয়ারপোর্ট ক্রমশ ধ্বংসস্তূপে পরিনত হওয়ার পথেই চলেছে। কার্যত গোটা এলাকার দখল নিয়েছে মাদক মাফিয়ারা, সমাজবিরোধীরা।

এদিকে, মুখ্যমন্ত্রী উদ্যোগ নিলেও মালদা এয়ারপোর্ট যে আসলে দুষ্কৃতীর আখড়া হয়ে উঠেছে তা স্বীকার করে নিয়েছেন ইংরেজবাজার পুরসভার প্রশাসক সুমালা আতরওয়ালা।

আরও পড়ুন: Domjur Mischief Attack: ডোমজুড়ে মদের দোকানে হামলা, বাধা দেওয়ায় কর্মীকে গুলি চালিয়ে পালাল দুষ্কৃতীরা

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 BANGLA