Omicron Variant of COVID-19: ভয় ধরানো নতুন ভ্যারিয়েন্টের নাম ‘ওমিক্রন’, ‘উদ্বেগের কারণ’ হিসাবেও চিহ্নিত করল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

Omicron Variant of COVID-19: ভয় ধরানো নতুন ভ্যারিয়েন্টের নাম 'ওমিক্রন', 'উদ্বেগের কারণ' হিসাবেও চিহ্নিত করল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা
করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট নিয়ে উদ্বেগে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। প্রতীকী চিত্র।

New Variant of COVID-19: "অতি সংক্রামক" ধরনের জন্যই নতুন এই ভ্যারিয়েন্টকে উদ্বেগের 'কারণ' হিসাবে চিহ্নিত করা হয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তরফে। এই নিয়ে উদ্বেগজনক ভ্যারিয়েন্টের তালিকায় করোনার মোট চারটি ভ্যারিয়েন্ট জায়গা পেল, ওমিক্রন, ডেল্টা, আলফা, বিটা ও গামা।

TV9 Bangla Digital

| Edited By: ঈপ্সা চ্যাটার্জী

Nov 27, 2021 | 4:19 PM


জেনেভা: করোনাকে (COVID-19) সঙ্গে নিয়েই ধীরে ধীরে বাঁচতে শিখছে মানুষ। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে এসেছে ভ্যাকসিন, উন্নত চিকিৎসাও, তবুও করোনা নিয়ে উদ্বেগ কিছুতেই কাটছে না। কারণ কিছু সময় অন্তরই সামনে আসছে নিত্যনতুন ভ্যারিয়েন্ট (Variant of COVID-19)। চলতি সপ্তাহেই দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রথম খোঁজ মেলে করোনার এক নতুন ভ্যারিয়েন্টের। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (World Health Organization) তরফে এই ভ্যারিয়েন্টের নাম দেওয়া হল ওমিক্রন (Omicron)। একইসঙ্গে এই ভ্য়ারিয়েন্টটিকে “উদ্বেগের কারণ” (Varaint of Concern) বলেও ঘোষণা করা হল।

গত ২৩ নভেম্বর, মঙ্গলবার প্রথম এই ভ্য়ারিয়েন্টের বিষয়টা সামনে আসে। লন্ডনের ইম্পেরিয়াল কলেজের ভাইরোলজিস্ট ড. টম পিকক, করোনার এই নয়া রূপ নিয়ে একটি টুইট করেন। তিনি উল্লেখ করেন নয়া ওই ভ্য়ারিয়েন্টের অভিযোজন ক্ষমতা অনেক বেশি।

জানা গিয়েছে, নতুন এই B.1.1.529 ভ্যারিয়েন্ট প্রথম ধরা পড়ে বৎসোয়ানায়। পরে সেখান থেকে হংকং ও দক্ষিণ আফ্রিকায় এই ভ্যারিয়েন্টটি ছড়িয়ে পড়েছে। এখন পর্যন্ত জেনোম সিকোয়েন্সিং করে দক্ষিণ আফ্রিকায় ১১০ জনের শরীরে শনাক্ত করা হয়েছে ওই ভাইরাস। আলফা, গামা ভ্যারিয়েন্টে পাওয়া পি৬৮১এইচ মিউটেশন রয়েছে এই ভ্যারিয়েন্টেও। অভিযোজনই করোনার এই রূপগুলিকে আরও সংক্রমণযোগ্য করে তোলে বলে দেখেছেন গবেষকরা। ৩২ টি মিউটেশন রয়েছে এই ভ্যারিয়েন্টে।

“অতি সংক্রামক” ধরনের জন্যই নতুন এই ভ্যারিয়েন্টকে উদ্বেগের ‘কারণ’ হিসাবে চিহ্নিত করা হয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তরফে। এই নিয়ে উদ্বেগজনক ভ্যারিয়েন্টের তালিকায় করোনার মোট চারটি ভ্যারিয়েন্ট জায়গা পেল, ওমিক্রন, ডেল্টা, আলফা, বিটা ও গামা।

রাষ্ট্রপুঞ্জের স্বাস্থ্য সংস্থার তরফে একটি বিবৃতি পেশ করে বলা হয়েছে, “বর্তমানে উপস্থিত প্রমাণগুলির উপর ভিত্তি করেই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তরফে বি.১.১.৫২৯ ভ্যারিয়েন্টকে ওমিক্রন নাম দেওয়া হচ্ছে এবং তাকে উদ্বেগের কারণ হিসাবে চিহ্নিত করা হচ্ছে।” উল্লেখ্য, গ্রিক ভাষা থেকে এই ওমিক্রন নামটি দেওয়া হয়েছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, ওমিক্রন নামক করোনার এই নতুন ভ্যারিয়েন্টটির ছড়িয়ে পড়ার ক্ষমতা কতটা, ভ্যাকসিন কতটা কার্যকরী, তা বুঝতে কয়েক সপ্তাহ লেগে যেতে পারে।

দক্ষিণ আফ্রিকা ও হংকং ছাড়াও গতকাল ইজরায়েলেও নতুন এই ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্তের খোঁজ মিলতেই একাধিক দেশের তরফে বিমান চলাচলে রাশ টানা হচ্ছে। ব্যপক পতন হয়েছে শেয়ার বাজারেও, কমেছে তেলের দাম। ওমিক্রন নামক এই নতুন ভ্যারিয়েন্টের প্রভাবে ফের একবার বিশ্ব অর্থনীতি প্রভাবিত হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে।

নতুন এই ভ্যারিয়েন্টটির একাধিকবার মিউটেশন বা অভিযোজন হওয়াতেই উদ্বেগ তৈরি হয়েছে বলে জানানো হয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তরফে। প্রাথমিক প্রমাণের উপর ভিত্তি করে হু জানিয়েছে, বাকি ভ্যারিয়েন্টগুলির তুলনায় নতুন এই ভ্যারিয়েন্টের প্রভাবে আবারও করোনা আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি।


Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 BANGLA