দিল্লির উপরাজ্যপালের বাড়ি ঘেরাও, রাহুলের হুমকি ‘আইন প্রত্যাহারে বাধ্য হবে বিজেপি’

ঈপ্সা চ্যাটার্জী

ঈপ্সা চ্যাটার্জী |

Updated on: Jan 15, 2021 | 3:58 PM

বিজেপি সরকারকে আক্রমণ করে তিনি বলেন, "নরেন্দ্র মোদীর সরকার এর আগেও কৃষকদের জমি কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করেছিল জমি অধিকার আইনের মাধ্যমে। সেইসময়ও কংগ্রেসই তাঁদের আটকেছিল। এখন বিজেপি আর তাঁর দু-তিনজন বন্ধু মিলে আবার কৃষকদের আক্রমণ করছেন কৃষি আইনের মাধ্যমে।"

দিল্লির উপরাজ্যপালের বাড়ি ঘেরাও, রাহুলের হুমকি 'আইন প্রত্যাহারে বাধ্য হবে বিজেপি'
জন্তরমন্তরে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে কথা বলছেন রাহুল ও প্রিয়ঙ্কা গান্ধী। ছবি:ANI

নয়া দিল্লি: কৃষকদের অধিকার তুলে ধরতে এবার দিল্লির উপরাজ্যপাল অনিল বৈজল (Anil Baijal)-র বাড়ির বাইরেই প্রতিবাদ প্রদর্শন করলেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী (Rahul Gandhi) ও প্রিয়ঙ্কা গান্ধী (Priyanka Gandhi)। কেন্দ্রকে তোপ দেগে রাহুল গান্ধী বলেন, “এই তিনটি আইন কৃষকদের শেষ করে দেওয়ার জন্য আনা হয়েছে। এখনই যদি আটকানো না হয়, তবে দেশের বাকি ক্ষেত্রগুলিতেও একই ঘটনা ঘটবে।”

ডিসেম্বর মাস থেকেই কংগ্রেসের তরফ থেকে “স্পিক আপ ফর কিষাণ অধিকার” (Speak up for Kishan Adhikar) নামক একটি প্রচারাভিযান শুরু করা হয়। আজ কংগ্রেসের তরফে কিষাণ অধিকার দিবস (Kishan Adhikar Diwas) পালন করা হচ্ছে এবং বিভিন্ন রাজ্যের কংগ্রেস কর্মীদের রাজভবনের বাইরে জমায়েতের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। শুক্রবার সকালে দিল্লির উপরাজ্যপালের বাড়ির উদ্দেশে রওনা দেন রাহুল ও প্রিয়ঙ্কা গান্ধী।

রাজ নিবাসের বাইরে পৌঁছে রাহুল গান্ধী বলেন, “বিজেপি সরকারকে এই আইন প্রত্যাহার করতেই হবে। যতদিন না আইন প্রত্যাহার হবে, ততদিন পিছু হটবে না কংগ্রেস। এই আইন কৃষকদের সাহায্যের জন্য নয়, বরং তাঁদের শেষ করার জন্য আনা হয়েছে।” তিনি আরও যোগ করে বলেন, “যদি আমরা এখনই না আটকাই, তবে কৃষিক্ষেত্রের মতোই প্রতিটি ক্ষেত্রেই একই হাল হবে। নরেন্দ্র মোদী দেশের কৃষকদের সম্মান করেন না। আর কৃষকরাও পিছু হটবেন না বা ভয় পাবেন না।”

আরও পড়ুন: রাম মন্দির নির্মাণের প্রথম অনুদান এল রাষ্ট্রপতি ভবন থেকে, কত টাকা দিলেন কোবিন্দ?

বিজেপি সরকারকে আক্রমণ করে তিনি বলেন, “নরেন্দ্র মোদীর সরকার এর আগেও কৃষকদের জমি কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করেছিল জমি অধিকার আইনের মাধ্যমে। সেইসময়ও কংগ্রেসই তাঁদের আটকেছিল। এখন বিজেপি আর তাঁর দু-তিনজন বন্ধু মিলে আবার কৃষকদের আক্রমণ করছেন কৃষি আইনের মাধ্যমে।”

কেন্দ্র ও আন্দোলনকারী কৃষকদের মধ্যে নবম দফা বৈঠকের আগেই রাহুল গান্ধী আজকের কর্মসূচির ঘোষণা করেছিলেন। রাজ নিবাসের উদ্দেশে যাত্রা শুরুর আগেও তিনি টুইট করে লেখেন, “দেশের অন্নদাতারা নিজেদের অধিকারের দাবিতে অহংকারী মোদী সরকারের বিরুদ্ধে সত্যাগ্রহ করছেন। আজ, গোটা ভারতবর্ষ কৃষকদের বিরুদ্ধে হওয়া অত্যাচার এবং পেট্রোল-ডিজেলের ক্রমবর্ধমান দামের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছেন। আসুন আপনারাও যোগ দিন এবং সত্যাগ্রহের অংশ হন।”

উপ রাজ্যপালের বাড়ির বাইরে বিক্ষোভ দেখানোর পর জন্তরমন্তরে আন্দোলনরত কংগ্রেস কর্মীদের সঙ্গে দেখা করতে যান দলের প্রাক্তন সভাপতি। সেখানে সাংবাদিকরা তাঁকে সুপ্রিম কোর্টের কমিটি থেকে ভূপিন্দর সিং মানের পদত্যাগের বিষয়ে প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, “এগুলি সবই মিডিয়ার ছড়ানো মায়া। যেদিন এই মায়া কাটবে, সেদিন সত্যটা দেখতে পাবেন আপনারা সকলে।” উল্লেখ্য, এর আগে রাহুল গান্ধীর বাড়িতেও প্রিয়ঙ্কা গান্ধীর সঙ্গে দেখা করেন জন্তর মন্তরে আন্দোলনরত কংগ্রেসকর্মীরা।

আরও পড়ুন: গুলি চললেও আন্দোলন থামবে না, বৈঠক শুরুর আগে কড়া বার্তা কৃষকদের

Latest News Updates

Follow us on

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla