ধানের বদলে চাষ হচ্ছে গাঁজা! ৭০ হাজার গাছ পুড়িয়ে দিল পুলিশ, মাদক সহ ধৃত ৬

পুলিশের তরফে আরও জানানো হয়, কৈলাশাহারে তল্লাশি অভিযান চালিয়ে সেখান থেকে ৩৯২ টি ইয়াবা ট্যাবলেট ও ০.২৬ গ্রাম ব্রাউন সুগার উদ্ধার করা হয়েছে। ধর্মনগর থেকে ১৩২ কিলো শুকনো গাঁজা ও ১২.৪ গ্রাম হেরোইন উদ্ধার করা হয়েছে।

ধানের বদলে চাষ হচ্ছে গাঁজা! ৭০ হাজার গাছ পুড়িয়ে দিল পুলিশ, মাদক সহ ধৃত ৬
যদি সুমন বালা সাহুর নাম বেছে নেওয়া হয়। তবে তিনিই হবেন পশ্চিমবঙ্গের প্রথম মহিলা আইপিএস। ১৯৮৬ সালের পশ্চিমবঙ্গ ব্যাচের আইপিএস ক্যাডার তিনি।

আগরতলা: ধানজমির মাঝেই সকলের চোখের আড়ালে চলছিল গাঁজা(Marijuana)-র চাষ। তল্লাশি অভিযান চলাকালীন পুলিশের নজরে পড়তেই পুড়িয়ে দেওয়া হল ৭০ হাজার গাছ। অভিযানে উদ্ধার হয়েছে ১২.৪ গ্রাম হেরোইন (Heroin) ও ১৩২ কেজি শুকনো গাঁজা (Dry Cannabis)। বিভিন্ন জায়গা থেকে মোট ছয়জনকে গ্রেফতার করেছে ত্রিপুরা পুলিশ (Tripura Police)।

বিশালগঢ় পুলিশ স্টেশনের ওসি দেবাশীষ সাহা বলেন, “পুলিশের তরফে গোটা রাজ্যজুড়েই তল্লাশি অভিযান চালানো হচ্ছিল। সেই সময়ই ওই গাঁজার গাছগুলি নজরে আসে। মোট ৭০ হাজার চারাগাছ পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। আগামিদিনেও এই ধরনের তল্লাশি অভিযান চালানো হবে।”

পুলিশের তরফে আরও জানানো হয়, কৈলাশাহারে তল্লাশি অভিযান চালিয়ে সেখান থেকে ৩৯২ টি ইয়াবা ট্যাবলেট ও ০.২৬ গ্রাম ব্রাউন সুগার উদ্ধার করা হয়েছে। ধর্মনগর থেকে ১৩২ কিলো শুকনো গাঁজা ও ১২.৪ গ্রাম হেরোইন উদ্ধার করা হয়েছে। কুমারঘাটেও তল্লাশি অভিযান চালানো হয়, সেখান থেকে দেশী ও ভারতে তৈরি বিদেশী মদ (IMFL) উদ্ধার করা হয়েছে। তেলিয়ামুরা থেকে ব্রাউন সুগারের ২৩টি প্যাকেট।

লকডাউনের সময় থেকেই ত্রিপুরায় বাড়বাড়ন্ত হয়েছে মাদক পাচার চক্রের। এর আগেও নৈশ কার্ফু চলাকালীন মাদক পাচার চক্রের খোঁজ পায় পুলিশ। আনুমানিক ১২ লক্ষ টাকা মূল্যের ৩১০০ বোতল কাশির ওষুধ উদ্ধার করা হয়।  এক মাস আগেই ১০ লক্ষ টাকার ব্রাউন সুগার ও কফ সিরাপ সহ সাতজন মাদক পাচারকারীকে গ্রেফতার করেছিল আগরতলা পুলিশ।

আরও পড়ুন: করোনার জেরে উপেক্ষিত শিশুদের স্বাস্থ্য, ডিটিপি-১ টিকাকরণে শেষের তালিকায় ‘প্রথম’ ভারত

 

 

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla