করোনার আবহে স্বাস্থ্য বিমার গুরুত্ব কতটা, জেনে নিন

এখন বেশি করে মানুষ স্বাস্থ্য বিমার (Health Insurance) দিকে ঝুঁকেছে

করোনার আবহে স্বাস্থ্য বিমার গুরুত্ব কতটা, জেনে নিন

করোনার সংকটে মানুষ স্বাস্থ্য বিমার গুরুত্ব (Important) বুঝতে পেরেছে। অসুস্থ হলে আপনাকে এবং আপনার পরিবারকে চিকিৎসার জন্য সহায়তা করতে পারে স্বাস্থ্য বিমা। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে যখন গোটা দেশ কাবু তখন বেশি করে মানুষ স্বাস্থ্য বিমার দিকে ঝুঁকেছে। তবে কোভিডের বাড়বাড়ন্তর ফলে এখন স্বাস্থ্য বিমার (Health Insurance) সুবিধা পাওয়া সহজ কথা নয়।

এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ৩১ মার্চ আর্থিক বছর শেষ হওয়ার পরে এ বছর ৪ মে পর্যন্ত অসংখ্য স্বাস্থ্য বিমার আবেদন জমা পড়েছে স্বাস্থ্য বিমা সংস্থাগুলিতে। ইকোনমিকস টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চাহিদা বাড়ার ফলে স্বাস্থ্য বিমা সংস্থাগুলি নতুন পলিসি কেনার নিয়ম কঠোর করেছে। এ কারণে নতুন আবেদন প্রত্যাখ্যানের হার বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

শিল্প বিশেষজ্ঞদের মতে, সারা বিশ্বে জীবন ও স্বাস্থ্য বিমা সংস্থাগুলি তাদের ক্ষয়ক্ষতি কমাতে নানা কঠোর নিয়ম চালু করেছে। ২০২১-২২ এই অর্থবছরের শুরু থেকে মেয়াদী বিমা প্রিমিয়াম ২৫ থেকে ৩০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। কিন্তু দেশের বৃহত্তম বিমা সংস্থা এলআইসির প্রিমিয়াম বাড়েনি। তবে পলিসি সময়কালে পলিসি করা ব্যক্তি মারা গেলে তার মনোনীত ব্যক্তি নিয়ম অনুযায়ী অল্প টকার বিমাতেও প্রচুর টাকা পাবেন।

স্বাস্থ্য বিমার নানা সুবিধা রয়েছে। স্বাস্থ্য বিমা নীতিতে হাসপাতালে ভর্তির ব্যয়, ওষুধের জন্য খরচ, ডাক্তারের ফি এবং ডায়াগনস্টিক সহায়তা পাওয়া যায়। যিনি পলিসি করবেন তিনি তো টাকা পাবেনই পাশাপাশি তার অবর্তমানে সুবিধা পাবে পরিবার।