Omicron Threat: ‘ঝুঁকিপূর্ণ’ বাংলাদেশ নিয়েই ভয়! নিয়মিত এত লোকের যাতায়াত, ওমিক্রন হাজির হলে মোকাবিলা কঠিন হতে পারে

Covid 19: বাংলাদেশের সঙ্গে পশ্চিমবঙ্গের একাধিক সীমান্ত এলাকা রয়েছে।

Omicron Threat: 'ঝুঁকিপূর্ণ' বাংলাদেশ নিয়েই ভয়! নিয়মিত এত লোকের যাতায়াত, ওমিক্রন হাজির হলে মোকাবিলা কঠিন হতে পারে
বাংলাদেশ, সিঙ্গাপুর নিয়ে চিন্তায় বাংলা। ফাইল ছবি।

কলকাতা: বিশ্বজুড়ে উদ্বেগ বাড়াচ্ছে করোনার নয়া ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন। মঙ্গলবার বিভিন্ন রাজ্যের সঙ্গে এক উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে বসে কেন্দ্র। সেখানে একাধিক নির্দেশিকা জারি হয়েছে। মূলত বিভিন্ন ‘ট্র্যাভেল গাইডলাইন’-ই এই বৈঠকের নির্যাস। উদ্বেগের এক ডজন দেশ এবং সেখান থেকে আসা যাত্রীদের নিয়ে বাড়তি সতর্কতার নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্র। বিদেশফেরত যাত্রীদের উপর নজরদারির পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এ ক্ষেত্রের বাংলার জন্য যে দু’টি দেশ হুমকি হতে পারে তার শীর্ষে রয়েছে বাংলাদেশের নাম। এরপরই রয়েছে সিঙ্গাপুর। এই দুই দেশ থেকে আসা বিমানযাত্রীদের করোনা পরীক্ষা বাধ্যতামূলক করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। নমুনার রিপোর্ট পজিটিভ হলে আইসোলেশনে থাকতে হবে। অন্যদিকে নমুনার রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত কোয়ারেনটাইনে থাকা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

কেন্দ্র উদ্বেগের যে ১২টি দেশের তালিকা তৈরি করেছে তার মধ্যে রয়েছে ইউনাইটেড কিংডম, ব্রাজিল, দক্ষিণ আফ্রিকা, বাংলাদেশ, বতসোয়ানা, চিন, মরিশাস, নিউ জিল্যান্ড, জিম্বাবোয়ে, হংকং, সিঙ্গাপুর, ইজরায়েল। এর মধ্যে বাংলাদেশ ও সিঙ্গাপুর নিয়েই প্রমাদ গুনছে বাংলা। স্বাস্থ্য ভবনও এ নিয়ে খুবই উদ্বিগ্ন বলেই জানা গিয়েছে। এই উদ্বেগের কারণ অবশ্য একেবারেই অমূলক নয়।

মঙ্গলবারের বৈঠকে স্বাস্থ্য দফতরের তরফে কেন্দ্রকে জানানোও হয়েছে সে বিষয়ে। বাংলাদেশের সঙ্গে পশ্চিমবঙ্গের একাধিক সীমান্ত এলাকা রয়েছে। সড়কপথ কিংবা আকাশপথেও নিয়মিত যোগাযোগ রয়েছে দুই বাংলার। ফলে বাংলাদেশ থেকে আসা মানুষের সংখ্যা যেহেতু পশ্চিমবঙ্গে অনেক বেশি, তা চিন্তার কারণ। অন্যদিকে সিঙ্গাপুর থেকে সরাসরি বিমান চলাচল করে কলকাতা বিমানবন্দরে।

তাই বাকি দশটি দেশ নিয়ে ভয় থাকলেও এই দুই দেশ বিশেষ মাথা যন্ত্রণার কারণ স্বাস্থ্যদফতরের। এই দুই দেশের ক্ষেত্রের স্বাস্থ্য দফতরও সতর্ক। জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকদের বলাও হয়েছে, বাংলাদেশ ও সিঙ্গাপুর থেকে যাঁরা আসছেন, বিশেষ সতর্ক থাকতে। করোনা পরীক্ষা বাধ্যতামূলক। আরটিপিসিআর-এ নমুনা পরীক্ষা করতে হবে। রিপোর্ট হাতে না আসা পর্যন্ত নিভৃতবাসে রাখা হবে।

স্বাস্থ্য ভবনের বক্তব্য, ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট নিয়ে যথেষ্ট উদ্বিগ্ন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও। অত্যন্ত সহজেই এই ভ্যারিয়েন্ট সংক্রমিত করতে পারে মানুষকে। ডেল্টার থেকে বহু গুন শক্তিশালী সে। এদিকে বাংলাদেশ সীমান্ত লাগোয়া এপার বাংলার যে জেলাগুলি রয়েছে তা অত্যন্ত ঘন জনবসতিপূর্ণ। শীর্ষে রয়েছে উত্তর ২৪ পরগনা ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা।

ভাইরোলজিস্ট সুমন পোদ্দারের কথায়, “টিকার সম্পূর্ণ ডোজ় নেওয়া থাকলে নিঃসন্দেহে তা একটা বর্মের কাজ করবে। তবে তা কতটা কার্যকর তা সময় বলতে পারবে। কারণ দক্ষিণ আফ্রিকায় যে সংক্রমণ দেখা গিয়েছে, সেখানে কিন্তু অধিকাংশই টিকা নেননি।”

জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ সুবর্ণ গোস্বামীর কথায়, “কোভিড প্রটোকল সকলকেই মেনে চলতে হবে। কারণ, যাঁরা ইতিমধ্যেই টিকা নিয়েছেন তাঁরাও যে একেবারে নিরাপদ এই ভ্যারিয়েন্ট থেকে তা জোর দিয়ে বলা যাচ্ছে না। ভারতের উচিৎ অবিলম্বে আফ্রিকার যে দেশগুলিতে এই ভ্যারিয়েন্ট পাওয়া গিয়েছে, সেখান থেকে বিমান যোগাযোগ বন্ধ করে দেওয়া। অবিলম্বে কোভিডের নজরদারি বাড়াতে হবে। নমুনা পরীক্ষাও বাড়ানো দরকার। এ ছাড়া ভিড় এড়িয়ে চলতে হবে, মাস্কও মাস্ট।”

আরও পড়ুন: Body Recover: ‘জন্মদিনের পার্টিটাই কাল হল! ওই মেয়ে দু’টোও ছিল ওখানে’, দরজা ঠেলে মা দেখলেন ঝুলছে ছেলে

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla